Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:০২
কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিচ্ছেন মাহমুদুল্লাহরা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিচ্ছেন মাহমুদুল্লাহরা

বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের স্মৃতিতে ম্যাচটি এখনো জ্বলজ্বল। মার্চে নিদাহাস ট্রফির ফাইনালে খেলতে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জিততেই হতো বাংলাদেশকে। ম্যাচ জিতে প্রথমবারের মতো দেশের বাইরে কোনো টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলেছিল টাইগাররা। হৃদস্পন্দন বন্ধ করে দেওয়া ম্যাচটি বাংলাদেশ জিতেছিল মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের অবিশ্বাস্য ছক্কায়। ইনিংসের শেষ ইনিংসের পঞ্চম বলে ইসুরু উদানার বলে ফ্লিকে ডিপ স্কয়ার লেগ দিয়ে সীমানার উপরে ফেলেন মাহমুদুল্লাহ। ওই ছক্কায় ম্যাচ জিতে ফাইনাল নিশ্চিত করে বাংলাদেশ। যদিও ম্যাচটি ছিল টি-২০ ফরম্যাটের। এশিয়া কাপের ম্যাচগুলো সব ৫০ ওভারের। তারপরও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১৫ সেপ্টেম্বর মাঠে নামার আগে নিদাহাস ট্রফির দুটি ম্যাচের সুখস্মৃতিকে আত্মবিশ্বাসের রসদ হিসেবে কাজে লাগাতে চাইছে টাইগাররা। দুবাই আইসিসি ক্রিকেট একাডেমিতে অনুশীলন করার ফাঁকে দলের অন্যতম ভরসা মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ জানিয়েছেন, দুবাইয়ের কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে জোর অনুশীলন করছে দল এবং এশিয়া কাপে প্রথম ম্যাচে দ্বীপরাষ্ট্রের মুখোমুখি হওয়ার আগে মার্চের জয় দুটিকে প্রেরণা হিসেবে মানছেন। 

১৯৮৬ থেকে নিয়মিত এশিয়া কাপ খেলছে বাংলাদেশ। ২০১২ ও ২০১৬ সালে ফাইনাল খেললেও শিরোপা জিততে পারেনি। সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে রানার্স আপে। মরু রাজ্যে এর আগে ১৯৯০ সালে অস্ট্রেলেশিয়া কাপ ও ১৯৯৫ সালে খেলেছিল পেপসি এশিয়া কাপ। নিয়মিত খেললেও এবারই প্রথম এশিয়া কাপের শিরোপার অন্যতম দাবিদার হিসেবে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ। স্বপ্ন পূরণের মিশন শুরু হবে শ্রীলঙ্কা ম্যাচ দিয়ে। নিদাহাস ট্রফিতে স্বাগতিকদের বিপক্ষে দুটি ম্যাচ জিতলেও জানুয়ারিতে হেরেছিল ওয়ানডে সিরিজ। যদিও সিরিজের প্রথমটি জিতেছিল। আত্মবিশ্বাসী হলেও ১৫ সেপ্টেম্বরের প্রথম ম্যাচটি সহজ হবে না মনে করছেন মাহমুদুল্লাহ, ‘মাস কয়েক আগে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভালো কিছু স্মৃতি আছে আমাদের। এটা মনে রাখতে হবে, শ্রীলঙ্কা শক্তিশালী দল। তাদের বেশ কয়েকজন ভালো ক্রিকেটার রয়েছেন। আমি মনে করি ওদের হারাতে আমাদের সেরাটা খেলতে হবে। আমাদের প্রস্তুতি ভালো হয়েছে। তাই ওদের হারানোর বিশ্বাস রয়েছে আমাদের।’

দুবাইয়ে এই মুহূর্তে ভীষণ গরম। ঢাকায় যেখানে ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সেখানে দুবাইয়ে ৩৬ ডিগ্রি। গরমের সঙ্গে মানিয়ে নিতে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল একটু আগেই পা রেখেছে মরু শহরে। গরমের সঙ্গে মানিয়ে নিতে কঠোর পরিশ্রম করছেন মাহমুদুল্লাহরা, ‘এই মুহূর্তে দুবাইয়ে বেশ গরম। তবে পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে কন্ডিশনের সঙ্গে আমাদের মানিয়ে নিতে হবে।’ দীর্ঘ ২৩ বছর পর আরব আমিরাতে ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। তাই প্রবাসী বাংলাদেশিরা দারুণ উত্ফুল্ল। স্থানীয় সমর্থন দলকে উদীপ্ত করবে বলেন দেশের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান, ‘আশা করি দর্শকের সমর্থন পাব। এখানে অনেক বাংলাদেশি থাকেন। তারা মাঠে এসে আমাদের সমর্থন দিবেন বলেই বিশ্বাস।’

দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলতে হলে শ্রীলঙ্কাকে হারালে এগিয়ে যাবে অনেকটা। তবে ২০ সেপ্টেম্বর আফগানিস্তান ম্যাচও থাকবে সহায়ক হিসেবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow