Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:১৯
ফুটবলের নতুন রাজা মডরিচ
ক্রীড়া ডেস্ক
ফুটবলের নতুন রাজা মডরিচ
ফিফা বর্ষসেরা পুরস্কার হাতে মডরিচ (বাঁয়ে) সঙ্গে সেরা কোচ দেশম ও সেরা মহিলা ফুটবলার মার্তা —এএফপি

রাশিয়া বিশ্বকাপে তার ছন্দময় ফুটবলই ছিল ছোট্ট দেশ ক্রোয়েশিয়ার ফাইনালে খেলার অন্যতম অবলম্বন। গত মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদের উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের  পেছনের কারিগরও তিনিই। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো কেবল সামনে থেকে গোল করেছেন। কিন্তু পেছন থেকে লুকা মডরিচই তো সেই গোলের জন্য বল জোগান দিয়েছেন। এসব কারণে ফিফা দি বেস্টের (ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলার) তালিকায় তিনিই ছিলেন ওপরের দিকে। সংক্ষিপ্ত তিন জনের তালিকায় ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ও মোহাম্মদ সালাহের নাম যেন কেবল নিয়ম রক্ষার জন্যই। রোনালদো বিষয়টা বুঝতে পেরে গত সোমবার লন্ডনের অনুষ্ঠানে পা রাখেননি। সালাহ অবশ্য এসেছিলেন। তবে অন্য কারণে। পুসকাস ট্রফি নিতে (বর্ষসেরা গোলের পুরস্কার)। আড়ালে-আবডালে সবারই যেন জানা হয়ে গিয়েছিল, ফিফা দি বেস্টের পুরস্কারটা জিতে নিচ্ছেন লুকা মডরিচই। সোমবার গভীর রাতে দীর্ঘ সাড়ে চার ঘণ্টার অনুষ্ঠানে লুকা মডরিচের হাতেই তুলে দেওয়া হয় দি বেস্টের ট্রফি। ইউরোপের সেরা ফুটবলার আগেই হয়েছিলেন তিনি। ফিফার কাছ থেকেও বর্ষসেরার স্বীকৃতি আদায় করে নিলেন। এবার বাকি কেবল ব্যালন ডি’অর। গত ১০ বছর ধরে বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসি এবং পর্তুগিজ তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো সিংহাসন দখল করে রেখেছিলেন। বর্ষসেরা হোক কিংবা ব্যালন ডি’অর, সবকিছুতেই এই দুজনের শ্রেষ্ঠত্ব ছিল। গত ১০টি ট্রফির পাঁচটি করে ভাগাভাগি করে নিয়েছেন দুজন। অন্য কারও কোনো প্রবেশাধিকার যেন ছিল না এই রাজত্বে। এতদিনের প্রতিষ্ঠিত বিষয়টাকেও উপড়ে ফেললেন লুকা মডরিচ। পুরনো দুই রাজাকে সিংহাসনচ্যুত করলেন তিনি। বিশ্বকাপে ক্রোয়েশিয়াকে ফাইনালে নিয়ে যাওয়ার পেছনে বিরাট ভূমিকা ছিল মডরিচের। এই কারণে বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড়ও হয়েছিলেন তিনি। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছেন রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে। সবমিলিয়ে তার চেয়ে যোগ্য কাউকে পায়নি ফিফা। অন্যদিকে মেসি ও রোনালদো ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে অনেক ভালো করলেও দলকে সহায়তা করার ক্ষেত্রে মডরিচের কাছাকাছিও ছিলেন না। দুই তারকাই বিশ্বকাপে ছিলেন ব্যর্থ। অবশ্য লুকা মডরিচ ট্রফিটা হাতে নিয়েই বললেন, ‘এই ট্রফিটা হাতে নিয়ে খুবই ভালো লাগছে। তবে আমি আপনাদেরকে বলতে পারি, এটা কেবল আমার নয়। রিয়াল মাদ্রিদ এবং ক্রোয়েশিয়া দলে আমার সব সতীর্থের এতে সমান ভাগ রয়েছে।’

এদিকে ফিফা দি বেস্ট গালায় বর্ষসেরা কোচের পুরস্কার জিতেছেন বিশ্বকাপজয়ী দিদিয়ের দেশম। তরুণ একটা দল নিয়ে ফ্রান্সকে বিশ্বকাপ উপহার দিয়েছেন তিনি। স্থান করে নিয়েছেন বেকেনবাওয়ারের পাশে। অধিনায়ক ও কোচ হিসেবে বিশ্বকাপ জিতেছেন দুজনেই। বিশ্বকাপজয়ী কোচের কাছে ম্লান হয়ে গেল জিনেদিন জিদানের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়। এছাড়াও বর্ষসেরা মহিলা ফুটবলারের পুরস্কার জিতেছেন ব্রাজিলের মার্তা। চেলসি এবং বেলজিয়ামে দারুণ একটা বছর কাটিয়েছেন থিবোট কর্টয়েস। বর্ষসেরা গোলরক্ষকের পুরস্কার জিতে তারই স্বীকৃতি পেলেন তিনি। বিশ্বকাপে তার দুর্দান্ত পারফরম্যান্সেই বেলজিয়াম সেমিফাইনাল খেলেছিল।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

এই পাতার আরো খবর
up-arrow