Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯ ১৭:৩৫
আপডেট : ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯ ২০:২৯

সাকিবের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ঢাকার দারুণ জয়

অনলাইন প্রতিবেদক

সাকিবের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ঢাকার দারুণ জয়
ফাইল ছবি

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) চলতি আসরের ১৯তম ম্যাচে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শক্তিশালী ঢাকা ডায়নামাইটসকে ১৫৯ রানের টার্গেট দেয় সিলেট সিক্সার্স। শুক্রবার দুপুর ২টায় সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হয়। প্রথমে ব্যাট করে  সিলেট সিক্সার্স নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৫৮ রান করে। ১৫৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দলনায়ক সাকিব আল হাসানের ঝড়ো ব্যাটিংয়ের কল্যাণে ৬ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ঢাকা।

১৫৯ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ৩৭ রানেই ৩ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে যায় ঢাকা। এরপর ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন সাকিব। তাকে যোগ্য সঙ্গ দিয়ে ১৫ বলে ১৯ রানের ছোট ইনিংস খেলে বিদায় নেন ডারউইশ রাসোলি। তার বিদায়ের পর মাঠে নামেন ক্যারিবীয় অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেল। সাকিবের ৪১ বলে অপরাজিত ৬১ রানের দুর্দান্ত ইনিংসটি ৮ চার ও ২ ছক্কায় সাজানো ছিল। আর রাসেল মাত্র ২১ বলে অপরাজিত ৪০ রান করেন। এই দুজনের ঝড়ে ১৭ ওভারেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় ঢাকা।

বল হাতে সিলেটের পক্ষে নেপালি স্পিনার সন্দ্বীপ লামিচানে ৪ ওভারে ২৭ রান খরচ করে ১ উইকেট নেন। ইরফান ২ উইকেট নিলেও খরচ করেছেন ৩৮ রান। 

এর আগে টসে জিতে ব্যাটিং নিয়ে সিলেট সিক্সার্স লিটন দাস ও সাব্বির রহমানের ওপেনিং জুটিতে ৩৮ রান করে। এরপর সাকিব আল হাসানের শিকার হয়ে লিটন দাস ফেরার আগে ১৪ বলে ৪ চার ও ১ ছক্কায় ঝড়োগতিতে করেন ২৭ রান করেন। লিটনের ধাক্কা কাটিয়ে ওঠার আগেই ব্যক্তিগত ১১ রানে সাজঘরে ফেরত আসেন সাব্বির। দুই ওপেনারের বিদায়ের পর দলের হাল ধরেন আফিফ হোসেন ও ওয়ার্নার। 

দলীয় ৭৮ রানে অ্যান্ড্রিউ বির্চের বলে কট বিহাইন্ড হয়ে ব্যক্তিগত ১৯ রানে ফেরেন আফিফ। দ্রুত এ উইকেট হারিয়ে যাওয়ায় ২ উইকেটে ৭৭ থেকে খানিকের মধ্যে সিলেটের স্কোর দাঁড়ায় ৫ উইকেট হারিয়ে ৮৬ রান। এরপর জাকির আলিকে নিয়ে হাল ধরেন ওয়ার্নার। ওয়ার্নার ৪৩ বলে ৮ চার ও ১ ছক্কায় ৬৩ রানের অধিনায়কোচিত ইনিংস খেলে বিদায় নেন।

তবে এক প্রান্ত আগলে রাখা জাকের আলী ১৮ বলে ২৫ রান করে বির্চের বলে রুবেলের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ওভারে ৮ উইকেটে ১৫৮ রান তোলে সিলেট। ঢাকার হয়ে বির্চ নেন ৩ উইকেট। সাকিবের শিকার ২ উইকেট।

 

বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ তাফসীর


আপনার মন্তব্য