Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৮ জুন, ২০১৮ ১৭:৩১ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৮ জুন, ২০১৮ ১৮:৫০
ব্রাজিলের বিপক্ষে সুইজারল্যান্ডের গোলটি বাতিল করা উচিত ছিল: ইংলিশ রেফারি
অনলাইন ডেস্ক
ব্রাজিলের বিপক্ষে সুইজারল্যান্ডের গোলটি বাতিল করা উচিত ছিল: ইংলিশ রেফারি

রাশিয়া বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে রবিবার রাতে সুইজারল্যান্ডের সঙ্গে ১-১ ড্র করেছে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল।  কিন্তু ম্যাচের জয়-পরাজয় ছাপিয়ে এখন বিতর্কের কেন্দ্র বিন্দুতে ম্যাচ রেফরি।

২০ মিনিটে দুর্দান্ত গোল করে ব্রাজিলকে এগিয়ে দেন ফিলিপে কুতিনহো। প্রথমার্ধের শেষে এই গোলেই এগিয়েছিল নেইমাররা। সেই সময় ব্রাজিলের খেলা দেখে মনে হচ্ছিল তারা সহজেই জিতে যাবেন।  কিন্তু ৫০ মিনিটে গোল পরিশোধ করে দেন সুইজারল্যান্ডের স্টিভেন জুবের। আর এই গোল নিয়ে যত বিতর্ক।

জুবের কর্নার থেকে জোরাল হেডে গোল করার ঠিক আগে মার্কার মিরান্ডাকে ধাক্কা মেরে সরিয়ে দেন। ব্রাজিলের ফুটবলাররা ফাউলের আবেদন জানালেও মেক্সিকান রেফারি সিজার র‌্যামোস কর্ণপাত করেননি।

এ প্রসঙ্গে ফিফার সাবেক ইংলিশ রেফারি কেইথ হ্যাকেট বলেছেন, আমার মনে সন্দেহের কোনো অবকাশ নেই যে, প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে রেফারির গোলটি বাতিল করা উচিত ছিল। এটা বিশ্বকাপের জন্য একটা খারাপ সংবাদ বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
  
লন্ডনভিত্তিক গণমাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফে লেখা এক কলামে কেইথ হ্যাকেট বলেন, জুবের জায়গা করে নেওয়ার জন্য ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার মিরান্ডাকে তার বাহু দিয়ে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন। কিন্তু রেফারি বুঝতে পরিষ্কার ও সুস্পষ্ট ভুল হয়েছিল এটা পেনালিজিং ফাউল নয়। এমনকি ব্রাজিলিয়ানরা ফাউলের আবেদন করার পর তার সহকারী ও প্রযুুক্তি রেফরিরা চ্যালেঞ্জ আনার জন্য মাঠের মূল রেফরি রামোসের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। স্কিনে দেখে সিদ্ধান্ত রিভিউ করার সুযোগ ছিল রামোসের কাছে। আমার কাছে কোনো সন্দেহ নেই, রেফারি তার ভুল বুঝতে পারতো এবং গোলটি বাতিল করে দিতো।

 

এর বাইরেও বেশ কিছু সিদ্ধান্ত ব্রাজিলের বিপক্ষে গেছে। ৭৪ মিনিটে গ্যাব্রিয়েল জেসুসকে বক্সের মধ্যে জাপটে ধরে ফেলে দেন সুইজারল্যান্ডের ডিফেন্ডার ম্যানুয়েল আকাঞ্জি। এক্ষেত্রেও পেনাল্টির আবেদনে সাড়া দেননি রেফারি।নেইমারকে প্রথম থেকেই ফাউল করতে থাকেন বিপক্ষ ডিফেন্ডাররা। সেক্ষেত্রেও রেফারির তেমন কড়া মনোভাব দেখা যায়নি।

বিডি-প্রতিদিন/১৯ জুন, ২০১৮/মাহবুব

আপনার মন্তব্য

up-arrow