Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : বুধবার, ১৫ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৪ মার্চ, ২০১৭ ২২:৫২
শততম টেস্টের রোমাঞ্চ
মেজবাহ্-উল-হক
শততম টেস্টের রোমাঞ্চ
ব্যাটিং অনুশীলনে তামিম ইকবাল

সৌভাগ্যই বটে স্যার গ্যারি সোবার্স (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), মুস্তাক মুহাম্মদ (পাকিস্তান) ও সিড গ্রেগরির (অস্ট্রেলিয়া)। তারা শততম টেস্টে নেতৃত্ব দিয়ে দলকে জয় এনে দিয়েছিলেন।

শততম টেস্টে অংশ নেওয়া টেস্ট খেলুড়ে বাকি ছয় দলের কোনো অধিনায়কই জয়ের দেখা পাননি। তবে নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক বেভান কংডন ১৯৭২ সালে নিজে সেঞ্চুরি করে শততম টেস্টটি ড্র করতে পেরেছিলেন। এবার টেস্ট খেলুড়ে সবশেষ দেশ হিসেবে বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকের সামনে এসেছে সেই সুযোগ। টাইগার দলপতি সোবার্স, মুস্তাক ও গ্রেগরির দলে নাম লেখাতে পারেন কিনা সেটাই দেখার বিষয়।

লঙ্কা সফরে আগের ম্যাচে হেরে শততম টেস্টের আগে মানসিকভাবে একটা প্রচণ্ড ধাক্কা খেয়েছে বাংলাদেশ। তার পরও আজ শুরু হওয়া ঐতিহাসিক কলম্বো টেস্টে সম্ভাবনা দেখছেন বাংলাদেশের বোলিং কোচ কিংবদন্তি কোর্টনি ওয়ালশ, ‘এই টেস্টে আমাদের ইতিবাচক একটা ফল প্রয়োজন। এই ম্যাচটি সবাইকে চাঙ্গা করতে পারে। ছেলেদের ভিতর থেকে পারফরম্যান্স বের করে আনতে সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারে শততম টেস্টের রোমাঞ্চ। আমি আশা করি শততম টেস্ট ম্যাচে সবাই অসাধারণ পারফর্ম করে জয়ের চেষ্টা করবে। ’

ওয়ালশের শিষ্যরা পেসার গল টেস্টে তেমন একটা সুবিধা করতে পারেননি। তার পরও তাসকিন-মুস্তাফিজ-শুভাশিসের পারফরম্যান্সে মোটেও হতাশ নন উইন্ডিজ লিজেন্ড, ‘আমার মনে হয় ধীরে ধীরে দলের বোলিং উন্নতি করছে এবং অভিজ্ঞ দল হয়ে উঠছে। তরুণদের কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে তাদের ঘাটতি পূরণ করতে হবে। আমার বিশ্বাস তারা অভিজ্ঞতা অর্জনের মাধ্যমে আরও ধারালো হয়ে উঠতে পারবে। ’

ওয়ালশ বলেন, ‘পেসারদের ভালো করতে হলে আরও ধৈর্য ও বলের নিয়ন্ত্রণে জোর দিতে হবে। তারা বুঝতে পেরেছে টেস্টে ভালো করতে হলে আরও ধারাবাহিক হওয়া প্রয়োজন। আমি আশা করছি তারা গল টেস্টের চেয়ে এখানে (কলম্বো) আরও ভালো করতে পারবে। ’ বাংলাদেশ দলকে নিয়েই আশাবাদী ওয়ালশ।

এই শ্রীলঙ্কা অভিজ্ঞতায় তরুণ হলেও খুনে মেজাজের এক দল। শক্তিশালী দলকেও তারা ছিটকে ফেলে দিতে বেশি সময় নেয় না। মাস কয়েক আগে ঘরের মাঠেই তারা ফর্মের তুঙ্গে থাকা অস্ট্রেলিয়াকে ৩-০-এ হারিয়েছে। অথচ অস্ট্রেলিয়ানরা কতরকম পরিকল্পনা করেই না লঙ্কা দ্বীপে পা রেখেছিলেন! তারা বোলিং উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ দিয়েছিলেন খোদ লঙ্কান কিংবদন্তি মুত্তিয়া মুরালিধরনকে। তার পরও লাভ হয়নি। লঙ্কানরা বেরসিকও বটে! টেস্ট অভিষেকের দীর্ঘ দুই যুগ পর ২০১৬ সালের নভেম্বরে শততম টেস্ট খেলতে মাঠে নেমেছিল জিম্বাবুয়ে। নানা প্রতিকূলতার মধ্যে স্রোতের বিপরীতে চলতে থাকা ভাঙাচোরা দলটির সমর্থকরা ১০০তম টেস্টকে ঘিরে স্বপ্নকাতুর হয়ে উঠেছিলেন। কিন্তু ঘরের মাঠ হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে ২২৫ রানে জিম্বাবুয়েকে উড়িয়ে দেয় শ্রীলঙ্কা।

আজ শুরু হওয়া কলম্বো টেস্টে বাংলাদেশের পার্টি পণ্ড করার জন্য তারা সবরকম প্রস্তুতি নিয়েছে। কিন্তু গল টেস্টে হারার পর টাইগাররাও সাবধান হয়েছেন। তা ছাড়া বাংলাদেশর প্রধান কোচ ও ব্যাটিং পরামর্শক লঙ্কান চন্ডিকা হাতুরাসিংহে ও সামারাবিরা তো আছেনই। তারা লঙ্কানদের দুর্বলতা খুঁজে বের করে সে অনুযায়ী নিশ্চয়ই পরিকল্পনা করবেন! সবকিছু মিলেই কলম্বো টেস্ট নিয়ে স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশ।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow