Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২১:৩১
গাজীপুরে সড়কজুড়ে যানজট
আফজাল, টঙ্গী
গাজীপুরে সড়কজুড়ে যানজট
চেরাগআলী-ভাদাম সড়কের প্রবেশমুখে ইজিবাইক স্ট্যান্ড ও অটোরিকশার কারণে যানজটের সৃষ্টি হয়। আবদুল্লাহপুর-গাজীপুর সড়কে উল্টোমুখে চলছে রিকশাসহ বিভিন্ন যানবাহন। প্রায় ১৮টি ইউটার্নে হয় তীব্র যানজট।

গাজীপুর মহানগরের বিভিন্ন স্থানে সড়কজুড়ে অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক, অটো ও টেম্পো স্ট্যান্ড। ইজিবাইক নিয়ন্ত্রণকারীরা থানা পুলিশকে ম্যানেজ করে সড়কের জায়গা দখল করে গাড়ির স্ট্যান্ড বানিয়ে প্রতি মাসে লাখ লাখ টাকা চাঁদা তুলছে।

এতে যানজটে অতিষ্ঠ নগরবাসী।

টঙ্গী স্টেশন রোড, কামড়পাড়া রোড, চেরাগআলী ভাদাম রোড, গাজীপুরা, বড়বাড়ী, বোর্ডবাজার, পুবাইল, মিরেরবাজার, জয়দেবপুর চৌরাস্তা, শিববাড়ী, শিমুলতলীসহ বিভিন্ন স্থানে অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক ও অটো-স্ট্যান্ড। কতিপয় ব্যক্তি থানা পুলিশকে ম্যানেজ করে লাইসেন্সবিহীন এসব গাড়ি সড়কের জায়গা দখল করে স্ট্যান্ড বানিয়ে চাঁদা তুলছে। কিছু ট্রান্সপোর্ট ব্যবসায়ী ভারী মালবাহী যানবাহন সড়কের ওপর পার্কিং করে গাড়ি ব্যবসাসহ মাল লোড-আনলোড করছে। এতে যানজটের শিকার হচ্ছে নগরবাসী।

ইজিবাইক-লেগুনা নিয়ন্ত্রণকারীর মধ্যে রয়েছেন টঙ্গী স্টেশন রোড এলাকায় খোরশেদ আলম, মনির হোসেন, চেরাগআলী এলাকায় মালিক সমিতির সভাপতি কামাল ও সেক্রেটারি সাদিম, জয়দেবপুর শিববাড়ী এলাকায় যুবলীগ নেতা সাইদুল ইসলাম, পুবাইল মিরেরবাজার এলাকার বকুল ও মাসুদ। অন্যদিকে ফাইসন্স, সিআরএস ও মেঘন রোডসহ বিভিন্ন সড়কে মালবাহী ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান সড়কের ওপর পার্কিং করে মহাজন ট্রান্সপোর্ট মালিক লিটন, ইউনিলিভার বাংলাদেশ লি., কোকোলা, রেকিট লি.সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান সড়কের ক্ষতি করে আসছে। ইতিমধ্যে এসব সড়কে অবৈধভাবে গাড়ি পার্কিং করার দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত জরিমানাও আদায় করেছে।

স্থানীয় বাসিন্দা সরকার জাহিদুল ইসলাম টিপু বলেন, চেরাগআলী-ভাদাম সড়কে ইজিবাইক ও অটোরিকশার কারণে যানজট লেগেই থাকে।

সকালে ছেলেমেয়েদের নিয়ে স্কুলে যেতে খুবই কষ্ট হয়। যুবলীগ নেতা সাইদুল ইসলাম বলেন, শিববাড়ী ও শিমুলতলী আমি একা নিয়ন্ত্রণ করছি এ কথাটি ঠিক নয়। সিটি মেয়র (ভারপ্রাপ্ত) আসাদুর রহমান কিরণ বলেন, সড়কের ওপর গাড়ি স্ট্যান্ড ও পার্কিং করে রাস্তা নষ্ট করতে দেওয়া হবে না।

এ ছাড়া ঢাকা-গাজীপুর সড়কের আবদুল্লাহপুর থেকে গাজীপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত অন্তত ১৮টি ইউটার্ন রয়েছে। মাত্র ১৫ কিলোমিটারের এই দূরত্বে এতগুলো ইউটার্ন যানজট তীব্রতর করছে। ইউটার্ন রয়েছে গাজীপুর চৌরাস্তা মুকুল ফিলিং স্টেশন, বাইপাস, ভোগড়া বাসন এলাকা, কলম্বিয়া গার্মেন্ট, উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি, আল হেরা সিএনজি স্টেশন, জমজম ফিলিং স্টেশন, জ্যারোমা ফিলিং স্টেশন, সুসল ফিলিং স্টেশন, তামীরুল মিল্লাত মাদ্রাসা, টঙ্গী কলেজ গেট, গাজীপুর সিটি করপোরেশন গেট, হাজী ইউসুফ আলী সুপার মার্কেট, স্টেশন রোড, বাটা গেট। দুপুরের পর থেকে ইউটার্নগুলোয় বাস, ট্রাক, লরি, প্রাইভেটকার থেকে শুরু করে রিকশা সবই দুই পাশের রাস্তা বন্ধ করে পার হয়। যে কারণে টঙ্গী স্টেশন রোড, চেরাগআলী, টঙ্গী কলেজ গেটে তীব্র যানজট হয় প্রতিদিন। সড়কজুড়ে উল্টোমুখী যান চলাচল করছে অবলীলায়। তবু এ নিয়ে মাথাব্যথা নেই কর্তৃপক্ষের।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow