Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ জানুয়ারি, ২০১৯ ২২:৪৫

চ্যালেঞ্জ জানাতে প্রস্তুত শেখ রাসেল

ফেবারিটদের লিগ ভাবনা

ক্রীড়া প্রতিবেদক

চ্যালেঞ্জ জানাতে প্রস্তুত শেখ রাসেল

ফিকশ্চার এখনো চূড়ান্ত হয়নি। তবু ফেবারিট শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের প্রথম ম্যাচের প্রতিপক্ষ আরামবাগ তা অনেকটাই নিশ্চিত। জনপ্রিয় দলটির লক্ষ্য এবার একটাই পেশাদার লিগে হারানো শিরোপা উদ্ধার। তাই শুধু শুরুটা নয়, পুরো লিগে জয়ের রাস্তায় হাঁটতে চায় তারা। ২০১২-১৩ মৌসুমে শুধু পেশাদার লিগ নয়, ফেডারেশন কাপ ও স্বাধীনতা কাপে চ্যাম্পিয়ন হয় শেখ রাসেল। ঘরোয়া ফুটবল ইতিহাসে এক মৌসুমে তিনটি শিরোপার কৃতিত্ব রয়েছে শেখ রাসেল ও ঢাকা মোহামেডানের।

২০১৫ সালে লিগে রানার্স আপ হলেও শিরোপা আর জেতা হয়নি শেখ রাসেলের। অথচ প্রতি মৌসুমেই বিগ বাজেটে শক্তিশালী দলই গড়ছে তারা। বিশেষ করে গত দুই মৌসুমে দলটির ট্রফি শূন্যতা সমর্থকদের হতাশ করেছে। যাক অতীত ভুলে গিয়ে বিজয়ের উৎসবে মাততে চায় জনপ্রিয় দলটি। চলতি মৌসুমে ফেডারেশন কাপে সেমিফাইনাল ও স্বাধীনতা কাপে ফাইনাল খেলেছে শেখ রাসেল। কিন্তু দেশখ্যাত দলটির জন্য তা যথেষ্ট নয়। তারা চায় লিগে হারানো শিরোপা উদ্ধার করতে। শক্তির বিচার করে এবার পেশাদার লিগে যে কটি দলকে ফেবারিট ধরা হচ্ছে তাদের মধ্যে অন্যতম দল শেখ রাসেল। দেশি ও বিদেশি শক্তি মিলিয়ে শেখ রাসেল ব্যালেন্সড এক দল গড়েছে। প্রশিক্ষকের দায়িত্ব পালন করছেন অভিজ্ঞ সাইফুল বারী টিটু। অধিনায়কের আর্ম ব্যান্ড পরেছেন দেশের সেরা গোলরক্ষক আশরাফুল ইসলাম রানা। রক্ষণভাগে নাইজেরিয়ার অ্যালিসনের সঙ্গে আছেন ইয়াসিন, বিশ্বনাথ ও ইয়ামিন মুন্না। মধ্যমাঠে বিপলু, সোহেল রানা, উজবেকিস্তান আজিজভ, সবুজ। আক্রমণভাগে অ্যালেক্স রাফায়েল ও উদোয়া রাফায়েল। এই মানের খেলোয়াড়দের নিয়ে লিগে হারানো শিরোপা উদ্ধার করাটা আহামরি কিছু নয়। বিশেষ করে আক্রমণভাগে দুই রাফায়েল আর রক্ষণভাগে তাদের প্রাচীরটা ঠিক রাখতে পারে তাহলে সব ভয়ই জয় করতে পারবে শেখ রাসেল। ক্লাবের ফুটবল কমিটির সদস্য সচিব ক্রীড়া পরিচালক অভিজ্ঞ সংগঠক সালেহ জামান সেলিম জানালেন, ‘এবার লিগটা হবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ। নতুন শক্তি হিসেবে বসুন্ধরা কিংসের আবির্ভাব ঘটেছে। ঢাকা আবাহনী, শেখ জামাল, সাইফ স্পোর্টিং এমনকি চট্টগ্রাম আবাহনীও কম যাবে না। শেখ রাসেল চ্যালেঞ্জ জানাতে প্রস্তুত।’

সেলিম বলেন, লড়াই হবে হাড্ডাহাড্ডি। আমরা চাই এ লড়াইয়ে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব তুলে ধরে বিজয়ের নিশানা ওড়াতে। আমার বিশ্বাস ছেলেরা তা পারবে। অভিজ্ঞ এই সংগঠক একটা ব্যাপারে বেশ জোর দিয়েছেনÑ তা হলো রেফারিং। ‘কোটি কোটি টাকার দল গড়ার পর যদি কেউ দুর্বল রেফারিংয়ে শিকার হয় এর চেয়ে দুর্ভাগ্য আর কি হতে পারে। আশা করবো লিগ কমিটি বিষয়টি নজর দেবে।’


আপনার মন্তব্য