Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২২:৪০
জিততে হলে খেলতে হবে নির্ভুল
ক্রীড়া প্রতিবেদক
জিততে হলে খেলতে হবে নির্ভুল
জাহিদ হাসান এমিলি
bd-pratidin

এশিয়ান গেমসে নেপালকে পরাজিত করে পাকিস্তান জানিয়ে দেয় সাফে তারা শক্তিশালী হয়েই আসছে। প্রথম ম্যাচে নেপালকে পুনরায় হারিয়ে তার প্রমাণও দিয়েছে। সুতরাং সেই পাকিস্তানকে গুরুত্ব দিতেই হবে জামাল ভূঁইয়াদের। এটা ঠিক ক্রিকেট ও হকির মতো পাকিস্তান বিশ্বে প্রভাব বিস্তার করতে পারেনি। তবু ফুটবলে দেশটিকে খাটো করে দেখার উপায় নেই। বিশেষ করে বাংলাদেশের যোগ্য প্রতিপক্ষই বলা যায়। ১৭টি ম্যাচে পাকিস্তান ৫ বাংলাদেশ ৭টিতে জয় পেয়েছে। ২০১৩ সালে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশ ২-১ গোলে হেরে যায় তাদের কাছে। বাংলাদেশ শেষ জয় পেয়েছিল ২০১২ সালে। সেবার বিশ্বকাপ প্রাক-বাছাই পর্বে ঢাকায় ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত করে পাকিস্তানকে। সেই ম্যাচে অসাধারণ পারফরম্যান্স প্রদর্শন করেন অধিনায়ক জাহিদ হাসান এমিলি। ১টি গোলও করেন। বাকি দুটি করেন রেজাউল ও জাহিদ হোসেন। ছয় বছর পর ঢাকার মাঠে বাংলাদেশ জয় পাবে কি? এনিয়ে কথা হচ্ছিল দেশ কাঁপানো স্ট্রাইকার এমিলির সঙ্গে। তার কথা ঘরের মাঠে অবশ্যই ম্যাচে বাংলাদেশ ফেবারিট। তবে পাকিস্তানকে হারাতে হলে গুছিয়ে খেলতে হবে। কোনোভাবেই ভুল করা যাবে না। শুরুতে ভুটানের বিপক্ষে জয় পাওয়াতে আমি খুশি। কিন্তু খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সে আমি সন্তুষ্ট নই। অনেক ভুল হয়েছে, যে কারণে ভুটান গোল করার সুযোগ পেয়েছে। সেই মানের খেলোয়াড় না থাকায় বল জালে পাঠাতে পারেনি তারা। এমিলি বলেন, বাংলাদেশের টার্গেট শিরোপা, আমিও চাই দেশ ট্রফি জিতুক। তাহলে ফুটবলে প্রাণ ফিরে আসবে। কিন্তু ভুটানের বিপক্ষে যে জড়তা দেখেছি তা সংশোধন না করলে শিরোপা জেতা খুবই কঠিন হবে। বিশেষ করে পাকিস্তানকে বেশ শক্তিশালীই মনে হচ্ছে। বেশ কজন মানসম্পন্ন খেলোয়াড় রয়েছে। শারীরিক গঠনেও তারা এগিয়ে। গতিময় ফুটবল খেলে। সুতরাং যতই ফেবারিট বলি না কেন সবাইকে সেরাটা দিতেই হবে। ভুল করেও ভুটানের বিপক্ষে পাড় পেয়ে গেছি। মনে রাখতে হবে প্রতিপক্ষটা এবার পাকিস্তান। এখানে ভুল করা মানেই ম্যাচ হাত ছাড়া হয়ে যাওয়া। সেমিফাইনাল নিশ্চিত করতে হলে বাংলাদেশকে জিততেই হবে। তা না হলে বিপদে পড়ে যাবে। কেননা নেপালও দল হিসেবে শক্তিশালী। পাকিস্তানের বিপক্ষে তারা ভালো খেলেও হেরেছে। ভুটানকে যদি হারাতে পারে আর বাংলাদেশ আজ হেরে গেলে নেপাল মরণ কামড় দিয়ে মাঠে নামবে। সুতরাং ভুল শুধরিয়ে মাঠে নামতে হবে। এমিলি বলেন, তরুণরা অবশ্যই ভালো খেলছে। ভুটানের বিপক্ষে সুফিল, জনি, বিপলুরা খুবই ভালো খেলেছে। তারপরও পাকিস্তানের বিপক্ষে হাইভোল্টেজ ম্যাচে অভিজ্ঞ ও সিনিয়র খেলোয়াড়দের দরকার রয়েছে। বিশেষ করে বাদশার জায়গায় নাসিরকে নামানো যেতে পারে। ইমন বাবুকে সেরা একাদশে রাখলে ভালো হয়। যাক সবই সিদ্ধান্ত কোচেরই। তবে শেষ কথাটা বলবো জিততে হলে নির্ভুল খেলাটা খেলতে হবে। মনে রাখতে হবে শুরুতেই সব ম্যাচে গোল পাওয়া সম্ভব নয়।

 

 

এই পাতার আরো খবর
up-arrow