Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : শুক্রবার, ৩ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২ মার্চ, ২০১৭ ২৩:৫৯
প্রতিটি উপজেলায় হবে মিনি স্টেডিয়াম : প্রধানমন্ত্রী
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রতিটি উপজেলায় হবে মিনি স্টেডিয়াম : প্রধানমন্ত্রী
বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ কিশোর ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন কক্সবাজার পেকুয়া উপজেলার টেটং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের খেলোয়াড়দের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা —বাসস

গতকাল বিকালে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, শিশুদের খেলাধুলায় উৎসাহী করতে প্রতিটি উপজেলায় মিনি স্টেডিয়াম হবে। এসব মিনি স্টেডিয়ামে সবধরনের খেলার সুবিধা থাকবে।

তখন আর স্কুল কলেজের মাঠে গিয়ে সবাইকে জড়ো হয়ে অপেক্ষা করতে হবে না। প্রত্যেক উপজেলায় স্টেডিয়াম হলে দেশের ক্রীড়াঙ্গনে আরও নতুন মুখ উঠে আসবে। যারা বাংলাদেশের সুনাম বিশ্বের বুকে আরও উন্নত করবে। খেলাধুলার জন্য বেশি বেশি সুযোগ তৈরি করতে বর্তমান সরকার সব রকম ব্যবস্থা করবে। তিনি আরও বলেন, বর্তমান বিশ্বে জঙ্গিবাদ একটি মহামারী। এটি শুধু বাংলাদেশ নয় গোটাবিশ্বের সমস্যা। খেলাধুলাই পারে দেশের যুবসমাজকে সন্ত্রাস জঙ্গিবাদ ও মাদকের থাবা থেকে বাঁচিয়ে রাখতে। আর তাই বর্তমান সরকার এর প্রতি জোর দিচ্ছে। শেখ হাসিনা বলেন, বর্তমান সরকারের লক্ষ্য দেশকে এগিয়ে নেওয়া। সে পথেই আমরা উন্নত বিশ্বের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। কোনো বাধাই দেশের এ অগ্রগতিকে থামিয়ে রাখতে পারবে না। বাংলাদেশের ছেলে মেয়েরা এখন খেলাধুলায় সমান অবদান রাখছে। এ সময় প্রধানমন্ত্রী যারা খেলাধুলায় অংশ নিয়েছে, তাদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, আমি সবার জন্য দোয়া করি, সবাই ভালো ও সুস্থ থাক। এর আগে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বসে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা দেখেন। বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে খেলার মধ্যাহ্ন বিরতির সময় স্টেডিয়ামে উপস্থিত হন তিনি। প্রধানমন্ত্রী স্টেডিয়ামে পৌঁছালে গ্যালারির দর্শকরা তাকে স্বাগত জানান।

দুই ফাইনাল উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে যেন কিশোর-কিশোরীদের মিলনমেলা বসেছিল। সকালেই বিভিন্ন স্কুলের ছেলে-মেয়েরা গ্যালারিতে আসা শুরু করে। নিজ নিজ দলকে উৎসাহ জুগিয়েছে প্রাণভরে। অনেকে আবার ফাইনাল শেষে স্টেডিয়ামে নেমে সেলফিও তোলে।

up-arrow