Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৩৪
টেস্ট দিয়ে টাইগারদের সফর শুরু
বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সিরিজ
ক্রীড়া প্রতিবেদক
টেস্ট দিয়ে টাইগারদের সফর শুরু

বাংলাদেশ দলের শ্রীলঙ্কা সফর চূড়ান্ত হলেও সূচি চূড়ান্ত হয়নি এখনো। শ্রীলঙ্কান বোর্ড চাচ্ছিল প্রথমে ওয়ানডে দিয়ে সিরিজ শুরু হোক।

কিন্তু বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের দাবি ছিল শুরুতে টেস্ট, তারপর স্বল্প দৈর্ঘ্যের ক্রিকেট। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের দাবি মেনে নিয়েছে লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড, বিসিবি সূত্রে জানা গেছে।

এতে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের জন্য সুবিধাই হয়েছে। কেননা নিউজিল্যান্ডে সব শেষ টেস্ট খেলেছে বাংলাদেশ। তারপর ভারতের সঙ্গে এক ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। অন্যদিকে  ঘরোয়া লিগেও এখন চলছে দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেট। তাই শুরুতে টেস্ট হওয়ায় বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের জন্য ভালোই হয়েছে। দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেট খেলার জন্য প্রস্তুত হয়েই আছেন ক্রিকেটাররা।

বাংলাদেশের প্রধান শক্তি হচ্ছে ওয়ানডে ক্রিকেটে। শুরুতে ওয়ানডে ম্যাচ হলে কণ্ডিশনের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেওয়ার বিষয়টি সমস্যায় ফেলতে পারতো বাংলাদেশকে। সেক্ষেত্রে প্রথম টেস্ট হওয়ায় টাইগারদের জন্য সুবিধাই হয়েছে।

এই সফরে বাংলাদেশ দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলবে। প্রথম টেস্ট শুরু হবে ৭ মার্চ গলেতে। দ্বিতীয় ওয়ানডে ১৫ মার্চ কলম্বোতে। এই সফরে এছাড়াও তিনটি ওয়ানডে ও দুটি টি-২০ ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ সব শেষ যে তিনটি আন্তর্জাতিক ম্যাচ তিনটিই ছিল টেস্ট। সবগুলো ম্যাচে হারলেও প্রাপ্তি আছে অনেক। এর মধ্যে দুটি ম্যাচেই ড্র করার ভালো সম্ভাবনা ছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তের ভুলের কারণে হারতে হয়েছে।

নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওয়েলিংটন টেস্টে প্রথম ইনিংসে ৮ উইকেটে ৫৯৫ রান করে ইনিংস ঘোষণা করেছিল বাংলাদেশ। ওই ইনিংসে পঞ্চম উইকেটে সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহিম মিলে ৩৫৯ রানের মহাকাব্যিক এক জুটি গড়েছিলেন। বাংলাদেশের টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বোচ্চ রানের জুটি তো বটেই, নিউজিল্যান্ডের মাটিতে কোনো বিদেশি দলের সর্বোচ্চ রানের জুটি ছিল সেটি। সাকিব ডাবল সেঞ্চুরি করেছিলেন। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের ২১৭ রানের স্কোরটি ছিল বাংলাদেশের টেস্ট ইতিহাসে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর। তারপরেও ওই ম্যাচে টাইগাররা হারতে হয়েছিল দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং ব্যর্থতায়।

ঠিক একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটে হায়দরাবাদেও। এক টেস্টের এই ম্যাচে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং ব্যর্থতার জন্যই হারতে হয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশ যে টেস্টে অনেক উন্নতি করেছে হারলেও সেই চিত্রটি পরিষ্কার ফুটে উঠেছিল টাইগারদের খেলায়। তাই বিসিবির মিডিয়ার কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস মনে করেন, শ্রীলঙ্কাতেও ভালো খেলবে বাংলাদেশ। গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনকে তিনি বলেন, ‘ভারতের বিরুদ্ধে হায়দরাবাদ টেস্টে ড্র করার সুযোগ ছিল। কিন্তু সিনিয়র ব্যাটসম্যানরা ভালো করতে না পারায় সুযোগটা হাতছাড়া হয়ে গেছে। তবে ওই টেস্টের ভুলগুলো থেকে শিক্ষা নিতে পারলে, আমার বিশ্বাস শ্রীলঙ্কায় বাংলাদেশ অনেক ভালো করবে। ’

ঘরের মাঠে লঙ্কানরা যে কতটা ভয়ঙ্কর তা সব শেষ সিরিজে অস্ট্রেলিয়াকে কড়ায় গণ্ডায় বুঝিয়ে দিয়েছে। তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে অসিদের হোয়াইটওয়াশ করেছিল স্বাগতিকরা। এমনকি এই সফরে লঙ্কান কিংবদন্তি মুত্তিয়া মুরালিধরনকে পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ দিয়েও লাভ হয়নি অস্ট্রেলিয়ার। তাই বাংলাদেশের জন্য সফরটি কঠিন হবে মনে করেন ইউনুস, ‘শ্রীলঙ্কা ঘরের মাঠে ভয়ঙ্কর দল। তাই বাংলাদেশকে কোনো ভুল করা যাবে না। ’

শ্রীলঙ্কার মাটিতে বাংলাদেশের ভালো খেলার অভিজ্ঞতা আছে। সব শেষ ২০১৩ সালের মার্চে সেখানে একটি পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলেছে টাইগাররা। ওয়ানডে সিরিজে ড্র করেছিল বাংলাদেশ। টেস্টেও এক ম্যাচে ড্র হয়েছিল। ওই সিরিজেই বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করেছিলেন বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। সেই স্মৃতি বাংলাদেশকে ভালো খেলতে অনুপ্রাণিত করতে পারে বলে মনে করেন জালাল ইউনুস।

শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য এখন দল ঘোষণা করা হয়নি। বিসিএলের খেলা দেখে ২০-২১ ফেব্রুয়ারির দিকে ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করার কথা। এরপর শুরু হবে অনুশীলন। সপ্তাহ খানেক অনুশীলন করার পর শ্রীলঙ্কার উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়বেন ক্রিকেটাররা।

up-arrow