Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৪১
স্বপ্ন নিয়ে মুশফিকরা শ্রীলঙ্কায়
ক্রীড়া প্রতিবেদক
স্বপ্ন নিয়ে মুশফিকরা শ্রীলঙ্কায়
শ্রীলঙ্কা যাওয়ার আগে গতকাল হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মুস্তাফিজ, কামরুল, তাসকিন ও তাইজুলরা —বাংলাদেশ প্রতিদিন

কয়েক বছর আগেও এমন চিত্র ছিল না। এক সঙ্গে বিমানবন্দরে যেতেন না ক্রিকেটাররা।

নির্দিষ্ট সময়ের ভিতরে ক্রিকেটাররা নিজ নিজ বাসা থেকে উপস্থিত হতেন বিমানবন্দরে। এখন পাল্টেছে সব কিছু। জরুরি কোনো কাজ না থাকলে ক্রিকেটাররা সবাই একসঙ্গেই বিমানবন্দরে পা রাখেন। রওনা দেন মিরপুর স্টেডিয়াম থেকে। এভাবে দিন দিন টেস্ট ক্রিকেটের সবচেয়ে নতুন দলটি ‘টিম বাংলাদেশ’ হয়ে উঠছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট দল যে এখন পুরোপুরি একটি দল, তার প্রমাণ পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল) অসমাপ্ত রেখেই ঢাকায় ফিরেছেন সাকিব আল হাসান ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। দুই ক্রিকেটার দলের সঙ্গে গতকাল দুপুরে ঢাকা ছাড়েন। কোনো রকম সমস্যা ছাড়াই ক্রিকেটাররা কলম্বো পৌঁছেছেন সন্ধ্যায়। শ্রীলঙ্কা সফরে দুটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও দুটি টি-২০ ম্যাচ খেলবে টাইগাররা। গতকাল ১৬ সদস্যের যে স্কোয়াডটি কলম্বোয় পা রেখেছে, তারা খেলবেন দুটি টেস্ট।

২০১৬ সালে মাত্র দুটি টেস্ট খেলেছিল টাইগাররা। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে মিরপুরে তুলে নিয়েছিল অসাধারণ জয়। ২০১৭ সাল টাইগারদের শুরু হয় নিউজিল্যান্ড সফর দিয়ে। সেখানে দুটি টেস্ট খেলার পর ভারতের মাটিতে প্রথমবারের মতো টেস্ট খেলে টাইগাররা। ভিন্ন ভিন্ন দুই কন্ডিশনের আস্ব্বাদ নিয়ে গতকাল ‘দ্বীপরাষ্ট্র’ শ্রীলঙ্কায় গেছেন মুশফিকরা। ২০১৩ সালে সর্বশেষ দ্বীপরাষ্ট্র সফর করেছিল ক্রিকেটাররা। সেবার গলে তিন সেঞ্চুরিতে টেস্ট ড্র করেছিল বাংলাদেশ। গলেই বাংলাদেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ডবল সেঞ্চুরি করেছিলেন মুশফিক। ১৯০ রানের ইনিংস খেলেছিলেন মোহাম্মদ আশরাফুল এবং ১০০ রান করেছিলেন নাসির হোসেন। মজার বিষয়, আশরাফুল এখন নেই জাতীয় দলে। নাসির সুযোগ করে নিতে পারছেন না। চার বছর আগের ওই আত্মবিশ্বাস এবারও দেখা যাবে, আশাবাদী ক্রিকেটপ্রেমীরা। তবে এবারের সিরিজটি ঐতিহাসিক। সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টটি আবার বাংলাদেশের ১০০ নম্বর টেস্ট। কলম্বো টেস্টটি উদযাপনের জন্য মুখিয়ে আছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। টেস্টটি বিশেষ একটি মাইলফলক এবং নিজেও রোমাঞ্চিত, এটা বলতে ভোলেননি টাইগার অধিনায়ক মুশফিক ঢাকা ছাড়ার আগে, ‘গোটা সিরিজে ভালো করার জন্য মুখিয়ে আছে দল। সিরিজে আমরা ১০০ নম্বর টেস্ট খেলব। সেটা অবশ্যই একটি অসাধারণ মাইলফলক। আমাদের ক্রিকেটপ্রেমী জাতির জন্য অবশ্যই অন্যরকম কিছু। আমিও ব্যক্তিগতভাবে রোমাঞ্চিত টেস্টটি নিয়ে। ’

গতকাল সন্ধ্যায় কলম্বো পৌঁছে ক্রিকেটাররা বরাবরের মতোই উঠেছেন তাজ সমুদ্র হোটেলে। কলম্বো থেকে মরুতোয়া যাবেন ক্রিকেটাররা আজ। সেখানে ২-৩ মার্চ একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবেন মুশফিকরা। এরপর গলে ৭-১১ মার্চ খেলতে নামবে সিরিজের প্রথম টেস্ট। এরপর ১৫-১৯ মার্চ কলম্বোয় খেলবে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট। সেটাই বাংলাদেশের ১০০ তম টেস্ট। এ নিয়ে পঞ্চমবারের মতো পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে শ্রীলঙ্কা গেল বাংলাদেশ। অবশ্য এশিয়া টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলতে একবার কলম্বো গিয়েছিল টাইগাররা। টেস্ট সিরিজ শেষ করার পরই শুরু হয়ে যাবে ওয়ানডে। ২২ মার্চ কলম্বোয় খেলবে প্রস্তুতিমূলক ওয়ানডে। ২৫ ও ২৮ মার্চ ডাম্বুলায় ফ্লাড লাইটের আলোয় খেলবে প্রথম দুটি ওয়ানডে। এরপর ১ এপ্রিল সিংহলিজ স্পোর্টস গ্রাউন্ডে সিরিজের শেষ ওয়ানডে খেলবেন মাশরাফিরা। ওয়ানডে সিরিজের পর ৪ ও ৬ এপ্রিল দুটি টি-২০ ম্যাচ। ৭ এপ্রিল ঢাকায় ফিরবেন ক্রিকেটাররা।

বাংলাদেশ টেস্ট স্কোয়াড : মুশফিকুর রহিম, কামরুল ইসলাম রাব্বি, লিটন কুমার দাস, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মুমিনুল হক, মুস্তাফিজুর রহমান, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, সাকিব আল হাসান, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, তাইজুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, তামিম ইকবাল, রুবেল হোসেন ও শুভাশিষ রায়।

up-arrow