Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৫০
লিস্টারের ‘রূপকথার নায়ক’ রেনেরি বরখাস্ত
ক্রীড়া ডেস্ক
লিস্টারের ‘রূপকথার নায়ক’ রেনেরি বরখাস্ত

ইংলিশ ফুটবলেই কেবল নয়, পুরো বিশ্ব ফুটবলেই এক অনন্য নজির স্থাপন করেছিলেন ইতালিয়ান কোচ ক্লাউডিও রেনেরি। যে দলটা কালে-ভদ্রে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ খেলার সুযোগ পেত তাদের একেবারে চ্যাম্পিয়নের মুকুট এনে দিয়েছিলেন তিনি।

রূপকথার নায়কে পরিণত হয়েছিলেন বিশ্ব ফুটবলে। ফিফা খুব আগ্রহ ভরেই তার শিরে তুলে দিয়েছিল সেরার তাজ। বর্ষসেরা কোচের ট্রফিটা বগলদাবা করেও অবশ্য চাকরি বাঁচাতে পারলেন না রেনেরি। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে অব্যাহত খারাপ ফল করায় অবশেষে লিস্টার সিটি কর্তৃপক্ষ তাকে বরখাস্ত করল। গত বুধবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে সেভিয়ার মাঠে লিস্টার সিটি ২-১ গোলে হেরে যায়। এর ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই রেনেরিকে বরখাস্ত করা হলো। মূলত লিগে ব্যর্থতার জন্যই ছাঁটাই হতে হলো ৬৫ বছর বয়সী ইতালিয়ান এই কোচকে। চলতি মৌসুমে চ্যাম্পিয়নদের অবস্থা খুবই খারাপ। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ১৩ ম্যাচ বাকি থাকতে অবনমন অঞ্চল থেকে মাত্র ১ পয়েন্ট উপরে আছে লিস্টার সিটি। ১৯৩৮ সালের পর প্রথম কোনো দল হিসেবে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পরের বছরই রেলিগেশনে পড়ার ভয় রয়েছে তাদের। গতবার ১০ পয়েন্টের ব্যবধানে শিরোপা জেতা দলটি এবার লিগে মাত্র ৫টি ম্যাচে জিতেছে! হেরেছে ১৪ লিগ ম্যাচ। ২০১৭ সালে লিগে একটি গোলও করতে পারেনি তারা! এতসব বিবেচনায় নিয়েই বরখাস্ত করা হয়েছে রেনেরিকে। লিস্টার সিটি এক বিবৃতিতে জানায়, পরিচালনা পর্ষদ মনে করেছে, নেতৃত্বে পরিবর্তন দরকার। রেনেরিকে বিদায় দেওয়াটা বেদনার হলেও তা করা হয়েছে ক্লাবের বৃহত্তর স্বার্থে। ২০১৫ সালের জুলাইয়ে লিস্টারের দায়িত্ব নেওয়া রেনেরির সঙ্গে গত বছরের আগস্টেই চার বছরের নতুন চুক্তি করেছিল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু ইতালিয়ান এ কোচ টিকতে পারলেন না এক বছরও। একজন সফল কোচের এমন বরখাস্তের ঘটনায় বিস্মিত হয়ে গেছে ফুটবল প্রাঙ্গণ। ক্লাবের সিদ্ধান্তের কঠোর প্রতিবাদ জানিয়েছে ইতালিয়ান কোচেরা। ইতালির সংবাদ মাধ্যমগুলোতেও সমালোচনার তুফান ছুটেছে। এ ঘটনাকে ‘স্ক্যান্ডাল’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছে তারা। ইতালিয়ান পত্রিকাগুলো ইংলিশদের ‘অকৃতজ্ঞ’ বলতেও ছাড়ছে না। ম্যানসিটির সাবেক কোচ রবার্তো মানসিনিও এ সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন। তিনি রেনেরির প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন টুইটারে।

up-arrow