শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৭ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ এপ্রিল, ২০১৯ ২৩:১৯

শিক্ষা-স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানের ১০০ গজের মধ্যে সিগারেটের দোকান নয়

-------- চসিক মেয়র

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

শিক্ষা-স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানের ১০০ গজের মধ্যে সিগারেটের দোকান নয়

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেছেন, ‘শিক্ষা ও স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানের ১০০ গজের মধ্যে কোনো ধরনের তামাক পণ্যের দোকান রাখা যাবে না। সিটি করপোরেশন পরিচালিত সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল, ক্লিনিকসহ গুরুত্বপূর্ণ পাবলিক স্থানের ১০০ গজের মধ্যে সব ধরনের    তামাক পণ্যের দোকান শিগগিরই বন্ধ করে দেওয়া হবে। একই সঙ্গে এক বছরের মধ্যে চট্টগ্রাম নগরে প্রকাশ্যে ধূমপান বন্ধ করা হবে।’ গতকাল সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে ‘সকলের অংশগ্রহণে নিশ্চিত হোক তামাকমুক্ত নগরী’ শীর্ষক সাংস্কৃতিক প্রচারাভিযানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। উন্নয়ন সংস্থা বিটা, কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) ও ইলমার উদ্যোগ এবং সিটিএফকের সহায়তায় তামাকের বিজ্ঞাপন, প্রচারণা এবং পৃষ্ঠপোষকতায় নিষেধাজ্ঞার ওপর গুরুত্বারোপ করে সাংস্কৃতিক প্রচারাভিযান ও কবিগান প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। বিটার নির্বাহী পরিচালক শিশির দত্তের সভাপতিত্বে এবং প্রকল্প সমন্বয়কারী অশোক বড়–য়ার পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সিভিল সার্জন ডা. আজিজুর রহমান সিদ্দিকী।  সিটি কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, চসিকের প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়–য়া, ক্যাব-চট্টগ্রামের ভাইস প্রেসিডেন্ট এস এম নাজের হোসাইন, সিটিএফকে বাংলাদেশের লিড কনসালটেন্ট ড. শরিফুল আলম, বিটার টিম লিডার প্রদীপ আচার্য প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। কবিগানের মাধ্যমে উপস্থিত সবার কাছে তামাকমুক্ত নগরী গড়ার বার্তা পৌঁছে দেন কবিয়াল মো. ইউসুফ এবং কবিয়াল নিরঞ্জন সরকারের দল।  সিটি মেয়র বলেন, শিশুদের এখন থেকে সচেতন করতে হবে। তামাকের ভয়ঙ্কর দিকগুলো তাদের জানাতে হবে। তাদের সামনে ধূমপান করা যাবে না। যারা মাদকাসক্ত তারা ৯৯ শতাংশই প্রথমে ধূমপায়ী ছিল। ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে ধূমপানমুক্ত জীবন উপহার দিতে এখন থেকে সচেতন হতে হবে।


আপনার মন্তব্য