শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ৫ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২৩:১৭

খুলনা

শ্যোন অ্যারেস্ট আতঙ্কে বিএনপি কর্মীরা স্মারকলিপি

সামছুজ্জামান শাহীন, খুলনা

শ্যোন অ্যারেস্ট আতঙ্কে বিএনপি কর্মীরা স্মারকলিপি

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ‘শ্যোন অ্যারেস্ট’ আতঙ্ক ভর করেছে খুলনা বিএনপি নেতা-কর্মীদের মধ্যে। আদালতে আটক হওয়া নেতা-কর্মীরা কোনো মামলায় জামিন পেলেও পুলিশ অন্য মামলায় তাদের শ্যোন অ্যারেস্ট দেখাচ্ছে। বিএনপির দাবি, খুলনায় ১৯ মামলায় কারাগারে আটক ১৮২ নেতা-কর্মীর মুক্তি প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত করতে শ্যোন অ্যারেস্ট প্রক্রিয়াকে অসৎ উদ্দেশে ব্যবহার করা হচ্ছে। এতে নির্বাচনের আগে তাদের মুক্তি অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

এদিকে নেতা-কর্মীদের           মুক্তি বাধাগ্রস্ত করতে শ্যোন অ্যারেস্ট প্রক্রিয়া বন্ধসহ খুলনায় লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরিতে ৬ দফা দাবি জানিয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। গতকাল খুলনা জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসারকে দেওয়া স্মারকলিপিতে এসব দাবি জানানো হয়। এতে জামিন না দেওয়ার জন্য আদালতের ওপর চাপ প্রয়োগ বন্ধ ও ডুমুরিয়ায় বাস পোড়ানো মিথ্যা মামলায় হয়রানি বন্ধের দাবি জানানো হয়। স্মারকলিপি গ্রহণ করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ হেলাল হোসেন। মহানগর বিএনপি সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেন, নির্বাচন কমিশনে বারবার দাবি জানানো হলেও মিথ্যা মামলায় আটক নেতা-কর্মীদের মুক্তি দেওয়া হয়নি।

তার ওপরে খুলনা সদর ও সোনাডাঙ্গা থানা পুলিশ নেতা-কর্মীদের মুক্তি বাধাগ্রস্ত করতে শ্যোন অ্যারেস্ট প্রক্রিয়ার অসৎ ব্যবহার করছে। খুলনায় ঐক্যফ্রন্টের প্রধান সমন্বয়ক মনিরুজ্জামান মনি বলেন, আইনজীবী সমিতি, আদালত চত্বর ও শহরের বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনী পোস্টার এখনো অপসারণ করা হয়নি। এ ছাড়া সরকারি দলের বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করা হলেও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর