Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২০ আগস্ট, ২০১৮ ০৩:৩০ অনলাইন ভার্সন
ট্রেন্ট ব্রিজে ২য় দিন শেষে শক্ত অবস্থানে ভারত
অনলাইন ডেস্ক
ট্রেন্ট ব্রিজে ২য় দিন শেষে শক্ত অবস্থানে ভারত
সংগৃহীত ছবি
bd-pratidin

ট্রেন্ট ব্রিজে তৃতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিনের শেষে সুবিধেজনক জায়গায় রয়েছে ভারত। প্রথম ইনিংসে ১৬৮ রানের লিড নিয়ে খেলতে নেমে দ্বিতীয় দিনের শেষে দ্বিতীয় ইনিংসে ভারত ২ উইকেট হারিয়ে ১২৪ রান তুলেছে। যার ফলে ইতোমধ্যেই ২৯২ রানে এগিয়ে টিম ইন্ডিয়া।

দ্বিতীয় ইনিংসে দুই ভারতীয় ওপেনার ঝড়ের বেগে রান তুলতে শুরু করেন। কে এল রাহুল ৩৩ বলে ৩৬ রান করে আউট হন তিনি। ৬৩ বলে ৪৪ রান করে আউট হন শিখর ধাওয়ান। দিনের শেষে ৩৩ রানে অপরাজিত রয়েছেন চেতেশ্বর পূজারা। সঙ্গে ৮ রানে ক্রিজে রয়েছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

এর আগে টেস্টের দ্বিতীয় দিনে ভারতীয় পেসারদের কল্যাণে ভারতের ৩২৯ রানের জবাবে মাত্র ১৬১ রানে শেষ হয়ে গেল ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংস। ৫ উইকেট নিয়ে একা হাতেই ইংল্যান্ডকে শেষ করে দেন হার্দিক পান্ডিয়া। অ্যালিস্টার কুক এবং জেনিংস ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার  শুরুটা বেশ ভালই করেছিলেন। ৫৪(২৯) রানে কুকুকে আউট করে ইংল্যান্ডকে প্রথম ধাক্কাটা অবশ্য দেন ইশান্ত শর্মা। পরের ওভারেই জেনিংসকে(২০) ফেরান বুমরাহ।

এরপরেই ট্রেন্ট ব্রিজের বাইশ গজে পান্ডিয়া ম্যাজিক। মাত্র ৬ ওভার বল করে ২৮ রান দিয়ে তুলে নেন ৫টি উইকেট। পান্ডিয়ার শিকার জো রুট, জনি বেয়ারস্টো, ক্রিস ওকস, আদিল রশিদ ও স্টুয়ার্ট ব্রড। শেষ দিকে বাটলার ঝোড়ো ব্যাটিং করে ইংল্যান্ডের ফলো অন বাঁচান। ৩৯ রান করেন জোস বাটলার। ১৬১ রানে অল আউট হয়ে যায় ইংল্যান্ড। 

৫ উইকেট নেন হার্দিক পান্ডিয়া। ২টি করে উইকেট নেন ইশান্ত শর্মা ও জশপ্রীত বুমরাহ। একটি উইকেট নেন মোহম্মদ শামি। অভিষেক টেস্টে ঋষভ পন্থের শিকারও পাঁচ। উইকেটের পিছনে দাঁড়িয়ে নিলেন ৫টি ক্যাচ।

এর আগে৬ উইকেটে ৩০৭ রান নিয়ে রবিবার বৃষ্টিবিঘ্নিত দ্বিতীয় দিনের শুরুতেই অলআউট হয়ে যায় ভারতীয় দল৷ শেষ চার উইকেটে দ্বিতীয় দিনে মাত্র ২২ রান যোগ করে টিম ইন্ডিয়া। ভারতের শেষ চার ব্যাটসম্যানকে সাজঘরে ফেরাতে আট ওভারও খরচ করেননি ব্রড-অ্যান্ডারসন জুটি৷ 

২২ রানে অপরাজিত ঋষভ পন্থ মাত্র ২ রান যোগ করে আউট হয়ে যান। অশ্বিন করেন ১৪ রান। ৩২৯ রানে শেষ হয়ে যায় ভারতের প্রথম ইনিংস। ইংল্যান্ডের হয়ে অ্যান্ডারসন, ব্রড এবং ওকস তিনজনই তিনটি করে উইকেট নেন।


বিডি প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ সিফাত তাফসীর

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow