Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৪৩
শুরুটা ভালো হয়নি স্থানীয় গলফারদের
ক্রীড়া প্রতিবেদক
শুরুটা ভালো হয়নি স্থানীয় গলফারদের
মোহাম্মদ সানজু

এশিয়ান ট্যুরের পরেই বাংলাদেশের মাটিতে গলফের সবচেয়ে বড় টুর্নামেন্ট বিটিআই ওপেন। পিজিটিআই (প্রোফেশনাল গলফ ট্যুর অব ইন্ডিয়া) এই টুর্নামেন্ট গতকাল থেকে শুরু হয়েছে কুর্মিটোলা গলফ ক্লাবে।

কিন্তু শুরুটা ভালো করতে পারেননি বাংলাদেশের গলফাররা। প্রথম রাউন্ড শেষে বাংলাদেশের তিন গলফার জামাল হোসেন মোল্লা, দুলাল হোসেন ও রবিন মিয়া যৌথভাবে রয়েছেন নবম স্থানে।

বাংলাদেশ প্রোফেশনাল গলফারস অ্যাসোসিয়েশন (বিপিজিএ) এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত এই টুর্নামেন্টের প্রথম রাউন্ডে লিডারবোর্ডের শীর্ষে রয়েছেন ভারতের গলফার মোহাম্মদ সানজু। ৭২ পারের খেলায় প্রথম রাউন্ডে ৫ শট কম খেলেছেন কলকাতার এই তারকা গলফার। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন ভারতের আরেক গলফার জাবির সিং। পারের চেয়ে ৪ শট কম খেলেছেন তিনি।

যৌথভাবে তৃতীয় স্থানে রয়েছেন ভারতের তারকা গলফার রশিদ খান, কলিন জোশি ও শ্রীলঙ্কান তারকা মিথুন পেরেরা। তারা পারের চেয়ে ৩ শট করে কম খেলেছেন।

পারের চেয়ে ২ শট কম খেলে যৌথভাবে ষষ্ঠ স্থানে রয়েছেন ভারতের তিন গলফার হরেন্দ্র গুপ্ত, নমান ধাওয়ার ও উদায়ন মানি।

লিডারবোর্ডের শীর্ষে থাকা গলফার মোহাম্মদ সানজু আজ মোট ৬টি বার্ডি করেছেন। বগি পেয়েছেন মাত্র একটি। প্রথম দিনের খেলায় আত্মবিশ্বাসী ভারতীয় এই গলফার। তিনি বলেন, ‘প্রথম দিন ভালোই লাগছে। দারুণ একটি দিন পার করলাম। এই গলফ কোর্সটা অনেক সুন্দর। তা ছাড়া আবহাওয়াও দারুণ। তবে গলফে প্রথম দিনের খেলা দেখে কিছু বোঝার উপায় নেই। আরও তিনদিন আছে। ভালো কিছু করতে হলে তিনদিনই ভালো করতে হবে। দেখা যাক, পরের তিনদিন কেমন করতে পারি। ’

দ্বিতীয়বারের মতো কুর্মিটোলায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে বিটিআই ওপেন। গত বছর অনুষ্ঠিত প্রথম আসরে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন দেশসেরা গলফার সিদ্দিকুর রহমান। এবার তিনি অংশ নিচ্ছেন না। তাই জামাল, দুলালরাই ভরসা। তবে প্রথম দিন কোর্সের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারেননি স্থানীয়রা।

গতকাল কোর্সে বাতাস ছিল অনেক বেশি। এছাড়া বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল পাটিং গ্রিনের গতি। যে কারণে স্থানীয় গলফাররা সুবিধা করতে পারেননি। তবে কোনো অজুহাত দেখাতে চান না জামাল হোসেন মোল্লা। তিনি বলেন, ‘আজ (গতকাল) আমি ভালো খেলতে পারিনি। সুইং ও পাটিং ভালো হয়নি। অন্তত ৭টি হোলে আমি মাত্র ৪ গজ দূর থেকেও হোলে বল ফেলতে পারিনি। যে কারণে অনেকগুলো বার্ডি মিস হয়ে গেছে। তারপরেও তো চারটি বার্ডি পেয়েছি। বগি ৩টি না হলে ভালো হতো। এটা আমার জন্য খারাপ হয়ে গেছে। ’

up-arrow