শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০১:৫৯

নির্বাচন ব্যবস্থার সংস্কার দাবি

সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর সাধারণ আলোচনা

নিজস্ব প্রতিবেদক

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সংসদে বিরোধী দলীয় উপনেতা জিএম কাদের সংসদীয় গণতন্ত্রকে সুসংহত করতে নির্বাচন ব্যবস্থার সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদ সংস্কারের দাবি জানিয়ে বলেন, ৭০ অনুচ্ছেদের কারণে সংসদ প্রাণবন্ত হচ্ছে না, কার্যকর হচ্ছে না, সংসদ স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারছে না। কেননা, এ ৭০ বিধির কারণে সরকারি দলের সদস্যরা তাদের মতামত প্রকাশ করতে পারেন না। সে কারণে সরকারের সব সিদ্ধান্ত পাস হয়ে যাচ্ছে। বিরোধীদের মতামতের মূল্য পাচ্ছে না।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে একাদশ সংসদের ষষ্ঠ অধিবেশনে গতকাল রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব দাবি জানান। আলোচনায় অংশ নেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি, খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার, সাবেক মন্ত্রী ইমাজ উদ্দীন প্রামাণিক, সরকারি দলের ক্যাপ্টেন এ বি তাজুল ইসলাম, সালমা  চৌধুরী, মো. নুরুল আমিন, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, বিএনপির এমপি জাহিদুর রহমান প্রমুখ। আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন, নির্বাচনকে মানুষের কাছে স্বচ্ছ করতে না পারি, ভোট ব্যবস্থায় মানুষের আস্থা আনতে না পারি তাহলে গণতন্ত্র থাকবে না। সরকারি দলের ক্যাপ্টেন এ বি তাজুল ইসলাম বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা বর্তমানে আমাদের বড় সমস্যা সৃষ্টি করেছে। রোহিঙ্গারা মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়া ছাড়াও আইন শৃঙ্খলার অবনতি ঘটাচ্ছে। শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, প্রতিবছর এমপিওভুক্তি চলবে। সম্পূর্ণ কম্পিউটারের মাধ্যমে এমপিওভুক্তির কাজ হয়েছে। সেখানে রাজনৈতিক বিবেচনারও কোনো সুযোগ ছিল না। নতুন পরিপত্র অনুযায়ী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির তদন্ত চলছে। এসময় কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভুল তথ্য দিয়ে থাকলে তা বাতিল হবে। খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বিএনপির সমালোচনা করে বলেন, বিএনপি সরকারে থাকতে জনগণের ওপর নির্যাতন নিপীড়ন চালিয়েছে। তারা এখনো দেশে বিদেশে বসে ষড়যন্ত্র করে চলেছে। অনেকে তাদের সঙ্গে ঐক্যের কথা বলেন, এদলের সঙ্গে কিসের ঐক্য?


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর