Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
প্রকাশ : সোমবার, ১৮ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ মার্চ, ২০১৯ ২৩:৩৫

সীমান্তে নতুন বিট খাটালের সুপারিশে বিজিবির আপত্তি

আধিপত্য নিয়ে উত্তেজনা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

সীমান্তে নতুন বিট খাটালের সুপারিশে বিজিবির আপত্তি

রাজশাহীতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) আপত্তি সত্ত্বেও সীমান্তে নতুন একটি বিট খাটালের অনুমতির জন্য সুপারিশ করেছে জেলা প্রশাসন। নীতিমালা লঙ্ঘন করে সুপারিশ করা ওই বিট খাটালের আধিপত্য নিয়ে এরই মধ্যে সীমান্ত এলাকায় উত্তেজনা শুরু হয়েছে। বিজিবির পক্ষ থেকে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে আইনশৃঙ্খলার অবনতির আশঙ্কার কথা জানানো হয়েছে। রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার চরআষাড়িয়াদহ (হনুমন্তনগর/সাহেবনগর) সীমান্তে আগে থেকেই একটি বিট খাটাল আছে। তারপরও নতুন খাটাল স্থাপনের সুপারিশ করেছে জেলা প্রশাসন। অভিযোগ অনুযায়ী, চরআষাড়িয়াদহ সীমান্তে দুই বছর ধরে আরিফুল ইসলাম স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনে একটি বিট খাটাল পরিচালনা করে আসছেন। নীতিমালার আলোকে এবারও তিনি বাংলা ১৪২৬ সালের জন্য নবায়নের আবেদন করেছেন। কিন্তু রহস্যজনক কারণে একই স্থানে রাজশাহী মহানগরীর বাসিন্দা তৌফিক আহাম্মেদ বাকীর নামে নতুন একটি খাটাল স্থাপনের জন্য সুপারিশ জেলা কমিটির কাছে পাঠিয়েছেন গোদাগাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও স্থানীয় বিট খাটাল কমিটি। স্থানীয় প্রশাসনের এই ধরনের দ্বিমুখী পদক্ষেপে এলাকায় সৃষ্টি হয়েছে চরম বিভ্রান্তি। এলাকাবাসীর অভিযোগ থেকে জানা গেছে, গত ৫ ফেব্রুয়ারি গোদাগাড়ী উপজেলা বিট খাটাল কমিটির সভায় চরআষাড়িয়াদহ সীমান্তে আরিফুল ইসলামের খাটালটি নবায়নের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে তা রেজ্যুলেশন করে জেলা প্রশাসন ও জেলা টাস্কফোর্স কমিটিতে পাঠানো হয়। একই সঙ্গে তৌফিক আহাম্মেদ বাকীর আবেদনটি নামঞ্জুর করা হয়। গত ১৮ ফেব্রুয়ারি জেলা টাস্কফোর্সের সভায় সীমান্তে বিট খাটাল স্থাপনের বিষয়ে আলোচনা হলেও কমিটির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক সব আবেদন সিদ্ধান্ত ছাড়াই মৌখিকভাবে স্থগিত করে দেন।

এদিকে বাকী পুনরায় জেলা কমিটিতে তার আবেদনটি জমা দেন। আবেদনটি জেলা প্রশাসক উপজেলা কমিটিতে পাঠিয়ে দ্রুত প্রতিবেদন তলব করে। ৫ মার্চ উপজেলা বিট খাটাল কমিটি পুনরায় সভা করে। সভায় বাকীর আবেদনটি পুনর্বিবেচনার বিষয়ে আলোচনায় এলে সভায় উপস্থিত বিজিবির প্রতিনিধি নতুন বিট খাটাল স্থাপনের বিষয়ে অসম্মতি জানান। বিজিবির আপত্তি সত্ত্বেও উপজেলা কমিটি রহস্যজনক কারণে বাকীর নামে একই এলাকায় নতুন বিট খাটাল স্থাপনের সুপারিশ দিয়ে প্রতিবেদন জেলা কমিটিতে পাঠায়। নীতিমালায় নবায়নকে অগ্রাধিকার দেওয়ার কথা থাকলেও প্রশাসন সেই বিষয়টিকে আড়াল করেই নতুন খাটালের সুপারিশ দিয়েছে।

এ সম্পর্কে জানতে চাইলে গোদাগাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা বিট খাটাল কমিটির সভাপতি শিমুল আক্তার জানান, উপজেলা বিট খাটাল কমিটির সদস্যদের সুপারিশে নতুন ফাইলের সুপারিশ দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা বিট খাটাল কমিটির সদস্য বিজিবির বিদিরপুর কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার নজরুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা আরিফুল ইসলামের নবায়নের জন্য মতামত দিয়েছি। কিন্তু তৌফিক আহাম্মেদ বাকীকে নতুন বিট খাটালের সুপারিশের বিষয়ে আপত্তি জানিয়েছি। বিজিবির আপত্তি সত্ত্বেও কীভাবে সুপারিশ গেছেÑ তা আমরা বলতে পারব না।’


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর