Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ১৭ মার্চ, ২০১৭ ১২:২৩ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৭ মার্চ, ২০১৭ ১৪:২১
হাফ সেঞ্চুরি করে ফিরলেন মুশফিক
অনলাইন ডেস্ক
হাফ সেঞ্চুরি করে ফিরলেন মুশফিক
ফাইল ছবি

আগের দিন (দ্বিতীয় দিন) বিকেলে টি-টোয়েন্টি ব্যাটিংয়ে এগিয়ে গিয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। এদিন সকালে তাকে ছাড়িয়ে গেলেন মুশফিকুর রহিম।

সাকিবকে ৪১ রানে রেখে করে ফেলেন অর্ধশতক।

 
দ্বিতীয় দিনে ৫ উইকেট হারানোর পর তৃতীয় দিন সকালের কঠিন সময়টাও পার করেছেন মুশফিক-সাকিব জুটি। গড়েছেন ৯২ রানের দুর্দান্ত এক জুটি। আর এরই মধ্যে ৬৬ বলে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন মুশফিক। ডিফেন্সে ছিলেন আঁটসাঁট, খেলেছেন দৃষ্টিনন্দন সব ড্রাইভ। দারুণ খেলতে খেলতেই মুহূর্তের অসতর্কতা। কিন্তু সুরঙ্গা লাকমলের বলে বোল্ড হয়ে থামল মুশফিকের যাত্রা। ৫২ রানে ফিরলেন মুশফিক।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৮৬ ওভার শেষে ছয় উইকেটে ৩০। সাকিব ৫১ ও মোসাদ্দেক হোসেন ৮ রানে ব্যাট করছেন।

৭ বলে তিনটি উইকেট হারিয়ে দ্বিতীয় দিনের শেষটা ছিল বিষাদময়। বাংলাদেশের স্কোর ২ উইকেটে ১৯২ থেকে হয়ে যায় ৫ উইকেটে ২১৪ (৬০ ওভার)। উইকেটে থিতু হয়েও ৫৭তম ওভারে লক্ষণ সান্দাকানের করা চতুর্থ বলে এলবিডব্লু হয়ে সাজঘরে ফেরেন ইমরুল কায়েস (৩৪)।

পরের বলেই ‘নাইটওয়াচম্যান’ হিসেবে নামা তাইজুল ইসলামকে এলবিডব্লুর ফাঁদে ফেলেন বাঁহাতি স্পিনার সান্দাকান। পেসার সুরাঙ্গা লাকবলের করা পরের ওভারের চতুর্থ বলে ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার কাছে ক্যাচ দিয়ে সবাইকে হতাশ করেন সাব্বির রহমান (৪২)। দলীয় ১৯৮ রানে পঞ্চম উইকেটের পতন ঘটে।

তার ওপর দলের এমন পরিস্থিতির মুখে টি-২০ মেজাজে ব্যাট চালান সাকিব আল হাসান। ৮ বলে ১৮ রান করার পথে ভাগ্যগুনে দু’বার আউট হতে হতে বেঁচে গেছেন! ৭ বলে ২ রান করে মাঠ ছাড়েন অধিনায়ক মুশফিক।

ওপেনিং জুটিতে ৯৫ রান তুলে কী ভালো শুরুটাই না এনে দিয়েছিলেন তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। ১ রানের জন্য অর্ধশতক বঞ্চিত হন তামিম। টানা তিন ইনিংসে ফিফটি হাঁকিয়ে ফেরেন সৌম্য (৬১)। সৌম্য-ইমরুল মিলে ৩৫ ও ইমরুল-সাব্বিরের পার্টনারশিপে আসে ৬২।

তিনটি উইকেট নেন সান্দাকান। একটি করে রঙ্গনা হেরাথ ও লাকমল।

এর আগে দিনেশ চান্দিমালের ১৩৮ রানের দায়িত্বশীল ইনিংসে সবকটি উইকেট হারিয়ে ৩৩৮ রান করে স্বাগতিকরা। নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন তিনি। শেষ তিন উইকেটে আসে ১৪৩। ধনাঞ্জয়া সিলভা ও নিরোশান ডিকওয়েলা দু’জনই ৩৪ রান করেন। শেষদিকে লঙ্কান দলপতি হেরাথ ২৫ ও লাকমল ৩৫ রানের কার্যকরী ইনিংস উপহার দেন।

মেহেদী হাসান মিরাজ তিনটি ও দু’টি করে উইকেট নেন মোস্তাফিজুর রহমান, শুভাশিস রায়, সাকিব আল হাসান। বাকি উইকেটটি তাইজুল ইসলামের।

ঐতিহাসিক টেস্ট দিয়ে দুই ম্যাচ সিরিজে সমতায় ফিরতে চোখ রাখছে টিম বাংলাদেশ। ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় গল টেস্টে (৭-১১ মার্চ) ২৫৯ রানে হার মানতে হয়েছিল।

বিডি প্রতিদিন/১৭ মার্চ ২০১৭/এনায়েত করিম

আপনার মন্তব্য

up-arrow