শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১০ জুলাই, ২০১৯ ২২:৫৫

শৃঙ্খলায় আনতে হবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে : তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

শৃঙ্খলায় আনতে হবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে : তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ভালো দিকের পাশাপাশি অনেক নেতিবাচক দিকও রয়েছে। এটি আন এডিটেড প্লাটফর্ম। যা ইচ্ছা তা প্রকাশ করা যায় এখানে। যাতে এর মাধ্যমে সমাজ ও রাষ্ট্রের জন্য অকল্যাণকর ও ক্ষতিকর কিছু না হয় সেদিকে দৃষ্টি দিতে হবে।

এ মাধ্যমকে শৃঙ্খলায় আনতে হবে। গতকাল জাতীয় প্রেস ক্লাবে ইউনাইটেড নিউজ অব বাংলাদেশের সম্পাদক মাহফুজুর রহমানের ‘সাংবাদিকতা রাত-বিরাতে’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী। হাছান মাহমুদ আরও বলেন, আগে শুধু প্রাতিষ্ঠানিক মিডিয়ার ওপর খবরের জন্য নির্ভর করতে হতো। এখন করতে হয় না। যেমন বরগুনার প্রকাশ্য হত্যাকা-।

 একই সঙ্গে অতীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেক গুজব ছড়ানো হয়েছে, যা সমাজে অস্থিরতা তৈরি করেছে।

গত ১০ বছরে দেশে সাংবাদিকতার ব্যাপক বিকাশ হয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, দৈনিক পত্রিকার সংখ্যা সাড়ে ৭০০ থেকে এখন ১৩০০ হয়েছে। অনলাইন হাতে গোনা কয়েকটি ছিল, কিন্তু এখন কয়েক হাজার। অনলাইনগুলোকে নিবন্ধনের আওতায় নেওয়া হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, নিবন্ধনের জন্য দরখাস্ত আহ্বান করেছি। এ মাসের ১৫ তারিখ সে সময়সীমা শেষ হবে। কিন্তু এর মধ্যেই আট হাজারের বেশি আবেদন জমা পড়েছে।

ড. হাছান মাহমুদ আরও বলেন, খালেদা জিয়া রাজনীতির জন্য বড় হুমকি। বিএন?পি দে?শের জনগ?ণের ভা?লো চায় না। এটা জা?নে বলেই জনগণ এখন তাদের চায় না।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, মাহফুজুর রহমানের বইটি মূলত তিন দশকের অভিজ্ঞতায় লেখা। এ সময়ে সাংবাদিকতা অনেক পাল্টে গেছে। এখানে সেগুলোই উঠে এসেছে।  মাহফুজুর রহমান বলেন, সাংবাদিকতা করতে গিয়ে সব সময়  শ্রেণিকক্ষ ও সংবাদ কক্ষের মধ্যে এক ধরনের ‘গ্যাপ’ লক্ষ্য করেছি। এ বিষয়গুলো বইটিতে তুলে আনা হয়েছে।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অনারারি অধ্যাপক ড. সাখাওয়াত হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক মফিজুর রহমান, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মাহমুদুল হক, মাহফুজুর রহমানের সহধর্মিণী সৈয়দা ফারজানা তাহসিন, সিনিয়র সাংবাদিক ফারুক কাজী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর