Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:১০
১২ দেশের ৫৬ অতিথি আসবেন সম্মেলনে
নিজস্ব প্রতিবেদক

আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনে ১২টি দেশের ৫৬ নেতা যোগ দিচ্ছেন। গতকাল সন্ধ্যায় ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সম্মেলন উপলক্ষে নির্মিত অস্থায়ী কার্যালয়ে অভ্যর্থনা কমিটি আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে কমিটির সদস্য সচিব ডা. দীপু মনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘এ পর্যন্ত ১২টি দেশের ৫৫ জন বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনে যোগদানের বিষয় আমাদের নিশ্চিত করেছেন। তবে এ অতিথির সংখ্যা আরও বাড়বে। ইতিমধ্যে দুজন অতিথি বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছেন। ’ এ সময় অভ্যর্থনা কমিটির আহ্বায়ক ও আওয়ামী লীগের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম, আন্তর্জাতিক-বিষয়ক সম্পাদক কর্নেল ফারুক খান (অব.) উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, সম্মেলনে আসা বিদেশি মেহমানদের বিমানের বিজনেস রিটার্ন টিকিট ও বাংলাদেশে থাকা-খাওয়ার সব বন্দোবস্ত আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে করা হবে। শুধু সম্মেলনে শুভেচ্ছা বক্তব্যই নয়, বিদেশি মেহমানদের জন্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, নৈশভোজ, সম্মেলনের দিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সৌজন্য মধ্যাহ্নভোজ, বঙ্গবন্ধু জাদুঘর, জাতীয় সংসদ ভবন এবং জাতীয় জাদুঘর পরিদর্শন ছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতেরও ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে।

জানা গেছে, ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি, বিরোধী দল কংগ্রেস, তৃণমূল কংগ্রেস, সিপিআইএমসহ বাংলাদেশের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে এমন বেশ কয়েকটি রাজ্যের ক্ষমতাসীন দলের সভাপতিকেও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। ভারতীয় জনতা পার্টি বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ, কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী, তৃণমূল কংগ্রেসের সুপ্রিমো ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি, সিপিএম নেতা প্রকাশ কারাত, সীতারাম ইয়েচুরি, পশ্চিমবঙ্গের বাম নেতা বিমান বসু, ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার, তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতা জয়ারাম, দিল্লির আম আদমি পার্টির প্রধান ও সেখানকার মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে দাওয়াত পাঠানো হয়েছিল।

এ ছাড়া যুক্তরাজ্যের ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টি, বিরোধী দল লেবার পার্টি, চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টি, যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতাসীন ডেমোক্র্যাটিক পার্টি, বিরোধী দল রিপাবলিকান পার্টি, অস্ট্রেলিয়ার লেবার পার্টি ও রিপাবলিক পার্টি, কানাডার কনজারভেটিভ পার্টি ও নিউ ডেমোক্র্যাটিক পার্টি, রাশিয়ার ইউনাইটেড রাশিয়া ও রিপাবলিকান পার্টি অব রাশিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকার আফ্রিকান ন্যাশনাল কংগ্রেস ও ডেমোক্র্যাটিক অ্যালায়েন্স, জাপানের ডেমোক্র্যাটিক পার্টি ও লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টি, নেপালের কমিউনিস্ট পার্টি ও নেপালি কংগ্রেস, শ্রীলঙ্কার ইউনাইটেড ন্যাশনাল পার্টি ও আইটিএকে এবং মালয়েশিয়ার ইউএমএনও, পিপলস জাস্টিস পার্টির প্রধানকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

up-arrow