Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : ১৭ জুন, ২০১৭ ২০:১২ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৭ জুন, ২০১৭ ২০:১৬
ক্রিকেটই মেলাতে পারে দুই দেশকে: আফ্রিদি
অনলাইন ডেস্ক
ক্রিকেটই মেলাতে পারে দুই দেশকে: আফ্রিদি
ফাইল ছবি

আগামীকাল ইংল্যান্ডের ওভালে ভারত-পাকিস্তানের মহারণ। মহারণকে সামনে রেখে দুই দেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে চলছে কাদা ছোড়াছুড়ি। তবে সেদিকে না গিয়ে দ্বিপাক্ষিক ক্রিকেট পুনরায় চালুর ব্যাপারে ভারত সরকারকে তাদের অবস্থান নরম করার অনুরোধ জানিয়েছেন পাকিস্তানের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার শাহিদ আফ্রিদি।

২০০৭ সাল থেকে ভারত, পাকিস্তান কেউ কারও দেশে দ্বি-পাক্ষিক ক্রিকেট খেলতে যায়নি।

নিজের এক কলামে সাবেক এই অলরাউন্ডার লিখেছেন, সত্যিই আশা করি, দুইটি দেশ আবার নিজেদের মধ্যে ক্রিকেট খেলবে। ভারত সরকার, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে এ ব্যাপারে অবস্থান নরম মনোভাব দেখানোর আবেদন করছি। ২০১১ সালে মোহালিতে বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে পাকিস্তানের অধিনায়ক ছিলাম। খেলার কী গুরুত্ব, কী করে তা পরস্পরের প্রতি সৌহার্দ্য, সম্প্রীত, সহনশীলতার বার্তা দেওয়ার পাশাপাশি দুইটি দেশকে স্তব্ধ করে দিতে পারে, সেটা জানি। দুই দেশকে কাছাকাছি এনে উত্তেজনা কমানোর আসল উৎস হতে পারে ক্রিকেট।

আগামীকালের ম্যাচ প্রসঙ্গে আফ্রিদি বলেন, লিগ পর্যায়ে ভারত সব বিভাগেই পাকিস্তানকে মাত করে দিয়েছে, কিন্তু পাকিস্তান যে কোনও বড় ম্যাচে অঘটন ঘটিয়ে তাক লাগিয়ে দিতে পারে। লন্ডন ওভালে কাল মহাকাব্যিক লড়াইয়ের সময় আমরা রুদ্ধশ্বাস উত্তেজনায় মূহূর্ত গুণব।

কেননা পাকিস্তান যে কখন কী করে ফেলবে, আগে বলা যায় না, শেষ পর্যন্ত হার না মানার নাছোড় মনোভাব নিয়ে খেলে।

কালকের ম্যাচে অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদের সামনে ‘চিরকালের মতো দাগ’ রেখে যাওয়ার ‘ঈশ্বরপ্রদত্ত সুযোগ’ এনে দিয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি বলেন, উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান এখনও অধিনায়কত্বের শৈলী শিখছে বটে, কিন্তু টুর্নামেন্টের প্রতিটি খেলায় নেতা হিসাবে নিজেকে মেলে ধরছে। সরফরাজকে আমার বলার কথা একটাই, কোনও ভয় পেও না। সাহসের সঙ্গে আন্তরিক থেকে সিদ্ধান্ত নাও। ভারতের ব্যাটিংকেই কাল পাকিস্তানের সামনে সবচেয়ে বড় বাধা বলে মনে করছেন আফ্রিদি।

বিডি প্রতিদিন/১৭ জুন ২০১৭/আরাফাত

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow