Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ৪ জুন, ২০১৬ ১০:২৯
আপডেট : ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
রাঙামাটিতে ৪৭টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ চলছে
ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি
রাঙামাটিতে ৪৭টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ চলছে

ষষ্ঠ ধাপের নির্বাচনে উৎসব মুখর পরিবেশে রাঙামাটি জেলার ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন চলছে। আজ শনিবার সকাল ৮টা থেকে জেলার দশ উপজেলার মধ্যে ৪৭টি ইউনিয়নে একযোগে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। 

রাঙামাটির নানিয়রচর উপজেলার বেশ কয়েকটি কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে, সকাল থেকে এসব কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি লক্ষ্যণীয়। এর মধ্যে নারী ভোটারদের উপস্থিতি ছিল পুরুষ ভোটারের চেয়ে তুলনামূলক বেশি।

রাঙামাটি জেলার ১০ উপজেলার ৪৮টি ইউনিয়নের মধ্যে ভোট হচ্ছে ৪৭টিতে। এগুলো হলো: কাউখালী উপজেলার বেতবুনিয়া, ফটিকছড়ি, ঘাগড়া ও কমলপতি, জুরাছড়ি উপজেলার বনযোগীছড়া, দুমদুম্যা, জুরাছড়ি ও মৈদং, বিলাইছড়ি উপজেলার বিলাইছড়ি সদর, ফারুয়া ও ক্যাংড়াছড়ি, লংগদু উপজেলার আটারকছড়া, ভাসান্যাদম, বগাচতর, গুলশাখালী, কালাপাকুজ্যা, লংগদু সদর ও মাইনীমূখ, রাজস্থলী উপজেলার বাঙ্গালহালিয়া, ঘিলাছড়ি ও গাইন্দ্যা, বরকল উপজেলার আইমাছড়া, বড়হরিণা, বরকল সদর, ভূষনছড়া ও সুবলং, নানিয়ারচর উপজেলার বুড়িঘাট, ঘিলাছড়ি, নানিয়ারচর সদর ও সাবেংক্ষ্যং, বাঘাইছড়ি উপজেলার বাঘাইছড়ি, বঙ্গলতলী, সারোয়াতলী, খেদারমারা, মারিশ্যা, রুপকারী, সাজেক ও আমতলী,  রাঙামাটি সদর উপজেলার বন্দুকভাঙ্গা, বালুখালী, জীবতলী, কুতুকছড়ি, মগবান ও সাপছড়ি এবং কাপ্তাই উপজেলার চিৎমরম, কাপ্তাই, রাইখালী ও ওয়াগ্গা।

এসব আসনে ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন মোট ১৯২ প্রার্থী। চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন স্বতন্ত্র ১১৯, আওয়ামী লীগ (নৌকা) ৪৪, বিএনপি (ধানের শীষ) ২২, জাতীয় পার্টি (লাঙ্গল) ৪ এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের (হাতপাখা) ৩ জন। এছাড়াও সাধারণ ওয়ার্ডে ১৩১২ এবং সংরক্ষিত মহিলা আসনে ৪১৩ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

ভোট কেন্দ্রের মোট সংখ্যা ৪৪৮। আর ভোটকক্ষ রয়েছে মোট ১১৬৯টি। এসব ভোট কেন্দ্রে ৪৪৮ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ১১৬৯ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারসহ ২৩৩৮ জন পোলিং অফিসার কাজ করছেন। তাছাড়া ২৩ জন রিটার্নিং কর্মকর্তাও নিয়োগ দেওয়া হয়। এবার রাঙামাটি জেলার ১০টি উপজেলায় নারী ভোটার সংখ্যা হচ্ছে ৩ লক্ষ ৩৩ হাজার ৪১০ জন। আর পুরুষ ভোটার সংখ্যা ১ লক্ষ ৫৭ হাজার ৮৪৮ জন।

প্রসঙ্গত, এবার নির্বাচনের আগেই রাঙামাটির কাউখালী উপজেলার ফটিকছড়ি ইউনিয়নে ইউপিডিএফ সমর্থিত ধন কুমার চাকমা নামে একজন চেয়ারম্যান প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া কাপ্তাই উপজেলার চন্দ্রঘোনায় সীমানাসংক্রান্ত জটিলতার কারণে নির্বাচন স্থগিত রেখেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। 

অবাধ ও সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ, শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে বলে জানান, রাঙামাটি জেলা  নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নাজিম উদ্দীন ।

রাঙামাটির জেলা উপজেলা ইউনিয়ন পরিষদের প্রায় সবগুলো কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে জেলা পুলিশ প্রশাসন সামসুল আরেফিন । আইন শৃংখলা রক্ষায় প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে পর্যাপ্ত আইন শৃঙ্খলা বাহিনী নিয়োজিত রয়েছে। এছাড়াও পুলিশের পাশাপাশি রয়েছে, র‌্যাব ও বিজিবি এবং আনসার ভিডিপি। কেন্দ্রের বাইরে টহলে আছেন সেনাবাহিনীর সদস্যরা।

 

বিডি-প্রতিদিন/ ০৪ জুন, ২০১৬/ আফরোজ




আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow