শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ৩ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২ এপ্রিল, ২০২০ ২৩:৪৮

সিলেটে এমপিদের খুঁজছে মানুষ

করোনাভাইরাসের এই দুঃসময়ে এলাকায় নেই, পাঠাননি সাহায্যও

শাহ্ দিদার আলম নবেল, সিলেট

সিলেটে এমপিদের খুঁজছে মানুষ

করোনাভাইরাস আতঙ্কে কাঁপছে গোটা বিশ্ব। বাংলাদেশের মানুষও এক সপ্তাহ ধরে গৃহবন্দী। এই দুঃসময়ে সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে পড়েছেন শ্রমজীবী ও নিম্নআয়ের মানুষ। তারা না পারছেন ঘর থেকে বের হতে, না পারছেন ঘরে থাকতে। পেটের টানে ঘর থেকে বের হলেও মিলছে না কাজ। শূন্য হাতে ফের ফিরতে হচ্ছে ঘরে। এমতাবস্থায় সিলেটের অসহায় মানুষ চেয়ে আছেন স্থানীয় সংসদ সদস্যদের দিকে। কিন্তু দেখা মিলছে না তাদের। জেলার ছয়জন সংসদ সদস্যের মধ্যে তিনজনই ‘নিখোঁজ’। এই দুঃসময়েও অসহায়দের পাশে দাঁড়াতে দেখা যায়নি তাদের। প্রশাসনের মাধ্যমে আসা সরকারি ত্রাণেই নিজেদের ‘কৃতিত্ব’ খুঁজছেন তারা। এতে জনমনে বাড়ছে অসন্তোষ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ‘নিখোঁজ’ এসব এমপিদের নিয়ে চলছে সমালোচনার ঝড়। বর্তমান পরিস্থিতিতে সিলেটের মধ্যে সবার আগে অসহায় মানুষের জন্য খাদ্য সহায়তা পাঠান সিলেট-১ আসনের এমপি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। দুই দফায় তিনি সাড়ে তিন হাজার অসহায়ের বাসা-বাড়িতে খাদ্যসামগ্রী পাঠিয়েছেন। ঘোষণা দেন পর্যায়ক্রমে সব গরিব অসহায় মানুষের ঘরে খাবার পৌঁছাবেন। তার এই উদ্যোগের পর সিলেটে এখন অনেক বিত্তবান এগিয়ে এসেছেন খাদ্যসহায়তা নিয়ে। এ ছাড়া সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী কয়েসও এলাকায় দুস্থদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। নিজস্ব তহবিল থেকে বিতরণ করে যাচ্ছেন ত্রাণ সামগ্রী। সিলেট-৪ আসনের এমপি ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান ও প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইমরান আহমদ ঢাকায় অবস্থান করলেও তার নির্বাচনী এলাকায় অব্যাহত রেখেছেন ত্রাণ তৎপরতা। এই তিন এমপি ছাড়া সংকটময় এই মুহুর্তে বাকিদের কোনো তৎপরতা নেই নিজেদের নির্বাচনী এলাকায়। সিলেট-২ আসনের এমপি গণফোরামের মোকাব্বির খান এলাকায় অনুপস্থিত। এলাকার মানুষের সঙ্গেও তার কোনো যোগাযোগ নেই। কয়েকদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাকে নিয়ে ব্যঙ্গাত্মক নানা পোস্ট দেখা যাচ্ছে। অনেকে তাকে ‘নিখোঁজ’ দাবি করে সন্ধান কামনা করছেন। সিলেট-৫ আসনের সংসদ সদস্য হাফিজ আহমদ মজুমদারের অবস্থাও একই। এই দুঃসময়ে তাকে পাশে পাননি এলাকার লোকজন। ঢাকায় অবস্থান করা এই এমপির বিরুদ্ধে এর আগেও বিভিন্ন সময় জনবিচ্ছিন্নতার অভিযোগ ওঠে। এরপরও এলাকার মানুষ আশা করেছিলেন, করোনাভাইরাসের এই ক্রান্তিকালে তিনি পাশে দাঁড়াবেন গরিব অসহায়ের। কিন্তু এবারও তারা হতাশ হয়েছেন। উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে বিতরণকৃত ত্রাণ সংসদ সদস্য হাফিজ আহমদ মজুমদারের পক্ষ থেকে বিতরণ করা হচ্ছে এমনটাও মাইকিং করে প্রচার করছেন তার কর্মীরা। সিলেট-৬ আসনের সংসদ সদস্য, সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদকেও খুঁজছে তার নির্বাচনী এলাকার জনসাধারণ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাকে নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার পর গত ২৯ মার্চ তিনি ফেসবুকে গোলাপগঞ্জ ও বিয়ানীবাজারবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন। ওই স্ট্যাটাসে তিনি সবাইকে বাইরে বের না হওয়ার আহ্‌বান জানান। দিনমজুর ও অসহায়দের জন্য উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে ত্রাণ পাঠানো হচ্ছে দাবি করে তিনি এই কাজে এলাকার বিত্তবানদেরও অংশ নেওয়ার অনুরোধ জানান। বিত্তবানদের আহ্‌বান জানালেও সাবেক শিক্ষামন্ত্রীর পক্ষ থেকে এলাকায় কোনো ত্রাণ পাঠানোর খবর পাওয়া যায়নি।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর