Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৩ নভেম্বর, ২০১৮ ২০:৫৩ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৩ নভেম্বর, ২০১৮ ২১:২৯
দলকে চালকের আসনে রাখতে পেরে খুশি তাইজুল
অনলাইন ডেস্ক
দলকে চালকের আসনে রাখতে পেরে খুশি তাইজুল
সংগৃহীত ছবি

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে মুশফিকুর রহিম ও মুমিনুল হকের মুগ্ধতা ছড়ানো ব্যাটিংয়ে ৭ উইকেটে ৫২২ রান নিয়ে ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ। জবাবে ব্রেন্ডন টেইলরের সঙ্গে পিটার মুরের প্রতিরোধের পরও তাইজুল ইসলাম ও মিরাজের ঘূর্ণিতে তৃতীয় দিন শেষে ফলোঅনে পড়ে জিম্বাবুয়ে! তারা প্রথম ইনিংসে ৩০৪ রানে থামায় তৃতীয় দিন শেষে ২১৮ রানে এগিয়ে টাইগাররা।

বল হাতে বাংলাদেশের পক্ষে সফল বোলার ছিলেন বাঁ-হাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম। ৪০ দশমিক ৩ ওভারে ১০৭ রানে ৫ উইকেট নিয়েছেন তিনি। সিলেট টেস্টের দুই ইনিংস পর ঢাকার ম্যাচের প্রথম ইনিংসেও পাঁচ বা ততোধিক উইকেট নেয়ায় রেকর্ডও গড়েছেন তাইজুল। এনামুল হক জুনিয়র ও সাকিব আল হাসানের পর টানা তিন ইনিংসে পাঁচ বা ততোধিক উইকেট নেয়ার কীর্তি গড়লেন তাইজুল।

এতে বাংলাদেশকে ভালো অবস্থায় পৌঁছে দিতে নিজেই অবদান রাখায় খুশি তাইজুল। তৃতীয় দিনের খেলা শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘ভাল পারফর্মেন্স করলে প্রতিটা ক্রিকেটারের ভাল লাগে। তবে দলটা আগে। দলটা এখন ভাল অবস্থানে আছে।’

নিজের ২১তম ওভারের মধ্যে জিম্বাবুয়ের চার ব্যাটসম্যানকে শিকার করেন তাইজুল। পঞ্চম উইকেট শিকারের জন্য দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়েছে তাকে। নিজের ৪১তম ওভারে গিয়ে পঞ্চম উইকেট নেন তাইজুল। অর্থাৎ প্রায় ২০ ওভার পর পঞ্চম উইকেট শিকার করতে হয়েছে তাকে। পঞ্চম উইকেট নিতে দেরি হবার সময় হতাশ হননি তাইজুল। 

এমনটাই জানিয়ে তিনি বলেন, ‘হয়তো একটু বেশি সময় লেগেছে। আর ওরাও একটা ভাল জুটি গড়েছিল। ক্রিকেটে তো জুটি হবেই। তবুও আশা ছাড়িনি।’

সাকিব আল হাসান দলে না থাকায় বাড়তি দায়িত্ব নিতে হচ্ছে তাইজুলকে এমন কথাও বললেন, ‘আমি অনেক বেশি বোলিং করার সুযোগ পাচ্ছি। সাকিব ভাই থাকলে হয়তো আমার ওপর এত দায়িত্ব পড়ত না। দায়িত্বটা আমি উপভোগ করছি।’  

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম

আপনার মন্তব্য

up-arrow