Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৩ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ মার্চ, ২০১৯ ২৩:২৫

কোনো নির্বাচনই সুষ্ঠু হয়নি : মান্না

নিজস্ব প্রতিবেদক

কোনো নির্বাচনই সুষ্ঠু হয়নি : মান্না

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, ‘সরকার সব ভোটেই ডাকাতি  করছে। সাধারণ মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়ে একদলীয় স্বৈরশাসন চলছে। ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত ডাকাতির ভোট বাতিল করে নতুন নির্বাচন দিতে হবে। জাতীয় নির্বাচনে যে ডাকাতির সূচনা করেছে এখন ডাকসু, উপজেলা, পৌরসভা ভোট একতরফা ডাকাতি করছে। কোনো নির্বাচনই সুষ্ঠু হয়নি। নতুন নির্বাচন চাই।’ গতকাল রাজধানীর পল্টনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। ঐক্যফ্রন্ট কার্যালয়ে জোটের স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠক শেষে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান, জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব, সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, নাগরিক ঐক্যের মমিনুর রহমান, শহীদুল্লাহ কায়সার, ডা. জাহেদ উর রহমান, গণফোরাম সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু, নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের হাবিবুর রহমান হাবিব বীরপ্রতীক প্রমুখ। সংবাদ সম্মেলনের আগে পল্টনের জামান টাওয়ারে ফ্রন্টের কার্যালয়ে এক ঘণ্টার বৈঠক করে স্টিয়ারিং কমিটি।

বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব।

সংবাদ সম্মেলনে মান্না বলেন, ‘সরকারের নির্বাচন ডাকাতির জন্য মানুষ ভোটে আগ্রহ হারিয়েছে। উপজেলা ভোটে আমরা দেখেছি কেন্দ্রের সামনে আনসার সদস্যরা ঘুমাচ্ছেন। কেউ ভোট দিতে আসছে না। গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা এখন ধসে পড়েছে এমন মন্তব্য সরকারের লোকেরাও করছেন। রাষ্ট্র আজ স্বৈরশাসনের কবলে পড়েছে। আমরা মানুষের অধিকারের জন্য আন্দোলন করছি। বিজয় না হওয়া পর্যন্ত এ আন্দোলন চলবে।’ মান্না এ সময় জোটের কর্মসূচি ঘোষণা করেন। এর মধ্যে রয়েছেÑ ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ঐক্যফ্রন্টের নেতারা সকাল ৯টায় সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। তিনি বলেন, নতুন নির্বাচনের দাবি, নিরাপদ সড়ক দাবি, সিটি করপোরেশন নির্বাচন, উপজেলা নির্বাচন ও ডাকসু নির্বাচনে অব্যবস্থাপনা, গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি এবং অর্থনৈতিক বৈষম্যের প্রতিবাদে ৩০ মার্চ জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বেলা ১১টায় মানববন্ধন। ৩১ মার্চ বিকাল ৩টায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভা। এ ছাড়া এপ্রিলজুড়ে বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ে কর্মী সমাবেশ ও জনসভার ঘোষণা দেন মান্না।

জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেন, ‘কালো টাকার মালিক, ঋণখেলাপিদের এক পার্সেন্টের বিনিময়ে সব টাকা মওকুফ করে দেওয়ার বিষয়ে সরকার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, আমরা একে প্রত্যাখ্যান করেছি।’ তিনি আরও বলেন, ‘স্বাধীনতা দিবসকে বিভিন্নভাবে খি ত করা হচ্ছে। সরকারের বিভিন্ন মহল থেকে বলা হচ্ছে, ৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুকে দিয়ে ষড়যন্ত্রকারীরা স্বাধীনতা ঘোষণা করতে চেয়েছিল। তাহলে কি আমরা ধরে নেব বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতা ঘোষণা করতে চাননি।’ তিনি বলেন, ‘আমাদের গণশুনানির রিপোর্ট আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ইংরেজি ও বাংলায় বই আকারে প্রকাশ করে জনগণের মাঝে বিতরণ করা হবে। এ গণশুনানির প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে।’


আপনার মন্তব্য