Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ১ অক্টোবর, ২০১৬ ১৮:৪১
আফগানিস্তানকে ২৮০ রানের টার্গেট দিল বাংলাদেশ
অনলাইন ডেস্ক
আফগানিস্তানকে ২৮০ রানের টার্গেট দিল বাংলাদেশ

তামিম ইকবাল ও সাব্বির রহমানের ১৪০ রানের চমৎকার জুটির উপর ভর করে আফগানিস্তানকে ২৮০ রানের টার্গেট দিয়েছে বাংলাদেশ।

দেশের মাটিতে টানা ষষ্ঠ সিরিজ ও ওয়ানডেতে নিজেদের শততম জয়ের লক্ষ্যে আজ শনিবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে আফগানিস্তানের বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডেতে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ৮ উইকেটে ২৭৯ রান করে বাংলাদেশ।

যদিও দুই দলের সামনেই আজ সিরিজ জয়ের হাতছানি। তিন ম্যাচের সিরিজে ১-১ সমতা রয়েছে।

মিরপুরে আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ নির্ধারণী তৃতীয় ওয়ানডেতে ক্যারিয়ারের সপ্তম ওডিআই সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন তামিম ইকবাল। শুরুতেই সৌম্য সরকারের (১১) বিদায়ে চাপে পড়া বাংলাদেশকে ভালো অবস্থানে রেখে সাব্বির রহমান (৬৫) সাজঘরে ফিরে গেলে দলকে দৃঢ় ভিত্তি গড়ে দেন তামিম ইকবাল (১১৮)। দলীয় ২১২ রানে তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে বিদায় নেন তিনি।

তামিমের বিদায়ের সময়ও মনে হচ্ছিল দলীয় তিনশ’ রান হওয়া শুধু সময়ের ব্যাপার। কিন্তু তামিম ও সাব্বির এই সম্ভাবনা জাগালেও শেষের ব্যাটিং ব্যর্থতায় পারেনি মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। তাই সিরিজ জিততে তৃতীয় ওয়ানডেতে ২৮০ রান চাই আফগানিস্তানের।

প্রথম ম্যাচে মাত্র ২০ রানের জন্য সেঞ্চুরি বঞ্চিত হলেও মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে আজ শনিবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডেতে টস জিতে ওপেনিংয়ে ব্যাট করতে নেমে সেই ভুল করেননি তামিম ইকবাল। ১১৮ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে মোহাম্মদ নবির বলে আউট হন তিনি। ১১টি চার ও দুই ছক্কার সাহায্যে এই রান করেন তিনি।

এর আগে তিন নম্বরে নামা সাব্বির রহমানের সঙ্গে ১৪০ রানের চমৎকার একটি জুটি উপহার দেন তামিম ইকবাল। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৪১ ওভার ২ বলে দলীয় সংগ্রহ ৩ উইকেটে ২২৫। ব্যাটিংয়ে রয়েছেন সাকিব আল হাসান (১৬) ও মুশফিকুর রহিম (৯)।

এর আগে আফগানদের বিপক্ষে বেশ সাবলিল ব্যাটিং করে তিনটি ছয় ও ছয়টি বাউন্ডারিতে ক্যারিয়ার সেরা ৬৫ রানের ইনিংস খেলেন সাব্বির রহমান। রহমত শাহর বল উড়িয়ে সীমানা ছাড়া করতে গিয়ে আউট হওয়া এই ব্যাটসম্যানের ওয়ানডেতে আগের সেরা ছিল জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৫৭।

আজও ব্যর্থ ওপেনার সৌম্য সরকার (১১ বলে ১১)। মিরওয়াইস আশরাফের বলে উইকেটকিপারকে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান তিনি। তবে তামিম আউট হওয়ার পরই শুরু মূলত শুরু হয় বাংলাদেশের ব্যাটিং লাইনআপের বেহাল দশা। একের পর এক উইকেট হারাতে শুরু করে টাইগাররা।

তামিম আউট হওয়ার পর ব্যাট করতে নামেন মুশফিকুর রহীম। জুটি বাধেন সাকিবের সঙ্গে। তবে জুটিটা খুব বেশি বড় হলো না।   উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যাওয়ার আগে সাকিব ৩৫ বল খেলে ১৭ রান করলেন।

এরপর আউট হলেন মুশফিকুর রহীম। ১৩ বল খেলে ১২ রান করার পর লেগ স্পিনার রশিদ খানের বলে লেগবিফোর আউট হয়ে গেলেন তিনি।

পরে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মোসাদ্দেক হোসেরের উপর আশা করেছিল দর্শকরা। কিন্তু দুর্ভাগ্য। ৪ বলে ৪ রান করার পর রশিদ খানের বলে স্ট্যাম্পিং হয়ে গেলেন মোসাদ্দেক। তবে মাহমুদুউল্লাহ শেষের দিকে ২২ বলে ৩২ রান করায় রানের চাকা কিছুটা সচল ছিল।

বিডি প্রতিদিন/ ০১ অক্টোবর ২০১৬/ এনায়েত করিম

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow