Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৫ মার্চ, ২০১৯ ২২:৫৫

স্বামীর পর স্ত্রীও চলে গেলেন

নিজস্ব প্রতিবেদক

স্বামীর পর স্ত্রীও চলে গেলেন

স্বামীর পর স্ত্রীও চলে গেলেন না ফেরার দেশে। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত (এসি) যন্ত্র বিস্ফোরণে দগ্ধ হন এ দম্পতি। রবিবার আলমগীর ভূঁইয়া মারা যান। গতকাল দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার স্ত্রী বিলকিস ফারজানা বেবীর মৃত্যু হয়। গত ১৮ মার্চ রাতে নিজ বাসায় এসি বিস্ফোরণে দগ্ধ হয়েছিলেন তারা। উত্তরার ৩ নম্বর সেক্টরের ১৮ নম্বর রোডের একটি ভবনের পাঁচতলার ফ্ল্যাটে থাকতেন ওই দম্পতি। আলমগীর হোসেন (৬২) বিমানবন্দর থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ছিলেন। বিলকিস ফারজানা (৪৮) ছিলেন উত্তরা পশ্চিম থানা মহিলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক  সম্পাদক। গুরুতর দগ্ধ অবস্থায় ওই রাতেই দুজনকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। ঢামেক সূত্র জানায়, ওই রাতে বাসায় ঘুমিয়ে ছিলেন আলমগীর ও বিলকিস। তখন তাদের রুমের পাশে এসির কম্প্রেসার মেশিন বিস্ফোরণ হয়। এতে জানালার গ্লাস ভেঙে রুমের ভিতর আগুন ঢুকে পড়ে। তাৎক্ষণিকভাবে তা পুরো রুমে ছড়িয়ে পড়ে। এতে ঘুমন্ত অবস্থায় তারা দুজন দগ্ধ হন। তবে আগুন কিছুক্ষণের মধ্যেই নিভে যায়। এরপর পাশের বাসার লোকজন তাদের উদ্ধার করে বাসার পাশের একটি হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে পরদিন ভোর ৪টার দিকে তাদের ঢামেক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। ঢামেক বার্ন ইউনিটের আবাসিক সার্জন ডা. পার্থ শংকর পাল জানান, তাদের দুজনেরই শরীরের ৯৫ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল। চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিলকিস আইসিইউতে এবং আলমগীর এইচডিইউতে মারা যান।


আপনার মন্তব্য