Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১২ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ অক্টোবর, ২০১৭ ২৩:৩১
জয় আর্জেন্টিনার উৎসব বাংলাদেশের
ক্রীড়া প্রতিবেদক
জয় আর্জেন্টিনার উৎসব বাংলাদেশের

বিশ্বকাপ ফুটবলে বাংলাদেশ কবে খেলবে এর কোনো নিশ্চয়তা নেই। এই স্বপ্ন কখনো পূরণ হবে কিনা সন্দেহ রয়েছে।

বাংলাদেশ না খেলুক তবু প্রতিবারই বিশ্বকাপকে ঘিরে উম্মাদনা সৃষ্টি হয়। আর তা হয় আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলকে নিয়েই। এক সময়ে পেলের নৈপুণ্যের কারণে এদেশের ক্রীড়ামোদীরা শুধু ব্রাজিলকে নিয়েই নাচতো। ১৯৮৬ সালে ম্যারাডোনার নেতৃত্বে আর্জেন্টিনা চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পরই দৃশ্য পাল্টে যায়। ম্যারাডোনার কারণেই বিশ্বকাপ এলেই বাংলাদেশ যেন আর্জেন্টিনা হয়ে যায়। ১৯৯৪ সালের পর ম্যারাডোনা বিশ্বকাপে নেই। তবু বাংলাদেশ আর্জেন্টিনা বলতে পাগল।

বিশ্বকাপ এলেই বাংলাদেশ যেন দুই শিবিরে ভাগ হয়ে যায়। একদিকে আর্জেন্টিনা আরেকদিকে ব্রাজিল।

গোটা দেশে দুই দেশের পতাকা পতপত করে উড়তে থাকে। জার্সি বিক্রিও ধুম পড়ে যায়। আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল আউট মানেই বাংলাদেশের বিশ্বকাপ শেষ। আর কোনো উত্তেজনা থাকে না। ম্যারাডোনা নেই তাতে কি মেসি তো আছে। বাংলাদেশে মেসির কোটি কোটি ভক্ত। ব্রাজিলের নেইমারেরও জনপ্রিয়তা কম নয়। আর্জেন্টিনা বা ব্রাজিল না খেললে সেই বিশ্বকাপ কি জমে।

রাশিয়া বিশ্বকাপে ব্রাজিলের খেলা অনেক আগেই নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু আর্জেন্টিনা ছিল অন্ধকারে। যে অবস্থা তাতে মনে হচ্ছিল আর্জেন্টিনা ছাড়াই বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে। বাংলাদেশের ভক্তরা তা মানে কীভাবে? রাগে ও  অভিমানে অনেকে বলতে শুরু করেছিল আর্জেন্টিনা যেখানে নেই সেখানে বিশ্বকাপ দেখব না। শেষ পর্যন্ত হতাশা কেটে গেছে আর্জেন্টিনা ভক্তদের। মেসির হ্যাটট্রিকে ইকুয়েডরকে হারিয়ে সরাসরি বিশ্বকাপে জায়গা করে নিয়েছে আর্জেন্টিনা। আর্জেন্টিনায় কি হয়েছে জানি না। কাল যেন বাংলাদেশ আনন্দে ভেসে গেছে। আর্জেন্টিনার জয়ে দেশব্যাপী যে উৎসব হয়েছে তাতে মনে হয়েছে বাংলাদেশই যেন বিশ্বকাপে সুযোগ পেয়ে গেছে। ঢাকা শহরে অনেক জায়গায় মিষ্টিও বিতরণ করা হয়েছে। বিশ্বকাপে নেইমার ও মেসিদের দেশ আছে। দুশ্চিন্তা দূর হয়ে গেছে বাংলাদেশের। এখন শুধু মাঠে নামার অপেক্ষা।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow