Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৬:৩৯

বিসিসি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মবিরতি, ভোগান্তিতে নগরবাসী

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল:

বিসিসি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মবিরতি, ভোগান্তিতে নগরবাসী

পাঁচ মাসের বকেয়াসহ প্রতি মাসের ৫ তারিখের মধ্যে নিয়মিত বেতন প্রদান, প্রভিডেন্ট ফান্ডের অর্থ বরাদ্দ, বেতন বৈষম্য দূরিকরণ, উন্নয়ন কাজের নামে অনিয়ম রোধ এবং অপ্রয়োজনীয় জনবল বাতিলের দাবিতে টানা দ্বিতীয় দিন চার ঘন্টার কর্মবিরতি পালন করেছে বরিশাল সিটি করপোরেশনের (বিসিসি) কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে বিভিন্ন বিভাগীয় প্রধানসহ অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীরা তাদের দাপ্তরিক কাজ ফেলে কর্মবিরতি শুরু করেন। এর ফলে নগর ভবনের প্রতিটি দপ্তরের চেয়ার-টেবিল ফাঁকা হয়ে যায়। সেবা গ্রহীতারা এসে কাজ সম্পন্ন করতে না পেরে হতাশ হয়ে ফিরে যান।

আন্দোলনরত বিসিসির উচ্চমান সহকারী জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, নিয়মিত কাজ করার পরও বেতন না পাওয়ায় পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন তারা। এতে সামাজিকভাবে হেয় হতে হচ্ছে তাদের। দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ায় বাধ্য হয়েই নিয়মতান্ত্রিক এই আন্দোলনে নেমেছেন।

আরেক আন্দোলনকারী বিসিসি’র কর নির্ধারক কাজী মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, বকেয়া বেতন ও প্রভিডেন্ট ফান্ডের অর্থ বরাদ্দ এবং বিভিন্ন অনিয়ম রোধের দাবিতে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা আন্দোলন শুরু করেছে। এর অংশ হিসেবে গত বুধবার প্রথম দিন তিন ঘন্টার কর্মবিরতি পালন করা হয়। বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিন পালন করা হয় চার ঘন্টার কর্মবিরতি। দাবি না মানা পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়া হবে।


আন্দোলনরতরা জানান, বরিশাল সিটি করপোরেশনের স্থায়ী কর্মকর্তা-কর্মচারীর সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৪শ’। অস্থায়ী কর্মচারীরা সংখ্যা ৭৯জন। তারা গত পাঁচ মাস ধরে বেতন পাচ্ছেন না। এছাড়া আউট সোর্সিংয়ের প্রায় দেড় হাজার শ্রমিক-কর্মচারী বেতন পাচ্ছেন না গত দুই মাস ধরে।

বিডি-প্রতিদিন/এস আহমেদ


আপনার মন্তব্য