Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৮:০৩ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৮:০৫
প্রথম ওয়ানডে বুধবার ভোরে
নিউজিল্যান্ড সফরই টাইগারদের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি
অনলাইন ডেস্ক
নিউজিল্যান্ড সফরই টাইগারদের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি
ফাইল ছবি

ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলসে আগামী ৩০ মে শুরু হতে যাচ্ছে আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপের ১২তম আসর। যাকে সামনে রেখে ইতোমধ্যে মানসিক প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে বড় এই টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী ১০টি দল। এমন সময় নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শুরু করতে যাচ্ছে সফরকারী বাংলাদেশ দল। বুধবার বাংলাদেশ সময় ভোর ৭টায় ব্ল্যাক ক্যাপসদের বিপক্ষে নেপিয়ারে মাঠে নামবে মাশরাফি বিন মর্তুজার দল।  

তবে এই লড়াইয়ে শুরুর আড়ালে লুকিয়ে আছে মাশরাফি বিন মুর্তজার দলের বিশ্বকাপ পরীক্ষাও।  কেননা এবার নিউজিল্যান্ডে মাশরাফিরা পা রেখেছেন বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে! ইংল্যান্ডের কন্ডিশনের সঙ্গে অনেকটা মিল আছে নিউজিল্যান্ডের। সে কারণে এই সফরকে বিশ্বকাপের প্রস্তুতির সফর হিসেবে ধরে নিয়েছেন মাশরাফিরা। নেপিয়ারের দুই ম্যাচেই খেলার অভিজ্ঞতা আছে বাংলাদেশের এই দলের দুই সিনিয়র ক্রিকেটার তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিমের। একটি করে ম্যাচ খেলেছেন মাশরাফি, মাহমুদুল্লাহ ও শফিউল।

এরই মধ্যে নেপিয়ারে পৌঁছেছে মাশরাফির দল। আজ প্রস্তুতি নিবে আসল লড়াইয়ে নামার। অবশ্য এখানে কঠিন কন্ডিশনে কতটা চ্যালেঞ্জ তা দলের সকলেরই জানা। এর আগে তিনটি দ্বি-পাক্ষিক সিরিজের একটিও জয়ের রেকর্ড নেই টাইগারদের। সব শেষ মাশরাফির দল ২০১৭ তে  হোয়াইটওয়াশ হয়ে ফিরেছে। যদিও দুটি ম্যাচে কঠিন লড়াইয়ে জয়ের সামনে থেকে ফিরেছে। এবার তাই হবে জয়ের আত্মবিশ্বাস।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের (বিপিএল) ফাইনাল শেষ হয়েছে ৮ই ফেব্রুয়ারি। নিউজিল্যান্ড সফরের জন্য ঘোষিত দলের সব ক্রিকেটারই ভীষণ ব্যস্ত ছিলেন ঘরোয়া ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় টি-টোয়েন্টি আসর নিয়ে। তাই গ্রুপ পর্ব শেষ হতেই ওয়ানডে দলে থাকা ৮ জন ক্রিকেটারকে নিয়ে প্রধান কোচ ও নয়া ম্যানেজার খালেদ মাসুদ পাইলট পাড়ি জমান নিউজিল্যান্ডে। এরপর আরও চার ক্রিকেটার যোগ দেন এবং ফাইনাল শেষ হতেই অধিনায়ক মাশরাফি আরও তিন ক্রিকেটারকে নিয়ে মঙ্গলবারই পৌঁছেন নেপিয়ারে। 

তবে বাংলাদেশের জন্য দুঃসংবাদ হচ্ছে, নেপিয়ারের দুই ম্যাচের খেলার অভিজ্ঞতাসম্পন্ন সাকিব আল হাসানকে না পাওয়া! হাতের ইনজুরির কারণে নিউজিল্যান্ড সফর মিস করছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। তবে সাকিব না থাকলেও এবারের দলটি অনেক ভারসাম্যপূর্ণ। বোলিং আক্রমণে মাশরাফির সঙ্গে থাকছেন মুস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন। রয়েছেন শফিউল ও নবাগত ইবাদতও। তাসকিনের ইনজুরির কারণে পরে দলভুক্ত করা হয়েছেন এই দুই পেসারকে।

বাংলাদেশের ভরসার জায়গা হচ্ছে ব্যাটিং লাইনআপ। তামিম, মুশফিক, মাহমুদুল্লাহর সঙ্গে সৌম্য-মিথুন-লিটনরা। হার্ডহিটিং ব্যাটিংয়ের কথা চিন্তা করে সাব্বির রহমানকেও নেওয়া হয়েছে। বিপিএলে সৌম্য ছাড়া বাকিরা সবাই রানও পেয়েছেন। তাই ব্যাটিং লাইনআপ নিয়ে সন্তুষ্টই থাকার কথা কোচ স্টিভ রোডসের।

নেপিয়ারের ম্যাচগুলো সাধারণত হাই স্কোরিং হয়! এই মাঠে সর্বোচ্চ দুটি স্কোরই (৩৭৩ ও ৩৬৯ রান) নিউজিল্যান্ডের।

এই ম্যাচে সবচেয়ে বেশি ভয়ঙ্কর কিউই ব্যাটসম্যান রস টেলর। এই ব্লাক ক্যাপস তারকার তিনটি করে সেঞ্চুরি ও হাফ সেঞ্চুরি আছে। ৯৩.১৪ গড়ে করেছেন ৭৩৪ রান। মার্টিন গাপটিল ও কেন উইলিয়ামসনেরও বেশ পছন্দের। তাই এই তিন কিউই ব্যাটসম্যানের দিকে বাড়তি নজর দিতে হবে মাশরাফিদের।

নিউজিল্যান্ডে যাওয়ার পর টাইগাররা একটি প্রস্তুতি ম্যাচে অংশ নিয়েছিলেন। হারতে হয়েছে। যদিও প্রস্তুতির জন্য পর্যাপ্ত সময় পায়নি বাংলাদেশ দল। কম সময়ে কন্ডিশনের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেওয়াও কঠিন। তবে বিপিএলের কারণে খেলার মধ্যেই ছিল টাইগাররা। যদিও টি-২০ ফরম্যাট থেকে খেলতে হবে ওয়ানডে। কিন্তু নেপিয়ারের যে রান-বন্যার উইকেট, হয়তো টি-২০র ম্যাচ প্রাকটিসই তামিমদের জন্য শাপেবর হতে পারে!

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম

আপনার মন্তব্য

up-arrow