Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৩:১৫
বাংলাদেশে না এলে জায়গা হারাতে পারেন মরগান
অনলাইন ডেস্ক
বাংলাদেশে না এলে জায়গা হারাতে পারেন মরগান

ইংলিশদের বাংলাদেশ সফর নিয়ে ধোঁয়াশা কাটে ইংল্যান্ড প্রতিনিধি দলের সবুজ সংকেত দেওয়ার পর। এরপর অনেক তারকা ক্রিকেটার বাংলাদেশ সফরের বিষয়ে নিশ্চিত করেছেন।

তবে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত দেননি ওয়ানডে অধিনায়ক ইয়ন মরগানসহ কয়েকজন ক্রিকেটার। তবে সময় ঘনিয়ে আসায় তাদের মতামত দেওয়ার জন্য আগামী শনিবার পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। সেই সঙ্গে যারা সফরে যাবে না তাদের সতর্ক করে ‍দিয়ে বোর্ডের পরিচালক ও সাবেক অধিনায়ক অ্যান্ড্রু স্ট্রস জানান, যারা নাম প্রত্যাহার করে নেবে, পরবর্তীতে তারা সেই জায়গায় ফিরতে পারবে কিনা তার কোনো নিশ্চয়তা দেওয়া যাবে না। খবর: ইএসপিএন ক্রিকইনফোর।

নিরাপত্তার শঙ্কা প্রকাশ করে ইংলিশদের ওয়ানডে অধিনায়ক ইয়ন মরগান ও ওপেনার অ্যালেক্স হেলস সিদ্ধান্তহীনতায় রয়েছেন। ইতিমধ্যে অবশ্য প্রকাশ্যে সম্মতি জানিয়েছেন অলরাউন্ডার মঈন আলী, উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান জনি বেয়ারস্টো ও পেসার ক্রিস জর্ডান। আর যাকে নিয়ে বেশি অনিশ্চিয়তা ছিল সেই ইংলিশ টেস্ট অধিনায়ক তো সবার আগেই বাংলাদেশ সফরের আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তবে ধারণা করা হচ্ছে মরগান যদি সফর না করে তবে তিনি রঙ্গিন পোশাকের নেতৃত্বও হারাতে পারেন। একই সঙ্গে তার জায়গায় কেই ভালো করলেও পরবর্তীতে দলে জায়গা পাওয়া কঠিন হয়ে যাবে।

এদিকে স্ট্রস দলে থাকা সব ক্রিকেটারকেই বাংলাদেশ সফরে চান। গত শুক্রবার ও শনিবার সেন্ট্রাল কন্ট্রাক্টের ব্যাপারে সব ক্রিকেটারের সঙ্গে দেখা করেন তিনি। যেখানে আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর দলটির বাংলাদেশ ও ভারত সফরে টেস্ট এবং বাংলাদেশ সফরে ওয়ানডের দল ঘোষণা করা হবে।

এ প্রসঙ্গে স্ট্রস বলেন, ‘আমি এই পরিকল্পনায় ক্রিকেটারদের কোনো ধরনের চাপ দিতে চাই না। তবে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে কেউ যদি সফর না করতে চায় তবে অন্য একজনের কপাল খুলে যাবে। এটা হচ্ছে এমন, কেউ যদি ইনজুরিতে পড়ে তাহলে তার জায়গায় অন্যজন খেলে। আর সে যদি ভালো খেলে ফেলে তবে আগের জনের দলে ফেরার ব্যাপারে কোনো নিশ্চয়তা নেই। ’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি কি এই সফরে আমাদের দুই অধিনায়ককেই চাই? অবশ্যই, নিয়মিত অধিনায়ক থাকলে দায়িত্ব বাড়ে। আমি আমাদের নিরাপত্তা প্রধান রেগ ডিকাসনের ওপর বিশ্বাসী। তাই আমি এখনও আশাবাদী দলের সব ক্রিকেটাররাই বাংলাদেশ সফর করবে। কারণ সেখানের নিরাপত্তা ব্যবস্থার ওপর আমাদের আস্থা রয়েছে। ’

পূর্ব নির্ধারিত সময় অনুযায়ী আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর ৩টি ওয়ানডে ও ২টি টেস্ট খেলতে প্রায় এক মাসের সফরে বাংলাদেশে আসার কথা ইংলিশদের।


বিডি-প্রতিদিন/০৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬/মাহবুব

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow