শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ অক্টোবর, ২০১৯ ২৩:২৬

সিলেট বিএনপিতে তারেক চান তৃণমূলের পছন্দের নেতৃত্ব

শাহ্ দিদার আলম নবেল, সিলেট

সিলেট বিএনপিতে তারেক চান তৃণমূলের পছন্দের নেতৃত্ব

কেন্দ্র থেকে চাপিয়ে দেওয়া নয়, সিলেটে তৃণমূলের পছন্দের নেতৃত্ব দেখতে চান বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। ভবিষ্যতে কেন্দ্র থেকে আর কোনো কমিটিও ঘোষণা করা হবে না বলে সিলেট জেলা বিএনপি নেতাদের জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে ইউনিয়ন থেকে শুরু করে জেলা পর্যন্ত সকল পর্যায়ের কমিটি কাউন্সিলের মাধ্যমে করারও নির্দেশ দিয়েছেন তারেক। বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টা থেকে সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ঢাকার পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দেড় ঘণ্টা ধরে স্কাইপে সিলেটের নেতাদের সঙ্গে কথা বলেন তারেক রহমান। এ সময় তিনি এই নির্দেশ দেন।

গত ২ অক্টোবর মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বিলুপ্ত করে ঘোষণা করা হয় সিলেট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি। সিলেট জেলা বিএনপির সাবেক সহসভাপতি ও জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি কামরুল হুদা জায়গীরদারকে আহ্বায়ক করে ২৫ সদস্যের কমিটি অনুমোদন দেয় কেন্দ্র। দিকনির্দেশনা দিতে ও নতুন আহ্বায়ক কমিটির সদস্যদের পরিচয় জানার জন্য গত বৃহস্পতিবার বিকালে ঢাকায় ডেকে নিয়ে স্কাইপে বৈঠক করেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। বৈঠকে আহ্বায়ক কমিটির ২১ জন সদস্য উপস্থিত ছিলেন। এ সময় তারেক রহমান তাদের কাছ থেকে সিলেটের সাংগঠনিক অবস্থার খোঁজখবর নেন।

বৈঠকে উপস্থিত একাধিক নেতা জানান, তারেক রহমান তাদের বলেন, বিএনপির সামনে এখন দুটি টার্গেট। একটি হচ্ছে খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং অন্যটি দেশে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি। এজন্য দলকে আরও সুসংগঠিত করার তাগিদ দিয়ে তারেক রহমান বলেন, ‘আমার বাড়ি               বগুড়া আর শ্বশুরবাড়ি সিলেট। আমি চাই বগুড়া থেকেও সিলেটে বিএনপির অবস্থান শক্তিশালী হোক। এজন্য তৃণমূল পর্যায় থেকে বিএনপিকে ঢেলে সাজাতে হবে।’ এখন থেকে আর ঢাকায় বসে কোনো কমিটি চাপিয়ে দেওয়া হবে না- এমন অঙ্গীকার করে তারেক রহমান বলেন, তৃণমূল নেতা-কর্মীরা তাদের আগামী দিনের নেতৃত্ব বেছে নেবেন। তিনি আগামী তিন মাসের মধ্যে সিলেটের সব ইউনিয়ন ও উপজেলায় প্রত্যক্ষ ভোটে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের কড়া নির্দেশ দেন। ইউনিয়ন ও উপজেলা কমিটি গঠন শেষে একই পদ্ধতিতে জেলা কমিটি গঠনেরও নির্দেশ দেন তিনি।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সিলেট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কামরুল হুদা জায়গীরদার, জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ, আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আশিক চৌধুরী, আশিক উদ্দিন চৌধুরী, কাইয়ুম চৌধুরী, অ্যাডভোকেট আশিক চৌধুরী, আবদুল মান্নান, ফারুকুল ইসলাম ফারুক, শাহ জামাল নুরুল হুদা, মাহবুবুর রব চৌধুরী ফয়ছল, ইশতিয়াক আহমদ সিদ্দিকী, নাজিম উদ্দিন লস্কর, সিদ্দিকুর রহমান পাপলু, মাজহারুল ইসলাম ডালিম, অ্যাডভোকেট হাসান আহমদ পাটোয়ারী রিপন, আবদুল আহাদ খান জামাল, মাহবুবুল হক চৌধুরী, আবুল কাশেম, শামিম আহমেদ ও আহমেদুর রহমান চৌধুরী।

 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর