Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ জানুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : ৩০ জুন, ২০১৬ ১১:১১
আপডেট :
রয় তাণ্ডবে উড়ে গেল শ্রীলঙ্কা
অনলাইন ডেস্ক
রয় তাণ্ডবে উড়ে গেল শ্রীলঙ্কা

পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে ৬ উইকেটে হারিয়েছে ইংল্যান্ড। এ ম্যাচে জয়ের ফলে ১ ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজিটি ২-০ ব্যবধানে জিতে নিয়েছে ইংল্যান্ড। জেসন রয়ের ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিং ঝড়ে সহজেই জয় পেয়েছে স্বাগতিকরা।

লন্ডনের কেনিংটন ওভালে বুধবার ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চতুর্থ ওয়ানডে ম্যাচে শ্রীলঙ্কার ছুড়ে দেওয়া চ্যালেঞ্জটা নেহাত মন্দ ছিল না। টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে তারা ১৯তম ওভারে বৃষ্টির কবলে পড়ে। এরপর ১ ঘণ্টারও বেশি সময় পর ম্যাচটি আবার শুরু হয়। এর ফলে ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে ম্যাচটির ওভার কমে নেমে আসে ৪২ ওভারে।

৪২ ওভারে শ্রীলঙ্কা ৫ উইকেট হারিয়ে সংগ্রহ করে ৩০৫ রান। ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে গিয়ে ইংল্যান্ডের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩০৮ রানে। তবে এ লক্ষ্য ১১ বল হাতে রেখেই পূর্ণ করে ইংল্যান্ড।

শ্রীলঙ্কার ওপেনার কুশাল পেরেরা নিজের প্রথম বলেই রান আউটের শিকার হন। এরপর দানুশকা গুনাথিলাকা এবং কুশাল মেন্ডিস ১৩৬ রানে জুটি গড়ে তুলেন। বৃষ্টির আগে দারুণ ব্যাটিং করলেও বৃষ্টির পরে বেশিক্ষণ ক্রিজে থাকতে পারেননি এ দুজন ব্যাটসম্যান। মেন্ডিস ৬৪ বলে ১৩টি চারের মারে ৭৭ রান করে সাজঘরে ফিরেন। আর গুনাথিলাকা ৬৪ বলে ৭টি চারের মারে ৬২ রান করেন।

তবে চতুর্থ উইকেটে এসে দিনেশ চান্দিমাল ও অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস ৮৭ রানের জুটি গড়েন। চান্দিমাল ৫১ বলে ১টি চার ও ৩টি ছক্কার মারে ৬৩ রান করে বিদায় নেন। তবে ম্যাথিউস ৫৪ বলে ৬৭ রান করে অপরাজিত থাকেন। অধিনায়কের অপরাজিত ইনিংসে দলের স্কোর গিয়ে দাঁড়ায় ৩০৫ রানে।

ইংল্যান্ডের হয়ে ডেভিড উইলি ও লিয়াম প্লাঙ্কেট ২টি করে উইকেট নিয়েছেন।

শ্রীলঙ্কার দেয়া লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ইংল্যান্ড শুরুতেই দ্বিতীয় ওপেনিং ব্যাটসম্যান মঈন আলীকে হারায়। তবে তাতে খুব একটা অসুবিধা হয়নি দলের। জেসন রয়ের সঙ্গে তৃতীয় উইকেটে নামা জো রুট ১৪৯ রানের জুটি গড়ে দলের স্কোরবোর্ডে জয়ের পুঁজি জমা করে দেন।

রুট ৫৪ বলে ৯টি চারের মারে ৬৫ রান করে বিদায় নেন। এরপর দলের অধিনায়ক ইয়ন মর্গ্যানের সঙ্গে জুটি গড়েন রয়। মর্গ্যান ২২ রানে বিদায় নিলে বেয়ারস্টোকে নিয়ে দলের হাল ধরেন রয়। অবশেষে ১১৮ বলে ১৬২ রান করে তার ইনিংসটি থামে। এ ইনিংসটি সাজাতে ১৩টি চার ও ৩টি ছক্কার সাহায্য নিয়েছেন তিনি। এটি তার ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস ছিল। এর আগে তার সেরা ইনিংসটি ছিল ১১২ রানের।

রয় সাজঘরে ফিরে গেলে বেয়ারস্টো ও জস বাটলার বাকি কাজটুকু সমাধা করেন। বেয়ারস্টোর ২৭ বলে ২৯ এবং বাটলারের ৮ বলে ১৭ রানের অপরাজিত ইনিংসে দল ১১ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছায়।

পাঁচ ম্যাচের এ ওয়ানডে সিরিজটিতে প্রথম ম্যাচটি ড্র হয়। তার পরের ম্যাচটি ১০ উইকেটে ইংল্যান্ড জিতে নেয়। আর তৃতীয় ম্যাচটি পরিত্যক্ত হয়

বিডি-প্রতিদিন/এস আহমেদ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow