Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ১৭ জুন, ২০১৬ ১৫:১৮
ওয়াই-ফাইয়ের গতি কমে যে কারণে
অনলাইন ডেস্ক
ওয়াই-ফাইয়ের গতি কমে যে কারণে

যুগ এখন তথ্য-প্রযুক্তির। এর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ইন্টারনেটের ব্যবহার।

তথ্যের সঙ্গে সার্বক্ষণিক সংযুক্ত থাকতে বা তথ্য পেতে মানুষ এখন যেন সম্পূর্ণরূপেই ইন্টারনেট নির্ভর হয়ে উঠেছে। মানুষ এখন ব্যক্তিগত বা অফিসের প্রয়োজনীয় কাজ বাসায় বসেই সেরে ফেলছেন। ফলে বিভিন্ন রকম ইন্টারনেট ডিভাইসের উপর মানুষকে ঝুঁকতে হচ্ছে। ওয়াই-ফাই তেমনই একটি জনপ্রিয় ভিডাইস। তবে অনেককেই এর গতি কমার অভিযোগের কথা জানিয়ে থাকেন। নিচে ওয়াই-ফাই ইন্টারনেটের কম গতি থেকে প্রতিকারের উপায় নিয়ে আলোচনা করা হলো :

১. ওয়াই-ফাই সংযোগের গতি কমার প্রথম কারণ হতে পারে একাধিক ব্যবহারকারী। একই সংযোগের ইন্টারনেট অনেক ব্যবহার করলে গতি কমবে ইন্টারনেটের। সাধারণত অনেক সময় বাসা বা অফিসের আশাপাশের অনেকেই পাসওয়ার্ড জেনে যায়। অগোচরেই তারা ইন্টারনেট ব্যবহার করতে থাকেন। এই অবস্থায় প্রথমে চেক করতে হবে অচেনা বা অজানা কেউ আপনার ওয়াই-ফাই ব্যবহার করছে কিনা। এটি চেক করতে ওয়াই-ফাই রাউটারের ড্যাশবোর্ড প্রবেশ করে আইপিগুলো চেক করুন। সেখানে দেখবেন বর্তমানে কয়টি সংযোগ আপনার ওয়াই-ফাই ব্যবহার করছে। সেখান থেকে অচেনা আইপিগুলো ব্লক করে দিন। আবার ওয়াই-ফাইয়ের পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করেও এ সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

স্বয়ংক্রিয় আপডেট : কম্পিউটার বা স্মার্টফোনে স্বয়ংক্রিয় আপডেট অনেক সময় চালু থাকে। ফলে ব্যাকগ্রাউন্ডে অনেক অ্যাপ্লিকেশন আপডেট হতে থাকে। এতে ইন্টারনেটের গতি কমে যায়। ব্রাউজ করার সময় ওয়াই-ফাই সংযোগ ধীর মনে হয়। তাই ওয়াই-ফাই সংযোগ স্বাভাবিকের চেয়ে ধীর মনে হলে ডিভাইসটিতে কোনো সফটওয়্যার অটো আপডেট হচ্ছে কিনা তা চেক করে নিন।

রাউটারের অবস্থান : রাউটারের অবস্থানও নেটের গতির উঠানামার কারণ। তাই ওয়াই-ফাই সংযোগের গতি কম হলে সেটি এমন এক স্থানে রাখতে হবে যেখান থেকে ডিভাইসের দূরত্ব খুব বেশি না হয়। এক্ষেত্রে রাউটারটি উপরে রাখা হলে খুব ভালো ফল মিলবে। যত উপরে রাখা হবে ততো ভালো গতি পাওয়া যাবে। রাউটারটিকে উপরে রাখা হলে এর রেডিও ওয়েভগুলো সর্বোচ্চভাবে ব্রডকাস্ট করতে সক্ষম হয়।

 

বিডি-প্রতিদিন/১৭ জুন ২০১৬/শরীফ

 

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow