Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : রবিবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২২:৫১
শুরুতেই ঢাকা আবাহনীর হার
শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ফুটবল শুরু
মুহাম্মদ সেলিম, চট্টগ্রাম
শুরুতেই ঢাকা আবাহনীর হার

শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ ফুটবলে প্রথম আসরে সেমিফাইনালে উঠতে পারেনি ঢাকা আবাহনী। এবারও সেই শঙ্কা জেগে উঠেছে।

দ্বিতীয় শেখ কামাল আন্তর্জাতিক আসরে শুরুতেই হেরে গেছে তারা। গতকাল চট্টগ্রাম এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত ম্যাচে মালদ্বীপ টিসি স্পোর্টস ক্লাবের কাছে ১-০ গোলে হার মানে। আবাহনী পেশাদার লিগ অর্থাৎ বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন। অন্যদিকে টিসি স্পোর্টস এবার মালদ্বীপের দ্বিতীয় বিভাগ চ্যাম্পিয়ন হয়ে প্রথম বিভাগে উঠেছে। এমন একটি দলের কাছে আবাহনী হারবে তা ছিল অনেকটা ধারণার বাইরে। এ গ্রুপে আবাহনীর ভয় ছিল দক্ষিণ কোরিয়ার পোচেন সিটিজেন ও কিরগিজস্তানের আলগাকে ঘিরে। এ দুই শক্তিশালী দলকে টপকিয়ে ঢাকা আবাহনী শেষ চারে ঠাঁই পাবে কিনা তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।

শক্তিশালী গ্রুপে পড়ার পরও দলের ম্যানেজার সত্যজিত দাশ রুপু বলেছিলেন আমরা টুর্নামেন্টে ভালো খেলা উপহার দেব। কিন্তু শুরুতেই হেরে গেল। এই হারের পরও ঢাকা আবাহনীর সেমিফাইনালের আশা শেষ হয়ে যায়নি। পরবর্তী দুই ম্যাচে জিততে হবে। পোচেন ও আলগা আরও শক্তিশালী প্রতিপক্ষ। সেই ক্ষেত্রে আবাহনী কতটুকু জ্বলে উঠবে সেটাই দেখার বিষয়। পোচেন গতকাল আলগাকে ২-০ গোলে পরাজিত করেছে। তারপরও আলগার টেকনিক্যাল খেলা চোখে পড়েছে। অর্থাৎ শুরুতে হেরে ঝুঁকির মধ্যে পড়ে গেল ঢাকা আবাহনী। পেশাদার লিগ অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন। কিন্তু আবাহনী কাল মাঠে সেই খেলাটা খেলতে পারেনি। মালদ্বীপের টিসি স্পোর্টস খুব যে ভালো খেলেছিল তাও বলা যাবে না। ১৬ মিনিটে ইব্রাহিমের গোলে এগিয়ে যায় তারা। অথচ বাকি সময়ে সেই গোল শোধ করতে পারেনি। আবাহনী দলের ভিতর সমন্বয়ের অভাব ছিল। সুযোগটা কাজে লাগিয়েছে প্রতিপক্ষরা।

অন্যদিকে দক্ষিণ কোরিয়ার ফুটবলে ততটা শক্তিশালী দল নয় পোচেন সিটিজেন। তারপরও তাদের গতিময় খেলা চোখে পড়েছে। বিশ্বে ফুটবলে কোরিয়া যে শক্তিশালী দল তা পোচনের নৈপুণ্য দেখে প্রমাণ মিলেছে। ১৪ মিনিটে গোল করে এগিয়ে যায় পোচেন। প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে দুর্দান্ত শটে প্রতিপক্ষের গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন জং ইয়ং। পাঁচ মিনিট পরই ব্যবধান ২-০ করে দক্ষিণ কোরিয়ার দলটি। পার্ক জংয়ের থ্রু পাস থেকে মিডফিল্ডার জি কিইং বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে জালে বল পাঠান। প্রথমার্ধ জুড়ে তাদেরই ছিল প্রাধান্য। দ্বিতীয়ার্ধে কিরগিজস্তানের আলগা ম্যাচে ফিরতে মরিয়া হয়ে ওঠে। একের পর এক আক্রমণ। কিন্তু সুযোগ হাতছাড়া হওয়ায় গোলের দেখা পায়নি। খেলার শেষের দিকে পোচেন বরং বেশ কটি গোলের সুযোগ নষ্ট করে। তা না হলে ব্যবধান আরও বড় হতে পারত।

দ্বিতীয় শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ফুটবলের উদ্বোধনী দুই ম্যাচে দর্শকের সমাগম ঘটেনি। আয়োজকরা আশা করছে সামনে ঠিকই গ্যালারি ভরপুর থাকবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow