Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৮ জুলাই, ২০১৮ ০০:৪০ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৮ জুলাই, ২০১৮ ০০:৪৩
ম্যারাডোনার হৃদয়জুড়ে রয়েছে ফিলিস্তিন
অনলাইন ডেস্ক
ম্যারাডোনার হৃদয়জুড়ে রয়েছে ফিলিস্তিন
ফাইল ছবি

ফুটবল জগতের গণ্ডি অতিক্রম করে একাধিকবার বিতর্কিত কিংবা তাৎপর্যপূর্ণ রাজনৈতিক মন্তব্য করে কখনও আলোচিত বা কখনও আবার সমালোচিত হয়েছেন ‘ফুটবল ঈশ্বর’ নামে খ্যাত দিয়াগো ম্যারাডোনা। আর্জেন্টিনার এই ফুটবল কিংবদন্তি ফিলিস্তিনিদের ন্যায়সঙ্গত অধিকারের প্রতি সবসময়ই তার দৃঢ় সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করেছেন। 

রাজনৈতিক বিশ্বাসে সমাজতন্ত্রী এই ফুটবল কিংবদন্তি ফিদেল ক্যাস্ত্রো, উগো চাভেজ, ইভো মোরালেসের মতোই বরাবরই ফিলিস্তিনের স্বাধীনতার পক্ষে সরব। সম্প্রতি নিজের ইন্সটাগ্রামে  ফিলিস্তিনের নেতা মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গে তোলা এক ছবি পোস্ট করেছেন তিনি। ক্যাপশনে জানিছেন, তার হৃদয়জুড়ে রয়েছে ফিলিস্তিন।

গত রবিবার রাশিয়ার বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন খেলা দেখা এবং দ্বিপাক্ষিক ও আঞ্চলিক বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনার জন্য ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসকে আমন্ত্রণ জানান। ওই আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে ফুটবলের ফাইনাল খেলা দেখতে রাশিয়া সফরে যান মাহমুদ আব্বাস। সেই ম্যাচটি দেখার জন্য রাশিয়ায় উপস্থিত ছিলেন দিয়াগো ম্যারাডোনাও।

রাশিয়ায় ফিলিস্তিন প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গে এক সৌজন্য সাক্ষাতে ম্যারাডোনা এ কথা জানান। মাহমুদ আব্বাস ম্যারাডোনাকে ধন্যবাদ জানান এবং তাকে একটি পেইন্টিং উপহার দেন। সেখানে দেখা যায়, শান্তির প্রতীক কবুতর ফিলিস্তিনের জলপাই গাছের ডালে বসে আছে।

ফিলিস্তিনের প্রতি ম্যারাডোনার এ সমর্থন এটাই প্রথম নয়। এর আগে ২০১২ সালে দুবাইতে সাংবাদিকদের ম্যারাডোনা বলেছিলেন, ‘আমি ফিলিস্তিনের প্রথম কাতারের সমর্থক। আমি তাদের শ্রদ্ধা করি, তাদের প্রতি সহানুভূতি জানাই। অন্যায়ের বিরুদ্ধে সংগ্রাম শুরুর পর থেকে আমি এ জাতির মুক্তি আন্দোলনকে সমর্থন করি।’

২০১৪ সালে গাজায় ইসরায়েলি আগ্রাসনের নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেছিলেন, ‘ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে ইসরায়েল যা করছে তা লজ্জাজনক’। ওই বছরের শেষের দিকে শোনা গিয়েছিল এ আর্জেন্টাইন তারকা ফিলিস্তিন ফুটবল টিমের সঙ্গে কোচ হিসেবে যোগ দিবেন। যদিও পরবর্তীতে তা আর হয়নি।
 


বিডি প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ সিফাত তাফসীর ‌‌

আপনার মন্তব্য

up-arrow