Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০৩
প্রশ্নটি ফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠল
মুশফিকের উইকেট কিপিং
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রশ্নটি ফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠল
ঋদ্ধিমান সাহার সহজ স্ট্যাম্পিং মিস করেন টাইগার অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। এর আগে তিনি কোহলিরও স্ট্যাম্পিং মিস করেন যার খেসারত দিয়েছে বাংলাদেশ —ক্রিকইনফো

প্রশ্নটা অনেক দিন ধরেই ঘুরছে ক্রিকেটপাড়ায়। মুশফিকুর রহিমকে কেন শুধু ব্যাটসম্যান হিসেবে একাদশে রাখা হচ্ছে না? কিংবা একজন স্পেশালিস্ট উইকেটরক্ষক নেওয়া হচ্ছে না কেন একাদশে? হায়দরাবাদে ঐতিহাসিক টেস্টে প্রথম দুই দিনে বাংলাদেশের পারফরম্যান্সের প্রশ্নটি ভিত শক্ত করে নিয়েছে বেশ জোরালোভাবে।

বিরাট কোহলির ডাবল, ঋদ্ধিমান সাহা ও মুরালি বিজয়ের জোড়া সেঞ্চুরিতে ভারত যে ৬ উইকেটে ৬৮৭ রান করেছে, সমালোচকরা বলছেন তার জন্য দায়ী মুশফিকের বাজে কিপিং। নিন্দুকের সমালোচনা না করার কোনো কারণও নেই। কোহলি ও ঋদ্ধিমানের যে দুটি স্ট্যাম্পিং মিস করেছেন মুশফিক, সেটা ছিল রীতিমতো দৃষ্টিকটু। ওয়েলিংটন টেস্টে দারুণ সেঞ্চুরির ইনিংস খেলেছিলেন মুশফিক। কিন্তু ইনজুরির জন্য কিপিং করেননি। বদলি উইকেটরক্ষক হিসেবে ইমরুল কায়েস পাঁচ ক্যাচ নিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়েন। ক্রিকেটপাড়ায় জোর গুঞ্জন, শুধু ওই টেস্ট থেকে নয়, অনেক আগে থেকেই মুশফিককে শুধু ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলাতে চাইছেন কোচ চন্ডিকা হাতুরাসিংহে। কিন্তু মুশফিক চাইছেন দলে ব্যাটসম্যান কাম কিপার হিসেবে খেলতে। কোচ উদাহরণ হিসেবে দেখাচ্ছেন কুমার সাঙ্গাকারাকে। সাঙ্গাকারা শুরুতে টেস্টে কিপিং ও ব্যাটিং দুটোই করেছেন একসঙ্গে। কিন্তু শেষদিকে টেস্টে খেলেছেন শুধু ব্যাটসম্যান হিসেবে। বাংলাদেশ ক্রিকেটে এখন লিটন কুমার দাস, সোহানুর রহমানদের মতো উদীয়মান উইকেটরক্ষক কাম ব্যাটসম্যান রয়েছেন। সুতরাং টিম ম্যানেজমেন্ট ভাবতেই পারে এমনটি। হায়দরাবাদ টেস্ট এখন সেই ভাবনায় আরও একটু রসদ জুগিয়ে দিল, এই যা!

প্রথম দিন চেতেশ্বর পূজারার ব্যাটের কানায় লেগে ক্যাচ উঠলেও বলের লাইনে যাননি মুশফিক। অথচ ধারাভাষ্যকার লিজেন্ড ক্রিকেটার সুনীল গাভাস্কার তাত্ক্ষণিকভাবে বলে ওঠেন, ক্যাচটি মুশফিকের! গতকাল কোহলির সহজ স্ট্যাম্পিং মিস করেন। ভারতীয় অধিনায়ক তখন ব্যাট করছিলেন ১৬৫ রানে। মিরাজের বলে স্ট্যাম্পিং করতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত কোহলির ইনিংসটি থামে ২০৪ রানে। প্রতিপক্ষ দলের উইকেটরক্ষক ঋদ্ধিমানের রান যখন ৪, তখন তাইজুলের বলে স্ট্যাম্পিং মিস করেন। দিন শেষে ঋদ্ধিমান অপরাজিত থাকেন ১০৬ রানে।   মুশফিকের দুই দুটি স্ট্যাম্পিং মিস যেমন দলকে রাস্তাচ্যুত করেছে, তেমনি সাব্বির রহমান ও তামিম ইকবাল যেভাবে লোপ্পা ক্যাচ ফেলেছেন, তাতে বাংলাদেশের ফিল্ডিং নিয়ে ফের প্রশ্ন উঠেছে।

up-arrow