Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : শুক্রবার, ৩ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ৩ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০
ওমানকে নিয়েই জিমিদের হিসাব-নিকাশ
ক্রীড়া প্রতিবেদক
ওমানকে নিয়েই জিমিদের হিসাব-নিকাশ

বহু প্রতীক্ষিত ওয়ার্ল্ড হকি লিগের পর্দা উঠছে আগামীকাল। ১৯৮৫ সালে ঢাকায় এশিয়া কাপের মতো বড় আসর হয়েছিল।

এরপর অনেক আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট হলেও বড় মানের ছিল না। ওয়ার্ল্ড হকি লিগই হচ্ছে প্রকৃত পক্ষে বড় টুর্নামেন্ট। এত বড় আসর তারপরও ক্রীড়ামোদীদের মধ্যে উৎসাহ-উদ্দীপনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। সত্যি বলতে কি এ নিয়ে চোখে পড়ার মতো প্রস্তুতি চোখে পড়ছে না। ঢাকা শহরে কিছু জায়গায় রঙিন পোস্টার ছাড়া ওয়ার্ল্ড হকি লিগের তেমন প্রচার নেই। ১ কোটি টাকার বাজেটের টুর্নামেন্ট তারপরও রাজধানীতে সাজ সজ্জা নেই। অথচ এখন বিশ্বকাপের পরই ওয়ার্ল্ড হকি লিগকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়।

যাক সাজ সজ্জার যতই কমতি থাকুক না কেন বাংলাদেশ চাচ্ছে এই টুর্নামেন্টের সাফল্য। ঢাকায় হবে ওয়ার্ল্ড হকি লিগের দ্বিতীয় রাউন্ড। প্রথম বারের মতো তৃতীয় রাউন্ডের উঠতে হলে ঢাকায় বাংলাদেশকে চ্যাম্পিয়ন বা রানার্সআপ হতে হবে। কাজটা কঠিনই বলা যায়। কেননা ‘এ’ গ্রুপে খেলতে হবে মালয়েশিয়া, ওমান ও ফিজির বিপক্ষে। ‘বি’ গ্রুপে খেলবে চীন, ঘানা, শ্রীলঙ্কা ও মিসর। দুর্বল প্রতিপক্ষ বলে ফিজিকে বাংলাদেশ হারাবে এ নিয়ে কোনো সংশয় নেই। কিন্তু অপর দুই প্রতিপক্ষ শক্তিশালী। বিশেষ করে মালয়েশিয়া এখন বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী দল। পাকিস্তান, ভারত ও দক্ষিণ কোরিয়ার মতো শক্তিশালী দলকে তারা পরাজিত করছে।

বাংলাদেশ আগামীকাল গ্রুপের প্রথম ম্যাচেই মালয়েশিয়ার বিপক্ষে লড়বে। শুরুতেই কঠিন পরীক্ষায় মুখোমুখি হবে জিমিরা। জিতে গেলে হকির জন্য হবে বড় প্রাপ্তি। ড্র করলেও লাভবান হবে। শক্তিশালী দলের বিপক্ষে কি করে সেটাই এখন দেখার বিষয়। গ্রুপের শীর্ষ দুই দল সেমিফাইনালে যাবে। ‘এ’ গ্রুপ থেকে মালয়েশিয়া শেষ চারে যাবে তা অনেকটা নিশ্চিতই বলা যায়। সেক্ষেত্রে জিমিদের ফ্যাক্টর হয়ে দাঁড়াবে ওমান। ম্যাচে বাংলাদেশই ফেবারিট। কিন্তু ওমান আবার বাংলাদেশকে পরাজিত করেছে। ভয়টা আসলে এখানেই।

বিদেশে না হলেও ঘরের মাঠে ঘানার বিপক্ষে তিনটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে। প্রথমটিতে ২-০ হার, দ্বিতীয়টিতে ২-২ ড্র ও শেষ ম্যাচে ১-০ গোলে জয় পেয়েছে জিমিরা। কোচ অলিভার কার্টেজ শিষ্যদের অনুশীলনে সন্তুষ্ট। ঘানার বিপক্ষে তিন ম্যাচে ছেলেদের অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করিয়েছি। কিছু ভুল ত্রুটিতো ধরা পড়েছে। আমার বিশ্বাস টুর্নামেন্টে ছেলেরা উজ্জীবিত হয়েই লড়বে।

up-arrow