Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ১১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১০ মার্চ, ২০১৭ ২৩:৩৭
‘এখনো টেস্ট খেলার স্বপ্ন দেখি’
ক্রীড়া প্রতিবেদক
‘এখনো টেস্ট খেলার স্বপ্ন দেখি’
তুষার ইমরান

তুষার ইমরানের বয়স ৩৩। এই বয়সে এখন অনেক ক্রিকেটারই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন।

অথচ ফর্মে থেকেও তুষার খেলছেন ঘরোয়া ক্রিকেটে। সেখানে রানের ফোয়ারা ছোটাচ্ছেন। শেষ হওয়া বিসিএলে দক্ষিণাঞ্চলের পক্ষে দুটি ডাবল সেঞ্চুরি (২১৭ ও ২২০) করেছেন। এ ছাড়া প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে খুলনার পক্ষে সেঞ্চুরি করেছেন তিনটি (১৩৮, ১৪১ ও ১০৮)। এই মৌসুমে রান করেছেন ১০৪৯। রেকর্ড ভেঙেছেন লিটন দাসের। তুষার রয়েছেন ফর্মের তুঙ্গে। দেশের বর্ষীয়ান ক্রিকেটারদের একজন। কিন্তু ফিটনেস ধরে রেখে রান করে স্বপ্ন দেখছেন টেস্ট খেলার। যদিও ৫ টেস্টে রান মাত্র ৮৯ এবং ৪১ ওয়ানডেতে রান ৫৭৪। অথচ প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ১৪৬ ম্যাচে রান করেছেন ৯ হাজার ৪৮৩। সেঞ্চুরি ২৩টি।

 

অসাধারণ একটা মৌসুম কাটিয়েছেন। রান করেছেন। সেঞ্চুরি, ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন। এই সাফল্যের মূল মন্ত্রটা কী?

তুষার ইমরান : বিসিএলে দক্ষিণাঞ্চল এবং প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে খুলনার পক্ষে খেলি। আমার দলে সৌম্য সরকার, এনামুল হক বিজয়, সাকিব আল হাসানদের মতো তারকা ক্রিকেটার খেলেন। তাদের সঙ্গে মানিয়ে নিতে আমাকে পারফরম করতেই হবে— এটা আমি ভালো করে জানি। এই ভালো করার তাগিদই আমাকে রান করতে উৎসাহ জোগায়।

 

ভালো করার তাগিদ অবশ্যই আপনাকে সাফল্য এনে দিচ্ছে। কিন্তু ফিটনেস একটি বড় বিষয়। সেটা আপনি কীভাবে ধরে রেখেছেন?

তুষার ইমরান : খেলতে হলে আপনাকে ফিটনেস ধরে রাখতেই হবে। যেহেতু আমি খেলছি এখনো, তাই খেলার মতোই ফিটনেস আমি ধরে রাখার চেষ্টা করছি। তবে এটা মনে রাখতে হবে ২২-২৪ বছরের তরুণের মতো আমার ফিটনেস হবে না। আমি ততটুকুই ফিট, যতটা দরকার খেলার জন্য। আমি মনে করি মাঠে খেলার মতো মানসিকভাবে ফিট থাকাই মূল বিষয়। আপনার ফিটনেস অনেক। কিন্তু মাঠে পারফরম্যান্স করতে পারছেন না, সেটা কোনো লাভ নেই।

 

হাজারের (১০৪৯) ওপর রান করেছেন। দুটি ডাবল সেঞ্চুরিসহ পাঁচটি সেঞ্চুরি। ঘরোয়া ক্রিকেটে এক মৌসুমে সবচেয়ে বেশি রান করার রেকর্ড এখন আপনার। জাতীয় দলে ফেরার কি স্বপ্ন দেখেন?

তুষার ইমরান : বিসিবি সভাপতি পাপন (নাজমুল হাসান পাপন) ভাই বলেছেন তিন ফরম্যাটে আলাদা আলাদা দল হবে। যেহেতু রান করছি, তাই জাতীয় দলে ফেরার স্বপ্ন দেখতেই পারি। আমার বিশ্বাস নির্বাচকরাও বিষয়টি ভেবে দেখবেন। সত্যি বলতে, ক্যারিয়ারে একটু আগেই আমি টেস্ট খেলে ফেলেছিলাম। ফলে টেস্ট ক্রিকেটের অনেক কিছুর সঙ্গেই মানিয়ে নিতে পারিনি। দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেট খেলে এখন বুঝতে পারি, টেস্ট ক্রিকেটে সাফল্য পেতে কী করা উচিত।

 

তাহলে আপনি টেস্ট দলে ফেরার স্বপ্ন দেখেন?

তুষার ইমরান : হ্যাঁ। এখনো টেস্ট দলে ফেরার স্বপ্ন দেখি।

 

বাংলাদেশের ক্রিকেট দলটা এখন তারুণ্যনির্ভর। দলটির ভবিষ্যৎ কেমন দেখছেন?

তুষার ইমরান : সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবালদের মতো বিশ্বমানের ক্রিকেটার রয়েছেন। মাহমুদুল্লাহ রিয়াদও ভালো। এরা সবাই ৮-১০ বছর ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন। কিন্তু নতুন যারা আছেন, তাদের ৬-৭ বছর পর কঠিন পরীক্ষায় খেলতে হবে টেস্ট ক্রিকেটে সাফল্য পেতে। কারণ তারা দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেটটা কম খেলেন। অবশ্য ওয়ানডে কিংবা টি-২০ ক্রিকেটে কোনো সমস্যা হবে না বলেই আমার বিশ্বাস।

 

একটু ভিন্ন প্রসঙ্গে আসি। দুই মৌসুম পর ফের ক্রিকেটাররা প্রিমিয়ার ক্রিকেটে স্বাধীনভাবে দলবদল করতে পারছেন। কেমন লাগছে?

তুষার ইমরান : অবশ্যই ভালো লাগছে। ক্রিকেটাররা নিজেদের পছন্দের দল বাছাই করে নিতে পারবেন। এতে ক্রিকেটাররা যেমন লাভবান হবেন আর্থিকভাবে, আমি মনে করি ক্লাবগুলোও লাভবান হবে। কারণ তারা নিজ নিজ পছন্দের ক্রিকেটার নিয়ে দল গোছাতে পারবেন। লিগও জমবে এবং ম্যাচগুলোতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে।

up-arrow