Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:২০
তাহলে কি সেরা একাদশে সৌম্য
ক্রীড়া প্রতিবেদক, দুবাই থেকে
তাহলে কি সেরা একাদশে সৌম্য

তিন-চার স্টেপ দৌড়ে ছোট্ট রান আপে বোলিং করছেন কোর্টনি ওয়ালশ। ক্যারিবীয় লিজেন্ডের বলগুলোকে কখনো ড্রাইভ, কখনো স্কয়ার কাট, কখনো আবার পুল খেলছিলেন সৌম্য সরকার। উইকেটের পেছনে দাঁড়িয়ে গভীর মনোযোগে দেখছিলেন সেটা আবার কোচ স্টিভ রোডস। যেন চুলচেরা বিশ্লেষণ করছেন। তাহলে কি পাকিস্তানের বিপক্ষে আজ নাজমুল হোসেন শান্তর জায়গায় ওপেন করবেন সৌম্য? অনুশীলন শেষে মিডিয়ার মুখোমুখিতে তেমন কোনো ইঙ্গিত দেননি কোচ। কিছু না বললেও দিনের আলোর মতো স্পষ্ট করে দিয়েছেন, ভারতের বিপক্ষে অসাধারণ একটি ফাইনাল খেলতে পাকিস্তানের বিপক্ষে রান করতে হবেই উপরের সারির ব্যাটসম্যানদের। ২৮ সেপ্টেম্বর মরু শহর দুবাইয়ে স্বপ্নের ফাইনাল। তার আগে আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে আজ অলিখিত সেমিফাইনালে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলতে নামবেন স্টিভ রোডসের শিষ্যরা। কঠিন প্রতিপক্ষ হলেও ১৯৯২ সালের বিশ্বচ্যাম্পিয়নের বিপক্ষে জয় পাওয়া সম্ভব বলেই বিশ্বাস টাইগার কোচের।

আবুধাবিতে শুধু আফগানিস্তান নয়, প্রচণ্ড গরমের বিপক্ষেও লড়তে হয়েছিল টাইগার ক্রিকেটারদের। দুই লড়াইয়েই জিতেছেন রোডসের শিষ্যরা। কিন্তু নিংড়ে দিতে হয়েছে শরীরের শতভাগ। ৩ রানের রোমাঞ্চকর জয়ের ওই ম্যাচে মাসল ক্রাম্প করেছিল মুস্তাফিজের। পানিশূন্যতায় ভুগেছেন মাশরাফি, ইমরুল, মাহমুদুল্লাহরা। ওই ধাক্কা সামলে নিতে দুদিন বিশ্রামে ছিলেন ক্রিকেটাররা। তবে ঐচ্ছিক ব্যাটিং করেছেন মুশফিক, মুমিনুল, সৌম্য, আরিফুল, আবু হায়দারসহ আট ক্রিকেটার। বিশ্রামে ছিলেন বাকি সবাই। বিশ্রামে থাকার কারণ, আজ পাকিস্তানের বিপক্ষে যেন শতভাগ ফিটনেস নিয়ে খেলতে পারেন ক্রিকেটাররা। পাকিস্তানের বিপক্ষে অলিখিত সেমিফাইনালে।              

আফগানিস্তান ম্যাচে শতভাগ নিংড়ে দেন মাশরাফি, মুস্তাফিজ, মাহমুদুল্লাহ, ইমরুলরা। আবুধাবির প্রচণ্ড গরমে নিজেদের সেরাটা খেলে তুলে নেন ৩ রানের অবিশ্বাস্য জয়। ওই জয়েই টিকে থাকে এশিয়া কাপের ফাইনালের স্বপ্ন। ফাইনালে খেলতে আজ উপরের সারির ব্যাটসম্যানদের রান করতেই হবে বলেন কোচ, ‘অবশ্যই শুরুটা ভালো করতে হবে। তামিমের ইনজুরিটা আমাদের ক্ষতির কারণ হয়েছে। শান্তকে খেলালেও রান করতে পারছেন না। তাই উপরের সারির ব্যাটসম্যানরা রান না পেলেও মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানরা রান করছেন। ফাইনালে খেলতে অবশ্যই ব্যাটম্যানদের জ্বলে উঠতে হবে।’

পাকিস্তানের বিপক্ষে ৩৫ লড়াইয়ে জয় সাকল্যে ৪টি। সেটা আবার সর্বশেষ মুখোমুখির বাইলেটারাল সিরিজে। তিন বছর আগে ২০১৫ সালের ঘরের মাঠে হোয়াইটওয়াশ করেছিল পাকিস্তানকে। সেই আত্মবিশ্বাস নিয়েই আজ লড়াইয়ে নামবে এবং পাকিস্তানের বিপক্ষে জয় পাওয়া সম্ভব মনে করেন কোচ, ‘অবশ্যই আমাদের সুযোগ রয়েছে। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে পাকিস্তান অসাধারণ খেলেছে। এবার তার ধারেকাছে খেলতে পারছে না এখানে। এটা মনে রাখতে হবে, পাকিস্তান সব সময়ই বিপজ্জনক দল। আমরাও বিপদজনক দল। ভারতের বিপক্ষে অসাধারণ একটি ফাইনাল খেলতে আমাদের পাকিস্তানকে হারতেই হবে। এজন্য সেরাটাই খেলতে হবে।’

আজকের ম্যাচে প্রতিপক্ষ শুধু পাকিস্তান নয়। গরমটাও প্রতিপক্ষ। তবে প্রতিপক্ষ পাকিস্তান হলেও টাইগার ব্যাটসম্যানদের লড়াই করতে হবে বাঁ হাতি কুইক বোলারদের বিপক্ষে। কিন্তু টাইগার কোচ পাকিস্তানের গতিশীল বোলারদের নিয়ে চিন্তিত নন, ‘পাকিস্তানের পেসাররা একটু জোরেই বোলিং করেন। আবুধাবির উইকেট আবার ধীরগতির। এমন উইকেটে ব্যাটসম্যানদের সুবিধা পেয়ে থাকেন। আমি মনে করি আমাদের ব্যাটসম্যানরা এই উইকেটে ভালো ব্যাটিং করবেন।’

আজ জিতলেই স্বপ্ন পূরণের শেষ ধাপে চলে আসবে স্টিভ রোডসের দল। স্বপ্ন পূরণের জন্য সেরাটাই খেলতে হবে বাংলাদেশকে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow