Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper

শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২৩:২০

উত্তপ্ত জাবি, ভিসির মুখোমুখি হচ্ছে আন্দোলনকারীরা

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

উত্তপ্ত জাবি, ভিসির মুখোমুখি  হচ্ছে আন্দোলনকারীরা

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) উন্নয়ন প্রকল্পে আর্থিক কেলেঙ্কারিতে উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের সম্পৃক্ততা নিয়ে দেশব্যাপী নিন্দার ঝড় বইছে। উন্নয়ন প্রকল্প থেকে উপাচার্য জাবি শাখা ছাত্রলীগকে ১ কোটি টাকা দিয়েছেন বলে গণমাধ্যমের কাছে বলেছেন ছাত্রলীগের তিন শীর্ষ নেতা। এরা হলেন শাখা ছাত্রলীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন, সহসভাপতি নিয়ামুল হাসান তাজ ও হামজা রহমান অন্তর। এদিকে এমন পরিস্থিতিতে আজ দি¦তীয় দফা বৈঠকে উপাচার্যের নেতৃত্বে মুখোমুখি হবেন ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারের আন্দোলনকারীরা। বিকাল ৪টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে বৈঠক হবে বলে জানিয়েছেন রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ। এর আগে বৃহস্পতিবার প্রথম দফার বৈঠকে তিন দফা দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের দুটি দাবি মেনে নেওয়া হয়। দাবি দুটি হলো, গাছ না কেটে আবাসিক হল নির্মাণ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সব অংশীজনের মতামতের ভিত্তিতে উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন। তবে উপাচার্যের বিরুদ্ধে ওঠা দুর্নীতির অভিযোগের বিচার বিভাগীয় তদন্তের অন্য দাবিটি নিয়ে জোরালো আলোচনা হওয়ার কথা। এ নিয়ে ভিন্ন তথ্য দিয়েছেন সাম্প্রতিক ঘটনাবলি নিয়ে আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক খান মুনতাসির আরমান। তিনি বলেন, ‘বিচার বিভাগীয় তদন্তের যে দাবিটি তুলেছিলাম সেই প্রেক্ষাপট আর নেই। তখন আমরা উপাচার্যের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগকে অপ্রমাণিত ধরে আন্দোলন করেছি এবং আলোচনায় বসেছি। কিন্তু প্রথম দফা    বৈঠকের পর শোভন-রাব্বানী ও উপাচার্যের মধ্যকার পাল্টাপাল্টি কাদা ছোড়াছুড়ি বিশ্ববিদ্যালয়ের মর্যাদা নষ্ট করেছে।’

তিনি বলেন, ‘এখন প্রমাণিত হয়েছে উপাচার্য আসলেই দুর্নীতিগ্রস্ত। তিনি উপাচার্যের পদ কলঙ্কিত করেছেন। হারিয়েছেন এই পদে থাকার যোগ্যতা।’


আপনার মন্তব্য