Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৯ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:১০
আবাহনীর কাছেই হারল রহমতগঞ্জ
ঢা. আবাহনী ২ : ০ রহমতগঞ্জ
চ. আবাহনী ১ : ০ ব্রাদার্স
ক্রীড়া প্রতিবেদক
আবাহনীর কাছেই হারল রহমতগঞ্জ

একের পর এক বিস্ময় উপহার দিয়েই চলছিল রহমতগঞ্জ। প্রথমবারের মতো পেশাদার লিগে শ্রেষ্ঠত্বের জোরাল দাবি নিয়ে এগিয়ে চলছিল তারা। তবে প্রথম পর্বের শেষ ম্যাচে ঢাকা আবাহনীর কাছে হেরে তাদের অপরাজিত থাকার ধারাটা ভেঙে গেল। গতকাল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে জেবি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে প্রথম পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে ঢাকা আবাহনীর কাছে ২-০ গোলের পরাজয় স্বীকার করে রহমতগঞ্জ। মৌসুমের প্রথম এ পরাজয়ে শীর্ষস্থান থেকেও ছিটকে গেল তারা। চলতি মৌসুমে এখনো পর্যন্ত কেবল আবাহনীই অপরাজিত থাকল। ১১ ম্যাচের ৬টিতেই জিতেছে তারা। ড্র করেছে বাকি ৫টিতে। ঢাকা আবাহনীর সংগ্রহ ২৩ পয়েন্ট। ২২ পয়েন্ট সংগ্রহ করেছে রহমতগঞ্জ। তবে এই জয়ের পরও ঢাকা আবাহনী দ্বিতীয় স্থানে রইল। গতকাল দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে চট্টগ্রাম আবাহনী ১-০ গোলে ব্রাদার্স ইউনিয়নকে হারিয়ে ১১ ম্যাচে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে প্রথম পর্বে শীর্ষে থাকল। গতকাল দুই দলের জন্যই ম্যাচটা ছিল খুবই গুরুত্বপূর্ণ। জিতলেই শীর্ষে উঠার হাতছানি। তাছাড়া প্রথম পর্বটা শীর্ষে থেকে শেষ করার মর্যাদাকর বিষয়টাও ছিল। ম্যাচ শুরু হতেই দুই দলের দুর্দান্ত লড়াই দেখতে পান ভক্তরা। তবে রহমতগঞ্জের আক্রমণের পরিমাণটাই ছিল বেশি। ঢাকা আবাহনীর  গোলরক্ষক শহিদুল আলম সোহেল দুর্দান্ত কয়েকটা সেভ করে দলকে পিছিয়ে পড়া থেকে বাঁচান। ঢাকা আবাহনীর আক্রমণভাগও ছিল সক্রিয়। ম্যাচের ৪৮ মিনিটে আবাহনীর অব্যাহত আক্রমণের মুখে পরাজয় স্বীকার করে রহমতগঞ্জ। গোল করেন সানডে। এগিয়ে যাওয়ার পর যেন আরও দুরন্ত হয়ে উঠে ঢাকা আবাহনী। এই ব্যবধান নির্ধারিত সময়ে আর পরিবর্তন হয়নি। অতিরিক্ত সময়ে সানডের আরও একটি গোল আকাশি নীলদের জয় নিশ্চিত করে দেয়। তবে এর মধ্যে দুই দলের উত্তেজনা পুরো ম্যাচজুড়ে বাড়তে বাড়তে চূড়ান্ত রূপ নেয়। রহমতগঞ্জের সাখাওয়াত রাসেল এবং আবাহনীর গোলরক্ষক সোহেলকে লাল কার্ড দেখান রেফারি।

 ম্যাচের বাকিটা সময় নিয়মিত গোলরক্ষক ছাড়াই খেলতে হয় আবাহনীকে। কারণ, ততোক্ষণে বদলির অপশন শেষ হয়ে গিয়েছিল আকাশি নীলদের।

up-arrow