Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : রবিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:০৫
বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল
সহজ গ্রুপে বাংলাদেশ
ক্রীড়া প্রতিবেদক
সহজ গ্রুপে বাংলাদেশ
শেষ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল মাঠে গড়াচ্ছে। আগামী মাসে শুরু হবে আন্তর্জাতিক এই আসর। গতকাল স্থানীয় এক হোটেলে টুর্নামেন্টের গ্রুপিংও নির্ধারণ হয় —বাংলাদেশ প্রতিদিন
bd-pratidin

ফুটবল দল প্রস্তুতি নিচ্ছে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের। ১৫ বছরের বন্ধ্যত্ম ঘুঁচিয়ে দক্ষিণ এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনের জন্য মুখিয়ে আছে বাংলাদেশ। নতুন কোচ জেমি ডে-এর কোচিংয়ে দ্বিতীয়বারের মতো সাফ চ্যাম্পিয়ন হতে শেষ বেলার প্রস্তুতি সেরে নিচ্ছেন জামাল, সুফিল, আশরাফুল রানারা। ৪ সেপ্টেম্বর শুরু দক্ষিণ এশিয়ার ‘বিশ্বকাপ’ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ। তখনই বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপের পঞ্চম আসরে গ্রুপ নির্ধারণ করলো বাফুফে। বাংলাদেশ এবার অপেক্ষাকৃত সহজ গ্রুপে পড়েছে বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপে। ছয় দলের এই টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের গ্রুপে রয়েছে ফিলিপাইন ও লাওস। যদিও র‌্যাঙ্কিংয়ে দেশ দুটি বেশ এগিয়ে। ফিলিপাইন ১১৫ ও লাওস ১৭৮ এবং বাংলাদেশ ১৯৪। ‘এ’ গ্রুপে ফিলিস্তিন, র‌্যাঙ্কিং ৯৯, নেপাল ১৬১ ও তাজিকিস্তান ১৬১। র‌্যাঙ্কিংয়ের বিচারে সবার পেছনের দল বাংলাদেশ এবং সবার চেয়ে এগিয়ে ফিলিস্তিন। টুর্নামেন্ট শুরু হবে ১ অক্টোবর। তৃতীয় আসরের মতো এবারও বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের পাশাপাশি সিলেট স্টেডিয়ামে লিগ পর্বের খেলাগুলো হবে। সেমিফাইনাল দুটি ও ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে। বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপের প্রথম আসর বসেছিল ২২ বছর আগে ১৯৯৬ সালে। ছয় জাতির ওই আসরের পরের তিন বছর বসেছিলেন ফুটবলাররা। ১৯৯৯ সালে দ্বিতীয় আসরটি ছিল সবচেয়ে জমকালো। এশিয়া, ইউরোপ, আফ্রিকা ও ল্যাটিন আমেরিকার ১২টি দল নিয়ে বসেছিল আসর। দ্বিতীয় আসরের পর টুর্নামেন্ট বন্ধ ছিল ১৫ বছর। অবশেষে ২০১৫ সালে তৃতীয় আসরের আয়োজন করে বাফুফে। এবার অংশ নেয় ছয় দল এবং ২০১৬ সালের চার নম্বর আসরে খেলে আটটি দেশ। প্রথম আসরে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল মালয়েশিয়া অনূর্ধ্ব-২৩। ফাইনালে মালয়েশিয়া ২-১ গোলে হারিয়েছিল পিএসএম মাসকারকে। ১৯৯৯ সালের জমজমাট আসরে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল জাপান লিগ একাদশ। দলটি সাজানো হয়েছিল দেশটির তৃতীয় টায়ারের দলগুলোর সেরা ফুটবলারদের নিয়ে। ফাইনালে প্রতিপক্ষ ঘানা অলিম্পিক দলকে হারিয়েছিল ৩-২ গোলে। ২০১৫ সালের তৃতীয় আসরে দলের সংখ্যা কমে ছয়ে দাঁড়ায়। তৃতীয় আসরের শিরোপা জিতে নেয় মালয়েশিয়া অনূর্ধ্ব-২৩ বা অলিম্পিক দল। টানটান উত্তেজনার ফাইনালে দলটি ৩-২ গোলে হারিয়েছিল বাংলাদেশকে। প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ফাইনালের নির্ধারিত সময় ড্র ছিল ২-২ গোলে। এরপর অতিরিক্ত সময়ে গোল করে চ্যাম্পিয়ন হয় মালয়েশিয়া অলিম্পিক দল। গত আসরে চ্যাম্পিয়ন বাহরাইন অলিম্পিক দল। ফাইনালে বাহরাইন অনূর্ধ্ব-২৩ ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত করে নেপালকে। এবার পঞ্চম আসরে নেপাল খেলবে। প্রথমবারের মতো অংশ নিচ্ছে তাজিকিস্তান, ফিলিপাইন, লাওস ও ফিলিস্তিন। এশিয়ার ছয়টি অঞ্চলের ছয়টি দেশ নিয়ে টুর্নামেন্ট আয়োজন করার ব্যাখ্যায় বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন বলেন, ‘এশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলের দল নিয়ে আমরা টুর্নামেন্টটির আয়োজন করছি। কারণ সবাই যেন নানা জায়গা খেলা দেখতে পারেন। অন্যান্য দেশ যখন কোনো টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে রাজি হয় না, তখন আমরা সাহস করে বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপের আয়োজন করছি।’ বিটিভি সবগুলো দেখাবে টুর্নামেন্টের।

‘এ’ গ্রুপ : ফিলিস্তিন, নেপাল, তাজিকিস্তান

‘বি’ গ্রুপ : বাংলাদেশ, ফিলিপাইন, লাওস

এই পাতার আরো খবর
up-arrow