Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২ অক্টোবর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২১ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ২০ জুন, ২০১৬ ২২:১৯
গাজীপুরে ভ্যানে সিলিন্ডার গ্যাস বিক্রি
আফজাল, টঙ্গী
গাজীপুরে ভ্যানে সিলিন্ডার গ্যাস বিক্রি
গাজীপুরের বড়বাড়ী এলাকায় যমুনা সিএনজি স্টেশন থেকে খোলা সিলিন্ডারে গ্যাস বিক্রি করা হয়

গাজীপুর মহানগরের বিভিন্ন এলাকায় অবৈধভাবে ভ্যানে করে ভ্রাম্যমাণ সিলিন্ডারে গ্যাস বিক্রি হচ্ছে। বিস্ফোরক অধিদফতরের নির্দেশনা উপেক্ষা করে অসাধু সিএনজি স্টেশন মালিকরা অবাধে খোলা সিলিন্ডারে গ্যাস বিক্রি করছে। আবার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান মালিক অবৈধভাবে খোলা সিলিন্ডারে গ্যাস সরবরাহ নিচ্ছে। এতে যে কোনো সময় সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়ে ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

মহানগরীর বিভিন্ন এলকায় সিএনজি স্টেশনে বিপজ্জনক খোলা সিলিন্ডারে গ্যাস বিক্রি হচ্ছে। এর মধ্যে টঙ্গী চেরাগআলী এলাকায় আফতাব সিএনজি, স্প্রিড সিএনজি, এরশাদ নগর এলাকায় আলম সিএনজি, কুনিয়া তারগাছ এলাকায় মারকোপ্লাস সিএনজি, ব্লেজ সিএনজি, বড়বাড়ী এলাকায় যমুনা সিএনজি, আল-হেরা সিএনজি, ছয়দানা মালেকের বাড়ি এলাকায় প্রোগেসিভ সিএনজি ও স্পেন সিএনজি স্টেশনসহ অধিকাংশ সিএনজি স্টেশনে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় গ্যাস বিক্রি করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে স্থানীয় এক বাসিন্দা ও বৃহত্তর ময়মনসিংহ পরিষদের সভাপতি মো. জালাল মাস্টার বলেন, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান মালিক রিকশাভ্যানে খোলা অবস্থায় সিলিন্ডারে গ্যাস কিনে কারখানার পাশে সড়কের ওপর সিলিন্ডার রেখে গ্যাস ব্যবহার করছেন। বিপজ্জনক প্রক্রিয়ায় ব্যবহৃত সিলিন্ডার বিস্ফোরণ ঘটলে মারাত্মক ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। আফতাব সিএনজির ম্যানেজার মাসুদ রানা বলেন, মেয়াদোত্তীর্ণ সিলিন্ডারে গ্যাস বিক্রি ঝুঁকিপূর্ণ। সিলিন্ডারের মেয়াদ থাকলে কোনো সমস্যা নেই। তাছাড়া বিজিএমই ও বিকেএমই এর অনুমতিক্রমে কারখানা মালিকরা সিলিন্ডারে গ্যাস ব্যবহার করছে। স্পেন সিএনজি স্টেশন ম্যানেজার দিপু বলেন, এভাবে খোলা অবস্থায় সিলিন্ডারে গ্যাস বিক্রি অবৈধ। সবাই বিক্রি করে তাই আমরাও বিক্রি করছি। তাছাড়া আমাদের মালিক বিক্রির নির্দেশ দিয়েছেন। ব্যবহারকারী এক ওয়াশিং কারখানা পরিচালক আবদুর রাজ্জাক বলেন, আমরা কোটি টাকা দিয়ে কারখানা করেছি। সরকারকে নিয়মিত ভ্যাট প্রদান করেও সরকারি সুযোগ পাচ্ছি না। গ্যাস সংযোগ বন্ধ থাকায় অনেক কষ্টে আমাদের সিলিন্ডারে গ্যাস ব্যবহার করতে হচ্ছে। এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্টিবিউসন কোম্পানি লিমিটেডের টঙ্গী আঞ্চলিক বিপণন কর্মকর্তা প্রকৌশলী অজিত চন্দ দেব বলেন, খোলা গ্যাস বিক্রি করা সম্পূর্ণ অবৈধ।




up-arrow