Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ৬ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ৫ মার্চ, ২০১৭ ২২:৫৩
গল বলেই আত্মবিশ্বাসী মুশফিক
ক্রীড়া প্রতিবেদক
গল বলেই আত্মবিশ্বাসী মুশফিক
গলের উইকেট দেখছেন টাইগার অধিনায়ক মুশফিক

মুশফিকুর রহিমের পেছনে গল ফোর্টটাকে বড্ড ছোট মনে হচ্ছে ছবিতে! ভারত মহাসাগরের তীর ঘেঁষে দাঁড়িয়ে থাকা ৪০০ বছরের পুরনো গল ফোর্ট আগলে রেখেছে স্টেডিয়ামটিকে। স্টেডিয়ামটি বরাবরই পয়মন্ত ভেন্যু শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের।

২৮ টেস্টের ১৬টিতে জয়। পয়মন্ত তো অবশ্যই! পয়মন্ত কিন্তু টাইগার অধিনায়ক মুশফিকেরও। চার বছর আগে এখানেই টাইগার অধিনায়ক খেলেছিলেন ২০০ রানের অতিমানবীয় ইনিংস। তাই এএফপির ছবিতে মুশফিককে বড় দেখানো কিন্তু তাৎপর্যপূর্ণই! ২০১৩ সালে গলে বাংলাদেশ তিন সেঞ্চুরিতে ড্র করেছিল টেস্ট। মুশফিকের ২০০ রানের পাশাপাশি মোহাম্মদ আশরাফুল ১৯০ ও নাসির হোসেন ১০০ রানের ইনিংস খেলেছিলেন। অবিশ্বাস্য ওই পারফরম্যান্সই এবার আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছে টাইগারদের। আত্মবিশ্বাসী মুশফিক তাই এবার জয়ের স্বপ্ন দেখছেন। স্বপ্ন দেখছেন দ্বীপরাষ্ট্রে লাল সবুজ পতাকা ওড়ানোর। মরুতোয়ায় দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে মুশফিকরা এখন গলে। গতকাল গলের উইকেটও দেখেছেন টাইগার অধিনায়ক।   

ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশ যতটা শক্তিশালী প্রতিপক্ষ। ঠিক উল্টো টেস্ট ক্রিকেটে। পরিসংখ্যানও তাই বলে। গলে বাংলাদেশ খেলতে নামবে ৯৯ নম্বর টেস্ট। আগের ৯৮ টেস্টের ৪৫টি খেলেছে দেশের বাইরে। জয় সাকল্যে ৩টি। দুটি ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এবং ২০১৩ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। এই হলো দেশের বাইরে সাফল্য। দেশের মাটিতে জয় ৫টি। ৪টিই ২০১৪ সালের পর। গত তিন বছরে টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের উন্নতির গ্রাফটা ওপরেই উঠছে। ঘরের মাটিতে ড্র করেছে নিউজিল্যান্ড, পাকিস্তান, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। অবশ্য সর্বশেষ দুটি সিরিজ নিউজিল্যান্ড ও ভারতের কাছে হারলেও লড়াই করেছে সমানে সমান। দুটি ভিন্ন কন্ডিশনের সিরিজ এবার আত্মবিশ্বাসী করেছে। কলম্বো পৌঁছার আগে টাইগার অধিনায়ক যে কথা বলেছিলেন, কলম্বো পৌঁছে সে কথারই পুনরাবৃতি করেন মুশফিক, ‘শ্রীলঙ্কাকে হারানোর এটাই সর্বোচ্চ সুযোগ আমাদের। ’ মুশফিক কি ভুল বলেছেন? চার বছর আগে শ্রীলঙ্কান দলে খেলেছেন কুমার সাঙ্গাকারা, মাহেলা জয়বর্ধনাদের মতো ক্রিকেটার। এখন সেই মানের ক্রিকেটার নেই। তাই স্বপ্ন দেখতেই পারেন টাইগার অধিনায়ক, ‘একাধিক তারকা ক্রিকেটারের অনুপস্থিতিই আমাদের আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছে। ’ সাঙ্গাকারা কিংবা মাহেলার মতো তারকা ক্রিকেটার নেই সত্যি। কিন্তু এই শ্রীলঙ্কাই গত বছরের শেষ দিকে ঘরের মাটিতে অস্ট্রেলিয়াকে ৩-০ ব্যবধানে বিধ্বস্ত করেছে টেস্ট সিরিজে। নিয়মিত অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলি ম্যাথিউস নেই। তাই দলকে নেতৃত্ব দিবেন ৩৯ বছর বয়স্ক স্পিনার রঙ্গনা হেরাথ। হেরাথ রয়েছেন দারুণ ফর্মে। তারপরও দলটির কোচ গ্রাহাম ফোর্ড বলেছেন সিরিজে কঠিন লড়াই হবে, ‘আমার মনে হচ্ছে সিরিজটা দারুণ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে। চার বছর আগে দলটির অধিকাংশ ক্রিকেটারই রয়েছেন বাংলাদেশ দলে। সুতরাং অভিজ্ঞতায় তারা পিছিয়ে নেই। ’ গলে ৯৯ নম্বর টেস্ট। কলম্বোতে বাংলাদেশ খেলবে নিজেদের ১০০ নম্বর টেস্ট। ১৫-১৯ মার্চের টেস্টটি গুরুত্ব ও আবেদন একেবারেই আলাদা। শততম টেস্ট উপলক্ষে সুভ্যেনির হিসেবে ক্যাপ করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। ঐতিহাসিক সিরিজ বলেই বাংলাদেশ চাচ্ছে স্বপ্নের খেলা খেলতে। এখন শুধু অপেক্ষা। টেস্ট সিরিজের পর তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ খেলবে টাইগাররা। এরপর দুটি টি-২০ ম্যাচ।      

up-arrow