Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১১:৪২ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
অনলাইনে যে কাজগুলো করা বেআইনি!
অনলাইন ডেস্ক
অনলাইনে যে কাজগুলো করা বেআইনি!

ইন্টারনেট সম্পর্কিত আইনগুলো প্রতিনয়ত বদলে যাচ্ছে। তাই এ বিষয়ে যে আইনগুলো রয়েছে সেগুলো জানা কঠিনই বটে।

গান ডাউনলোড করা থেকে শুরু করে টরেন্ট বা ওই জাতীয় কোনো সাইট থেকে লেটেস্ট হিন্দি বা বাংলা সিনেমা ডাউনলোড, সবই কিন্তু বেআইনি। তবু আমরা করে চলেছি এইসব, আইনের চোখে ধুলো দিয়ে।  

যেসব কাজ ইন্টারনেটে করা একেবারেই আইন বিরুদ্ধ তা পাঠকদের সামনে তুলে ধারা হবে এবার। তবে এক্ষেত্রে একটা বিষয় বলে রাখা দরকার যে সব সময়ই যে আমরা জেনে বুঝেই এই ভুলগুলো করে থাকি এমন নয়। তাই তো সকলের এই প্রবন্ধটা পড়া জরুরি। কারণ এতে সেই সব কাজগুলোর প্রসঙ্গে আলোচনা করা হল যেগুলো ইন্টারনেটে বিচরণ করার সময় এড়িয়ে যাওয়াই শ্রেয়।

সিনেমা এবং গান ডাউনলোড : আগেও বলা হয়েছে যে, বিভিন্ন সাইট থেকে গান বা সিনেমা ডাউনলোড করা কিন্তু সম্পূর্ণ বেআইনি। সেই কারণেই তো অনেক দেশ ইতিমধ্যেই টরেন্ট সাইটটি নিষিদ্ধ করে দিয়েছে। তবু যেন থামতে চাইছে না এই নিষিদ্ধ কাজ। এ বিষয়ে তাই আমাদের সকলেরই অতিরিক্ত সচেতন হওয়াটা জরুরি।  

গাড়ি চালানোর সময় মেসেজ করবেন না : এটা যে খারাপ অভ্যাস, সেটা আমাদের সকলেরই জানা। তবু যেন ছাড়তে ইচ্ছা করে না। একথা আমরা ভুলে যাই যে কোনো পরিবহন, তা গাড়ি হোক কী বাইক বা সাইকেল, চালানোর সময় মোবাইলে কথা বললে বা টেক্সট করলে মারাত্মক বিপদের আশঙ্কা থাকে।  

বিজ্ঞাপনকে আটকে দেওয়া : ইন্টারনেটে ঝড় তোলা বেশিরভাগ সাইটই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে পয়সা উপার্জন করে থাকে। তাই ইন্টারনেট ব্যবহারের সময় অ্যাড ব্লকার ব্যবহার করা একেবারেই উচিত নয়। এটা কিন্তু বেআইনি কাজ।  

সাইটে কিছু বিক্রি করে তা আয়ের অংশ হিসাবে না দেখানো : আজকাল অনেক সাইটেই পুরানো জিনিস পত্র বিক্রি করা যায়। আর এ কাজ আমরা অনেকেই করে থাকি। কিন্তু কজন এই সব বিক্রি থেকে উপার্জিত অর্থ নিজের আয়ের অংশ হিসাবে দেখান? হিসাব করলে সংখ্যাটা যে খুব বেশি হবে না, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। তবে অনেকেরই এই বিষয়টা মাথায় থাকে না যে এই অল্প পরিমাণ আয়ও দেখানো জরুরি। তাই এইভাবে নিজের আয়ের অংশ হিসাবে এমন উপার্জনকে না দেখানো বাস্তবিকই বেআইনি কাজ।  

নকল আই পি অ্যাড্রেস ব্যবহার : নিজেকে মুখোশের আড়ালে রেখে দিতে অনেকেই নকল পরিচয়, এমনকী নকল আই পি অ্যাড্রেস ব্যবহার করে থাকেন। অনেকে আবার বেআইনি কাজ করার জন্যও এমনটা করে থাকেন। যারা এমন করে তাদের জানিয়ে রাখি, এই ধরনের কাজ কিন্তু বেআইনি।

বিডি প্রতিদিন/৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭/এনায়েত করিম

আপনার মন্তব্য

up-arrow