Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১০ অক্টোবর, ২০১৬ ২১:৪০
ঝুঁকিতে রাজাখালী ব্রিজ
রেজা মুজাম্মেল, চট্টগ্রাম
ঝুঁকিতে রাজাখালী ব্রিজ

চট্টগ্রাম মহানগরীর শাহ আমানত সেতু সংলগ্ন রাজাখালী নতুন চাক্তাই ব্রিজ। এ ব্রিজ দিয়েই দক্ষিণ চট্টগ্রাম এবং কক্সবাজার-বান্দরবানের মানুষ নগরে প্রবেশ করেন।

অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এ ব্রিজ এখন চরম ঝুঁকিতে। ইতিমধ্যে দুটি অংশে দেখা দিয়েছে ভাঙন। একাধিক জায়গায় উঠে গেছে ঢালাই।

ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) এ ব্রিজ দিয়ে বাস, ট্রাক, লরিসহ ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। ব্রিজের দুই মুখেই দেওয়া হয়েছে প্রতিবন্ধক দেয়াল। উভয় পাশে টাঙিয়ে দেওয়া হয়েছে ‘ব্রিজটি ঝুঁকিপূর্ণ বিধায় ট্রাক, বাস ও অন্যান্য ভারী যানবাহন চলাচল সম্পূর্ণ নিষেধ’ শীর্ষক সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি।

জানা যায়, প্রায় ২০ বছর আগে রাজখালি খালের ওপর এ সেতুটি নির্মাণ করা হয়। গত জুন মাসের শেষ দিকে সেতুর মাঝখানের প্রায় ৮ বর্গফুটের একটি অংশ ভেঙে খালে পড়ে যায়। পরে চসিক সেটি মেরামত করলে পুনরায় যানবাহন চলাচল করে। কিন্তু ওই ভাঙার ১০ ফুট পশ্চিমে আরও একটি বড় অংশ ভেঙে যায়। বর্তমানে সেটি ঘেরাও করে রাখা হয়। এতে আতঙ্ক দেখা দেয় পথচারী ও যানবাহনের যাত্রীদের মধ্যে। সবার আশঙ্কা—এই বুঝি ব্রিজটি ভেঙে পড়ছে। পটিয়ার নিয়মিত যাত্রী আবদুল মোমিন বলেন, প্রতিদিন শহরে যেতে হয় এ সেতু দিয়ে। ঝুঁকিপূর্ণ সেতু দিয়ে যাতায়াতে করতে ভয় লাগে। আমাদের দাবি, কর্তৃপক্ষ যাতে দ্রুত সেতুটি মেরামত করে।  

চসিকের এক সহকারী প্রকৌশলী মঞ্জুরুল হক বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় সেতু দিয়ে ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তা ছাড়া সেতুটির অবস্থা, মান ও টেকসই নিয়ে একটি কনসালট্যান্সি প্রতিষ্ঠান কাজ করেছে। কয়েকদিনের মধ্যে তারা প্রতিবেদন দেবে। প্রতিবেদনের সুপারিশ মতে সেতুর সংস্কার কাজ করা হবে। বর্তমানে বিকল্প হিসেবে মেরিনার্স সড়কের দুটি ব্রিজ দিয়ে যানবাহন চলাচল করতে খুলে দেওয়া হয়েছে।

দক্ষিণ চট্টগ্রামের সাতটি উপজেলা, কক্সবাজার ও বান্দরবান থেকে আসা মানুষের নগরে প্রবেশের দ্বিতীয় প্রধান পথ রাজাখালী নতুন চাক্তাই সেতু। তা ছাড়া এ সড়ক দিয়েই যাতায়াত করে দেশের বৃহৎ পাইকারি পণ্যের বাজার চাক্তাই-খাতুনগঞ্জের পণ্যবাহী যানবাহন। কিন্তু সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় হুমকিতে পড়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থা। তবে বেশি ভোগান্তিতে পড়েছেন চাক্তাই-খাতুনগঞ্জ থেকে কক্সবাজার, বান্দরবান ও দক্ষিণ চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলায় ভোগ্যপণ্য নিয়ে যাতায়াতকারী ব্যবসায়ীরা।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow