Bangladesh Pratidin

ফোকাস

  • চকবাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৭০ জনের মরদেহ উদ্ধার, আরও থাকতে পারে: আইজিপি
প্রকাশ : সোমবার, ২১ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ২০ জানুয়ারি, ২০১৯ ২২:৫১
আলো ছড়ানো তারকারা
আসিফ ইকবাল
আলো ছড়ানো তারকারা

পুরোপুরি জমে উঠেছে বিপিএল। কোয়ালিফায়ার বা এলিমিনেটর পর্বে খেলবে কারা তা এখনো নিশ্চিত হয়নি। তবে সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে ঢাকা ডায়নামাইটস, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স, চিটাগং ভাইকিংস, রংপুর রাইডার্স ও রাজশাহী কিংস। একটু পিছিয়ে সিলেট সিক্সার্স ও খুলনা টাইটানস। জমজমাট বিপিএলে বিদেশি তারকা রিলি রুশো, ডেভিড ওয়ার্নার, ফ্রাইলিঙ্ক, পুরনোদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে আলো ছড়াচ্ছেন মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, মোহাম্মদ মিথুন, লিটন দাস, তামিম ইকবাল, সাব্বির রহমান, মাশরাফি বিন মর্তুজা, শফিউল ইসলাম, তাসকিন আহমেদরা। দেশি ও বিদেশি ক্রিকেটারদের ব্যাট ও বলের লড়াই চলছে সেয়ানে সেয়ানে। বিপিএল শেষ ৮ ফেব্রুয়ারি। তার আগেই নিউজিল্যান্ড উড়ে যাবেন টাইগার ক্রিকেটাররা। কোনো রকমের ক্যাম্প না করলেও ক্রিকেটাররা নিউজিল্যান্ড যাবেন ব্যাটিং ও বোলিংয়ের আত্মবিশ^াস নিয়ে।

নভেম্বরে মাঠে গড়ানোর কথা ছিল বিপিএলের ছয় নম্বর আসর। রাজনৈতিক কারণে পিছিয়ে শুরু হয় চলতি জানুয়ারিতে। ১৩ ফেব্রুয়ারি শুরু নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ এবং বিপিএলের ফাইনাল ৮ ফেব্রুয়ারি। সিরিজ খেলতে ক্রিকেটাররা ঢাকা ছাড়বেন ৭ ফেব্রুয়ারি। অনেকে যাবেন ৯ ফেব্রুয়ারি। তাই নিউজিল্যান্ড সফরের আগে কোনো রকমের প্রস্তুতি নেওয়ার সুযোগ হচ্ছে না ক্রিকেটারদের। বিপিএলই একমাত্র প্রস্তুতি মঞ্চ হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিপিএলের খেলাগুলো হচ্ছে ধীরলয়ের উইকেটে। নিউজিল্যান্ডের গতি ও বাউন্সি উইকেটে খেলার আগে এমন ধীরগতির উইকেটে প্রস্তুতিতে সন্তুষ্ট নন টাইগার কোচ স্টিভ রোডস। কোচ মুখে যাই বলুন, ক্রিকেটাররা কিন্তু ফর্মে ফিরছেন এবং ফিরে পাচ্ছেন আত্মবিশ্বাস। সময়ের সঙ্গে মানিয়ে নিয়ে রান করছেন তারকা ক্রিকেটাররা। শনিবার বিদ্যুৎ চমকানো ব্যাটিং করেছেন সাব্বির রহমান। রংপুরের বিপক্ষে ৮৫ রানের দৃষ্টিনন্দন ইনিংসটি এখন পর্যন্ত বিপিএলের চলতি আসরের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ। ৫১ বলের টর্নেডো ইনিংসটিতে তিনি ছক্কা মেরেছেন ৬টি এবং বাউন্ডারি ৫টি। এর আগে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ছিল রংপুরের রিলি রুশোর ৮৩ এবং বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মুশফিকুর রহিমের, ৭৫। শনিবার হারলেও হাফ সেঞ্চুরি দেখা পেয়েছেন খুলনার মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।

২০১৯ সাল বাংলাদেশের বিশ্বকাপের বছর। মে-জুলাইয়ে ইংল্যান্ডে বিশ^কাপ ক্রিকেট খেলবে বাংলাদেশ। প্রস্তুতি হিসেবে তার আগে দুটি সিরিজ পাচ্ছে টাইগাররা। নিউজিল্যান্ড ও আয়ারল্যান্ড সিরিজ। ব্ল্যাক ক্যাপসদের বিপক্ষে কোনো টি-২০ না থাকলেও তিনটি টেস্ট ও তিনটি ওয়ানডে খেলবে। দলটির বিপক্ষে সম্ভাব্য স্কোয়াডের অন্যতম তামিম, মুশফিক, লিটন, সাকিব, মাশরাফি, তাসকিন, মুস্তাফিজ, মেহেদি, মিরাজরা দারুণ পারফরম্যান্স করছেন। যদিও টুর্নামেন্টের শুরুতে আলো ছড়াতে পারেননি স্থানীয় ক্রিকেটাররা। ধীরলয়ের উইকেট ও কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিয়ে রান করতে কষ্ট হচ্ছিল তামিম, মুশফিকদের। তবে মাশরাফি, তাসকিন, শফিউলরা শুরু থেকে দারুণ বোলিং করছেন।

শুক্রবার রাতে সিলেট সিক্সার্সের বিপক্ষে দুর্দান্ত ব্যাটিং করেন বিশ^সেরা অলরাউন্ডার সাকিব। ঢাকা ডায়নামাইটসকে পঞ্চম জয় উপহার দিতে তিনি খেলেন ৬১ রানের হার না মানা ইনিংস। ৬ ম্যাচে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের রান ১৩৫। শুধু ব্যাটিং নয়, দারুণ বোলিংও করছেন তিনি। এখন পর্যন্ত শিকার ১০ উইকেট। চমকে দেওয়া পারফরম্যান্স ডানহাতি ফাস্ট বোলার তাসকিনের। অফ ফর্মের জন্য বাদ পড়েছিলেন জাতীয় দল থেকে। বিপিএলে খেলছেন সিলেটের হয়ে। পাকিস্তানের লিজেন্ডারি ফাস্ট বোলার ওয়াকার ইউনুসের ছায়ায় নিজেকে ঘষে মেজে দারুণ বোরিং করছেন তাসকিন। রংপুরের বিপক্ষে দারুণ বোলিং করে ৪২ রানের খরচে নিয়েছেন ৪ উইকেট। ৭ ম্যাচে উইকেট এখন ১৪টি। আসরে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি তাসকিন। চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে জয়ী ম্যাচে তার বোলিং স্পেল ২৮ রানে ৪ উইকেট। বিস্মিত করেছেন টাইগার ও রংপুর অধিনায়ক মাশরাফি। টি-২০ ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েও এই ভার্সানে বাংলাদেশের সেরা বোলারদের একজন। ৭ ম্যাচে তার উইকেট ১২টি। কুমিল্লা ভাইকিংসের বিপক্ষে ১১ রানে ৪ উইকেট। দুরন্ত বোলিং করছেন রংপুরের আরেক পেসার শফিউল ইসলামও। ৭ ম্যাচে তার উইকেট ১৩টি।

ধীরগতির উইকেটে স্পিনারদের পেছনে ফেলে দারুণ বোলিং করছেন পেসাররা। শুরুর কষ্ট মানিয়ে এখন রান করছেন মুশফিক, লিটন, সাব্বির ও মিথুনরা। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে চিটাগং ভাইকিংসের অবিশ্বাস্য জয়ের ম্যাচে ৭৫ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছিলেন মুশফিক। ৫ ম্যাচে তার ১৯১। বিস্ময়ের জন্ম দিয়েছেন খুলনা টাইটানসের বর্ষীয়ান ক্রিকেটার জুনায়েদ সিদ্দিকী। জাতীয় দলের সাবেক ওপেনার রয়েছেন দারুণ ছন্দে। ৬ ম্যাচে রান করেছেন ১৯১। রানে ফিরেছেন তামিমও। টানা দুই ম্যাচে শূন্য রানের ধাক্কায় বিপর্যস্ত তামিম খুলনার বিপক্ষে খেলেছেন ৭৩ রানের ম্যাচজয়ী ইনিংস। তামিমের রান ১৩৩। ৭ ম্যাচে লিটনের রান ১২৪ এবং শনিবার দুর্দান্ত খেলা সাব্বিরের রান ৭ ম্যাচে ১৪১। 

ধীরলয়ের উইকেটে ব্যাটিং কিংবা বোলিং করুন না কেন মাশরাফি, সাকিব, তামিম, মুশফিকরা, নিউজিল্যান্ড সফরে নিশ্চিত করেই আত্মবিশ্বাসের পারদটা থাকবে আকাশচুম্বী।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow