Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:২৬
২৫ হলিডে মার্কেটের চালু আছে একটি
মানিক মুনতাসির
২৫ হলিডে মার্কেটের চালু আছে একটি

রাজধানীর ২৫টি হলিডে মার্কেটের ২৪টিই বন্ধ হয়ে গেছে। চালু রয়েছে মাত্র একটি।

মতিঝিল আইডিয়াল স্কুলের সামনের হলিডে মার্কেটটি অবশ্য ডেইলিডে মার্কেটে পরিণত হয়েছে। স্কুলের ফুটপাথ এবং রাস্তার অর্ধেক অংশজুড়ে স্থায়ী দোকানপাট গড়ে উঠেছে। সপ্তাহের প্রতিদিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত খোলা থাকছে কাপড়সহ আনুষঙ্গিক জিনিসপত্রের এসব দোকান। শিল্পকলা একাডেমির সামনে, মানিক মিয়া এভিনিউ, মিরপুর-২, স্টেডিয়ামের আঙ্গিনা, বিডিআর মার্কেটের স্থানসহ ২৪টি হলিডে মার্কেট দীর্ঘদিন বন্ধ থাকায় রাজধানীর প্রধান প্রধান রাস্তা থেকে মহল্লার ভিতরে ছোট ছোট রাস্তার ফুটপাথ পর্যন্ত দখল হয়ে গেছে। ফলে মূল সড়ক ও ফুটপাথে বেড়েছে হকারদের দৌরাত্ম্য। রাস্তা-ফুটপাথ দখল করে পসরা সাজিয়ে বসছেন হকাররা। প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হচ্ছে যানবাহন ও পথচারী চলাচলে। তবে ঢাকা সিটি করপোরেশন রাজধানীর হকারদের একটি তালিকা করছে বলে জানা গেছে।

২০০৭ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকার রাজধানীর ২৫টি এলাকায় সরকারি ছুটির দিনগুলোতে হকারদের দোকানপাট বসানোর অনুমতি দেয়। সে সময় এসব হলিডে মার্কেট নিম্ন মধ্যবিত্তদের মাঝে বেশ জনপ্রিয়তাও পায়। কিন্তু কিছুদিন পরই উত্তরার মার্কেটটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। সেখানে চালু করা হয় বিডিআর শপ। পরে খেলাধুলা ও নিরাপত্তার অজুহাতে বন্ধ করে দেওয়া হয় মিরপুর স্টেডিয়ামের হলিডে মার্কেটটি। এরপর মত্স্য ভবনের ওই সড়কের হলিডে মার্কেট নিয়ে একজন আইনজীবী আদালতের শরণাপন্ন হন। তিনি অভিযোগ করেন, মত্স্য ভবনের হলিডে মার্কেটের কারণে এ পথে সেগুনবাগিচার বাসিন্দাদের চলাফেরায় ব্যাঘাত ঘটে। এটা নাগরিক অধিকারের পরিপন্থী। আদালতের নির্দেশে মত্স্য ভবনের সামনের হলিডে মার্কেটটিও বন্ধ হয়ে যায়। এরপর ২০০৯ সালে জাতীয় সংসদের কার্যক্রম শুরু হলে মানিক মিয়া এভিনিউর হলিডে মার্কেটও বন্ধ করে দেওয়া হয়। এ ছাড়া যাত্রাবাড়ী, সদরঘাট, গুলিস্তান, ফার্মগেটসহ আরও যে ২০টি পয়েন্টে হলিডে মার্কেট চালু করা হয়েছিল, পরে সেগুলোতেও হকার বসায় নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। ফলে বর্তমানে মতিঝিল আইডিয়াল স্কুলের সামনের হলিডে মার্কেটটি ছাড়া বাকি সবগুলোই ধীরে ধীরে বন্ধ হয়ে যায়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, হকারদের পুনর্বাসনের পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে। এজন্য তাদের একটি নির্ভুল তালিকা করা হচ্ছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow